ঢাকা মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ ২০১৯, ৫ চৈত্র ১৪২৫
২৩ °সে

এথেন্সে শহীদ মিনার স্থাপনের ঘোষণা

এথেন্সে শহীদ মিনার স্থাপনের ঘোষণা
রাষ্ট্রদূত মেয়রকে শহীদ মিনারের একটি প্রতিকৃতি উপহার

গণতন্ত্রের ভিত্তিভূমি এথেন্সে শহীদ মিনার স্থাপিত হবে। এথেন্স শহরের প্রাণকেন্দ্র কুমুদ্রু পার্কে শহীদ মিনার স্থাপনে দূতাবাসের প্রস্তাবকে প্রাথমিক অনুমোদন দিয়েছে গ্রিক সরকার। মঙ্গলবার এথেন্স মিউনিসিপালিটির এক সভায় এই প্রাথমিক অনুমোদন দেয়া হয়। ইউরোপীয় সভ্যতার পাদপীঠ এথেন্সে শহীদ মিনার স্থাপিত হলে এথেন্সবাসী একদিকে আমাদের গৌরব, শোক ও শক্তির প্রতীক অমর একুশের ইতিহাস আরো বেশি করে জানার সুযোগ পাবে, অন্যদিকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের গুরুত্ব ও তাৎপর্য আরো সুবিস্তৃত হবে।

এথেন্সে শহীদ মিনার স্থাপনের জন্য এথেন্সে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাস দীর্ঘদিন যাবত প্রচেষ্টা চালিয়ে আসছে। ২০১৭ সালের ১১ জুলাই রাষ্ট্রদূত মোঃ জসীম উদ্দিনের নেতৃত্বে দূতাবাস টিম এথেন্সের মেয়র জর্জিয়াস কামিনিসের সাথে বৈঠক করেন এবং ঐ বৈঠকে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এথেন্সে একটি শহীদ মিনার স্থাপনের প্রস্তাব করেন। এ বৈঠকে রাষ্ট্রদূত মেয়রকে শহীদ মিনারের একটি প্রতিকৃতি উপহার দিয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের প্রেক্ষাপট ব্যাখ্যা করেন। এরপর দূতাবাস থেকে এথেন্সের কুমুদ্রু পার্কে একটি শহীদ মিনার স্থাপনের আনুষ্ঠানিক প্রস্তাব সংবলিত একটি পত্র প্রেরণ করা হয়। অবশেষে ১৯ ফেব্রুয়ারি সভায় এথেন্স মিউনিসিপালিটি দূতাবাসের প্রস্তাব অনুমোদন করে।

অমর একুশের প্রাক্কালে এথেন্স শহীদ মিনার স্থাপনের সংবাদে গ্রিসে বসবাসকারী সর্বস্তরের প্রবাসীদের মধ্যে আনন্দ ও উচ্ছ্বাস পরিলক্ষিত হয়। প্রবাসী নেতাদের এ উদ্যোগের জন্য দূতাবাসকে ধন্যবাদ জানান এবং আশা প্রকাশ করেন যে এই শহীদ মিনার এথেন্সের বুকে প্রবাসী বাংলাদেশীদের আত্ম-পরিচয়ের নিদর্শন হয়ে উঠবে এবং মর্যাদা বৃদ্ধি করবে।

ইত্তেফাক/আরকেজি

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৯ মার্চ, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন