প্রবাস | The Daily Ittefaq

রিয়াদে জাতীয় শোক দিবস পালিত

রিয়াদে জাতীয় শোক দিবস পালিত
অনলাইন ডেস্ক১৫ আগষ্ট, ২০১৮ ইং ২১:৩৫ মিঃ
রিয়াদে জাতীয় শোক দিবস পালিত
যথাযথ মর্যাদা ও শোকাবহ পরিবেশে বাংলাদেশ দূতাবাস রিয়াদে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী পালন করেছে। এ উপলক্ষে সকালে দূতাবাস প্রাঙ্গনে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত করে সৌদি আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত গোলাম মসীহ। এ সময় দূতাবাসের সকল কর্মকর্তা ও কর্মচারীগণ উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া চিকিৎসক, প্রকৌশলী, ব্যবসায়ী, শিক্ষক ও কমিউনিটির নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন পেশার অভিবাসী বাংলাদেশীগণ অনুষ্ঠানে যোগ দেন।
 
দূতাবাসে স্থাপিত জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন রাষ্ট্রদূত গোলাম মসীহ। এরপর রিয়াদ প্রবাসী কমিউনিটির বিভিন্ন সংগঠন ও স্থানীয় বাংলাদেশীগণও ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করে। জাতীয় শোক দিবস পালন উপলক্ষে দূতাবাস প্রাঙ্গনে আলোচনা সভা ও দোয়ার আয়োজন করা হয়। আলোচনা পর্বের শুরুতে শোক দিবস উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী এবং পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর প্রদত্ত বাণী পাঠ করা হয়।
 
রাষ্ট্রদূত গোলাম মসীহ বঙ্গবন্ধুর দীর্ঘ সংগ্রামী জীবন, আদর্শ ও বাংলাদেশের স্বাধীনতায় তাঁর অবিস্মরণীয় অবদানের কথা তুলে ধরে বলেন, বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে আমরা একটি স্বাধীন দেশ পেতাম না। বঙ্গবন্ধু ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে দেশের প্রতিটি আন্দোলনে নেতৃত্ব দিয়েছেন, ১৯৭১ সালের ৭ মার্চ তাঁর ঐতিহাসিক ভাষণের মাধ্যমে তিনি মুক্তিযুদ্ধের দিক নির্দেশনা দিয়ে গেছেন। তাঁর স্বাধীনতার আহবানে সাড়া দিয়ে দীর্ঘ নয় মাসের রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে আমরা স্বাধীন বাংলাদেশ পেয়েছি। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট ঘাতকরা জাতির পিতাকে হত্যার মাধ্যমে জাতির ইতিহাসে একটি কলঙ্কজনক অধ্যায় রচনা করেছিল। বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হলেও তাঁর স্বপ্ন, আদর্শ, চেতনা ও মূল্যবোধ ছড়িয়ে পড়েছে প্রজন্ম থেকে প্রজন্মান্তরে।
 
রাষ্ট্রদূত বলেন, জাতির পিতার পলাতক খুনীদের দেশে ফিরিয়ে নিয়ে বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের বিচারের রায়ের পূর্নাঙ্গ বাস্তবায়নের জন্য পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও বিদেশে অবস্থিত বাংলাদেশ দুতাবাস সমুহ কাজ করে যাচ্ছে। রাষ্ট্রদূত গোলাম মসীহ বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বাস্তবায়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে ২০২১ সালের মধ্যে একটি মধ্যম আয়ের দেশে এবং ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ একটি উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত হবে। তিনি নতুন প্রজন্মের কাছে বঙ্গবন্ধুর জীবন ও আদর্শ তুলে ধরার আহবান জানান। রাষ্ট্রদূত প্রবাসী বাংলাদেশীদের দেশের উন্নয়নে এবং যে কোন প্রয়োজনে পাশে দাঁড়ানোর জন্য আহবান জানান। 
 
কাউন্সেলর ড. ফরিদ উদ্দিনের সঞ্চালনায় আলোচনা অনুষ্ঠানে দূতাবাসের উপ-মিশন প্রধান ড. নজরুল ইসলাম বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিল বাংলাদেশকে একটি উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত করা, তাঁর স্বপ্ন বাস্তবায়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রযুক্তিনির্ভর উন্নত ও আধুনিক বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে কাজ করছেন। প্রবাসী বাংলাদেশীরা ও আলোচনা অনুষ্ঠানে বক্তব্য প্রদান করেন। 
 
আলোচনা অনুষ্ঠানের পর জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, তাঁর শহীদ পরিবারবর্গ এবং ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট শাহাদাৎ বরণকারী সকলের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া করা হয়। এ সময় জাতির পিতার জীবন ও কর্মের ওপর নির্মিত প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়। 
 
ইত্তেফাক/নূহু
এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:৩০
যোহর১১:৫৩
আসর৪:১৭
মাগরিব৬:০২
এশা৭:১৫
সূর্যোদয় - ৫:৪৬সূর্যাস্ত - ০৫:৫৭