ঢাকা সোমবার, ২১ জানুয়ারি ২০১৯, ৮ মাঘ ১৪২৫
২৩ °সে

৩য় দফায় নিজের কিডনি বেচতে গিয়ে ধরা পড়লো বাংলাদেশী যুবক

৩য় দফায় নিজের কিডনি বেচতে গিয়ে ধরা পড়লো বাংলাদেশী যুবক
ক্যাপশনঃ ছবি সংগৃহিত

নাম গনি মিয়া। এর আগেও দুইবার আজমিরে কিডনি বেচতে গিয়ে সফল হননি। এবার সরাসরি চলে এলেন ভারতের চেন্নাইয়ের একটি হাসপাতালে। বাগড়া দিলেন হাসপাতালের চিকিৎসকরা। মাদকাসক্ত ও শারীরীকভাবে দুর্বল কোন মানুষের অঙ্গ তারা স্থানান্তর করবেন না।এরপর বেরিয়ে এলো অবাক করা তথ্য।আপতত গনি মিয়া চেন্নাই পুলিশের হাতে।

ভারতে নিজের কিডনি বিক্রি করতে গিয়ে গনি মিয়া (৩৫) নামে এক বাংলাদেশি যুবককে গ্রেপ্তার হয়েছে। অবৈধভাবে অনুপ্রবেশের অভিযোগে তাকে গ্রেপ্তার করেছে ভারতের পুলিশ। ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে ভারতীয় প্রশাসন। পুলিশ জানায়, নিজের কিডনী বিক্রি করতেই ভারতে যান তিনি।

ভারতের তারাগড় এলাকার খাদিম সাঈদ আনোয়ার নামের এক স্থানীয় ব্যক্তির বাড়িতে গত রবিবার তল্লাশি চালিয়ে গণিকে গ্রেপ্তার করা হয়।

হিন্দুস্তান টাইমস জানায়, গনি মিয়ার কাছ থেকে পাসপোর্ট, মোবাইল ফোনের পাঁচটি সিম কার্ড জব্দ করা হয়। সিমকার্ডগুলোর মধ্যে চারটি বাংলাদেশি ও একটি পাকিস্তানি।এর আগেও কিডনি বিক্রি করতে আরো দুইবার ভারতের আজমিরে গিয়েছিলেন, তবে কোনোবারই সফল হননি গণি মিয়া।

আরো পড়ুনঃ আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন অক্টোবরে: ওবায়দুল কাদের

পুলিশ জানায়, ২০০৮ সালে প্রথম অবৈধভাবে ভারতে প্রবেশ করেন। সে সময় তিনি ৪ মাস চেন্নাইয়ে অবস্থানের পরও নিজের কিডনি বিক্রিতে সফল হতে পারেননি। তামিল ও ইংরেজি ভাষা বলতে না পারায় ঠিকমতো যোগাযোগ করতে পারেননি তিনি।ফিরে এসে চার বছর পর আবারও চেন্নাইয়ের একটি হাসপাতালে কিডনী বিক্রি করতে আসেন। কিন্তু হাসপাতালের ডাক্তাররা তার কিডনী নিতে অসম্মতি জানায়।বুধবার তাকে বিচার বিভাগীয় হেফাজতে নেওয়া হয়েছে।

গণি মিয়ার আশ্রয়দাতা ভারতীয় নাগরিক খাদিম সাঈদ আনোয়ারকে খুঁজছে পুলিশ।

ইত্তেফাক/অনি

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২১ জানুয়ারি, ২০১৯
আর্কাইভ
 
বেটা
ভার্সন