প্রবাস | The Daily Ittefaq

গ্রীষ্মজুড়ে নিউইয়র্কে নানান আয়োজনে ব্যস্ত প্রবাসীরা

গ্রীষ্মজুড়ে নিউইয়র্কে নানান আয়োজনে ব্যস্ত প্রবাসীরা
বিশেষ প্রতিনিধি, যুক্তরাষ্ট্র২৬ জুলাই, ২০১৮ ইং ১৪:৩৩ মিঃ
গ্রীষ্মজুড়ে নিউইয়র্কে নানান আয়োজনে ব্যস্ত প্রবাসীরা
এবারো গ্রীষ্মকালজুড়ে নানান আয়োজনে ব্যস্ত বাংলাদেশি কমিউনিটি। সাপ্তাহিক ছুটির দিন ছাড়াও প্রায় প্রতিদিনই কোনো না কোনো বিনোদনমূলক অনুষ্ঠানের আয়োজন থাকছে নিউইয়র্কসহ যুক্তরাষ্ট্রের বাংলাদেশি অধ্যুষিত এলাকাগুলোতে। সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত বনভোজন, রিভার ক্রুজ, সঙ্গীত সন্ধ্যা, ক্রীড়া প্রতিযোগিতাসহ নানা আয়োজনে ব্যস্ত থাকছে পুরো কমিউনিটি। এসব অনুষ্ঠানে উঠে আসছে বাংলাদেশের কৃষ্টি, সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য।
 
নিউইয়র্কে প্রথম বারের মত বাংলাদেশের জনপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী ও অভিনেতা তাহসান খানের একক লাইভ কনসার্টের আয়োজন করা হয়েছে। স্থানীয় সময় আগামী ২৯ জুলাই রবিবার নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসের বেলেজিনো হলে কনসার্টটি অনুষ্ঠিত হবে। শো’টাইম মিউজিক-এর আয়োজনে এ অনুষ্ঠানের টাইটেল স্পন্সর আইটি প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠান শিফট এডুকেশন অ্যান্ড টেকনোলজি।
 
তাহসানের লাইভ কনসার্ট ছাড়াও গ্রীষ্মজুড়ে নানান বিনোদনমূলক অনুষ্ঠানের আয়োজন করছে এসএমপি। গত সোমবার নিউইয়র্কে এসএমপির কর্ণধার আলমগীর খান আলম জানান, তাহসানের কনসার্ট ছাড়াও আগামী সেপ্টেম্বর মাসে নিউইয়র্কে প্রথমবারের মতো হতে যাচ্ছে মিস ঢালিউড-২০১৮।
 
সাংবাদিক সম্মেলনে তাহসান বলেন, একক কনসাটের্র মাধ্যমে প্রবাসে প্রিয় বাংলাদেশকে তুলে ধরতে চাই। তিনি বলেন, দেশপ্রেম ছাড়া বাংলাদেশকে এগিয়ে নেয়া যাবে না। আমাদের আরো এগিয়ে যেতে হবে। তাই সকল ক্ষেত্রেই দেশপ্রেম দরকার। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ভারতীয় সেলিব্রেটিরা কে কত অর্থ-সম্পদের মালিক তা নিয়ে মিডিয়ায় রিপোর্ট হয়, আর আমাদের বাংলাদেশী শিল্পীরা অর্থে কষ্টে ভুগছেন এমন রিপোর্ট হয়। এজন্য তিনি ‘কপিরাইট’ আইন কার্যকর না হওয়াকেই দায়ী করেন।
 
তাহসান আরো বলেন, ‘কপিরাইট’ আইন না মানার কারণেই শিল্পীরা আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছেন এবং বাংলাদেশের অনেক নামী-দামী শিল্পী আর্থিক সংকটে ভুগছেন। এটা কাম্য নয়। সেই সঙ্গে আমাদের প্রযোজক ব্যবসায়ীদের মনমানসিকতারও পরিবর্তন দরকার। তিনি বলেন, বাংলাদেশে সামপ্রতিক কালের একটি হিট গানের জন্য শিল্পী সম্মানী পেয়েছেন এককালীন ৫০ হাজার টাকা, আর প্রযোজক আয় করছেন লাখ লাখ টাকা। শিল্পীর গান যত হিট করছে প্রযোজক তত বেশী অর্থ পাচ্ছেন, অথচ শিল্পী এককালীন যা পেয়েছেন, তাই তার সম্বল। এই বৈষম্য দূর করা উচিত্।
 
তাহসান বলেন, আমরা এই প্রজন্মের শিল্পীরা ‘কপিরাইট’ আইন কার্যকরের ব্যাপারে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার পাশাপাশি শিল্পীদের বিপদ-আপদে কনসার্ট আয়োজন করে আর্থিকভাবে সহযোগিতার চেষ্টা করছি। তবে কনসার্ট করে এসব সমস্যার সমাধান হবে না।
 
সংবাদ সম্মেলনে এসএমপির কর্ণধার আলমগীর খান আলম ছাড়াও শিফট টেকনোলজির পরিচালক ইফতেখার ইভান ও শায়লা ইফতেখার উপস্থিত ছিলেন।
 
ইত্তেফাক/এএম

 

এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:৩০
যোহর১১:৫৩
আসর৪:১৭
মাগরিব৬:০২
এশা৭:১৫
সূর্যোদয় - ৫:৪৬সূর্যাস্ত - ০৫:৫৭