প্রবাস | The Daily Ittefaq

আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সভা

আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সভা
ইত্তেফাক রিপোর্ট১৭ জুন, ২০১৮ ইং ১৯:৪৭ মিঃ
আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সভা
আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের গোল টেবিল বৈঠকে বক্তারা বলেছেন, মিডিয়ার মধ্যে রেষারেষি নয়, পেশাগত প্রতিযোগিতা বাড়ুক। ব্যক্তির প্রতিযোগিতা দেখতে চাই না। সাংবাদিকদের দায়িত্বশীল সাংবাদিকতাই দেখতে চায় সকলে। কমিউনিটি সাংবাদিকতায় অনেক প্রতিবন্ধকতা আছে। নানা প্রতিবন্ধকতা উত্তরণে সাংবাদিক তথা মিডিয়া কর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হওয়া জরুরি।পাঠকদেরও উচিত ভাল-মন্দ সাংবাদিকতার বিচার করা। সমাজে পরিশীলিত ও বুদ্ধিবৃত্তিক সংবাদপত্র পাঠকের মান ও মনন বাড়াতে সাহায্য করে। 
 
গতকাল বিকেলে নিউইয়র্কে উডসাইডে গুলশান ট্যারেস মিলনায়তনে এই গোল টেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে নিউইয়র্ক থেকে প্রকাশিত অধিকাংশ পত্রিকার সম্পাদক-মিডিয়া কর্মী এবং কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ ও পেশাজীবী মুক্ত আলোচনায় অংশ নেন। ঢাকা থেকে আগত বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা ও ঢাকা মহানগর বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সালাম এবং যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান কমিউনিটি সাংবাদিকতার ওপর বক্তব্য রাখেন।
 
এই গোল টেবিল বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সভাপতি দর্পণ কবীর এবং সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন, সাধারণ সম্পাদক শওকত ওসমান রচি। গোল টেবিল বৈঠকের বিষয় ছিল-কমিউনিটি সাংবাদিকতার দায়িত্ব ও প্রতিবন্ধকতা।
 
প্রতিপাদ্য বিষয়ের ওপর প্রথম বক্তব্য রাখেন, আজকাল পত্রিকার সম্পাদক ও প্রবীণ সাংবাদিক মনজুর আহমদ। এরপর বক্তব্য রাখেন বাংলা পত্রিকার সম্পাদক ও টাইম টিভির সিইও আবু তাহের, জেবিবিএ’র সভাপতি শাহ নেওয়াজ, আজকাল পত্রিকার প্রধান সম্পাদক জাকারিয়া মাসুদ জিকো, ঠিকানা পত্রিকার সম্পাদক মণ্ডলীর সভাপতি ও ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক এবং সাবেক সাংসদ এম.এম. শাহীন, বাংলাদেশ পত্রিকার সম্পাদক ও নিউইয়র্ক বাংলাদেশ পত্রিকার সভাপতি ডা. ওয়াজেদ এ খান, জন্মভূমি পত্রিকার সম্পাদক রতন তালুকদার, পরিচয় পত্রিকার সম্পাদক ও আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি নাজমুল আহসান, এটর্নী মীর মিজানুর রহমান, প্রবাস পত্রিকার সম্পাদক মোহাম্মদ সাঈদ ও যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি‘র নেতা গিয়াস আহমেদ। আলোচনা সভার পর ইফতার পূর্ব দোয়া পরিচালনা করেন দেশকণ্ঠ পত্রিকার সম্পাদক মণ্ডলীর সভাপতি আবু জাফর মাহমুদ। কমিউনিটির বিশিষ্ট ব্যক্তি ও সুধীজন এ সভায় উপস্থিত ছিলেন।     
 
ডাঃ ওয়াজেদ এ খান বলেন, কমিউনিটি সাংবাদিকতাকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হলে আমাদের ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। একে অন্যের বিরুদ্ধে কথা বলা উচিত নয়। নানা প্রতিকূলতার মধ্য দিয়ে কমিউনিটিতে সাংবাদিকরা তাদের দায়িত্ব পালন করছেন। আমাদের বিভিন্ন সময় নানা সমস্যা বা প্রতিবন্ধকতা মোকাবেলা করতে হচ্ছে। পত্রিকা বেশি হওয়ায় বিজ্ঞাপনের বাজার সীমিত হয়ে যাচ্ছে। তিনি আরো বলেন, মিডিয়ার কারণে ব্যবসা ও শিক্ষার প্রসার ঘটছে।
 
বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির নেতা আব্দুস সালাম বলেন, নিউইয়র্কে সাংবাদিকদের এক রকম সমস্যা, আর বাংলাদেশের সাংবাদিকদের আরেক রকম সমস্যা। অনেক কষ্ট করে এই প্রবাসে বিভিন্ন মিডিয়া গড়ে উঠেছে। আমি মনে করি, যত প্রতিবন্ধকতা হোক, সাংবাদিকরা দায়িত্ব পালনে অটল থাকবেন।
যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান বলেন, অনেক সময় কমিউনিটিতে মিডিয়া বিভক্তিতে ইন্ধন যোগায়। এক সময় দুটি পত্রিকা প্রকাশ হতো নিউইয়র্কে। ঐ দুটি পত্রিকার কারণে ফোবানা খন্ডিত হয়েছিল। এর দায়ভার আমারও রয়েছে। 
 
অনুষ্ঠানে আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সদস্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেনসহ-সভাপতি বেলাল আহমেদ (বর্তমান বাংলা), যুগ্ম সম্পাদক মনজুরুল হক মনজু  (প্রথম আলো,) কোষাধ্যক্ষ মশিউর রহমান মজুমদার (বর্ণমালা), নির্বাহী সদস্য আবু বকর সিদ্দিক (আজকাল) ও রফিকুল ইসলাম রফিক (টিবিএন-২৪ টিভি), সদস্যদের মধ্যে শাহাব উদ্দিন সাগর (আজকাল), শামীম আল আমীন (টিবিএন-২৪ টিভি), এ হাই স্বপন (আজকাল), তাওহিদা সুমি (আজকাল), এস. এম. সারোয়ার (প্রবাস), মল্লিকা খান মুনা (অননিউজ২৪.কম), পাপিয়া বেগম (প্রবাস), আলমগীর হোসেন (বাংলাদেশ পত্রিকা), তফাজ্জল লিটন (প্রথম আলো), সীমা সুস্মিতা (দেশকণ্ঠ), তাপস কুমার সাহা (দেশকণ্ঠ)।
 
এ ছাড়া মিডিয়া কর্মীদের মধ্যে নিউইয়র্ক বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শিবলী চৌধুরী কায়েস ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক এবিএম সালাহউদ্দিন, সৈয়দ ইলিয়াস খসরু, কানু দত্ত এবং কমিউনিটি-রাজনৈতিক ও ব্যবসায়ীদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সোসাইটির সাবেক সভাপতি নার্গিস আহমেদ ও তাঁর স্বামী ফার্মাসিষ্ট মোশতাক আহমেদ, রিয়েল স্টেট ইনভেস্টর মো: আনোয়ার হোসেন, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ, ব্যবসায়ী ও জেবিবিএ’র সভাপতি শাহ নেওয়াজ, বাংলাদেশ সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক রুহুল আমীন সিদ্দিকী,বিএনপি নেতা গিয়াস আহমেদ, যুক্তরাষ্ট্র যুবদলের সভাপতি জাকির এইচ চৌধুরী, শাহ. জে চৌধুরী, প্রকৌশলী নির্মল পাল, চিকিৎসক শান্তা পাল, এটর্নী মীর মিজানুর রহমান, দোহার উপজেলা সমিতির সভাপতি দুলাল বেহেদু, কাজী আশরাফ হোসেন নয়ন, মূলধারার রাজনীতিবিদ মোর্শেদ আলম প্রমুখ।
 
ইত্তেফাক/নূহু
 
এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:৩৩
যোহর১১:৫২
আসর৪:১৩
মাগরিব৫:৫৭
এশা৭:১০
সূর্যোদয় - ৫:৪৭সূর্যাস্ত - ০৫:৫২