ঢাকা মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ ২০১৯, ৫ চৈত্র ১৪২৫
২৪ °সে

সিঙ্গাপুরে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত

সিঙ্গাপুরে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত
সিঙ্গাপুরস্থ বাংলাদেশি কমিউনিটি ও বিভিন্ন বাংলাদেশি সংঠনের সদস্যবৃন্দের সামনে বক্তব্য রাখছেন হাই কমিশনার মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান। ছবি: সংবাদ বিজ্ঞপ্তি থেকে

যথাযথ মর্যাদায় 'শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস' পালন করেছে বাংলাদেশ হাই কমিশন, সিঙ্গাপুর। কর্মসূচীর অংশ হিসেবে ২১ ফেব্রুয়ারী সকালে সিঙ্গাপুরস্থ বাংলাদেশি কমিউনিটি ও বিভিন্ন বাংলাদেশি সংঠনের সদস্যবৃন্দের উপস্থিতিতে আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত করেন হাই কমিশনার মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান। এরপর হাই কমিশন প্রাঙ্গণে স্থাপিত অস্থায়ী শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধাঞ্জলি জ্ঞাপন করেন হাই কমিশনার, দূতাবাসের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ এবং সর্বশ্রেণী-পেশার প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

দিনব্যাপী কর্মসূচীর পরবর্তী অংশে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে দিবসটি উপলক্ষে প্রেরিত রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্র মন্ত্রী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বাণী পাঠ করা হয়। শহীদদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন এবং ভাষা আন্দোলন ও মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের রুহের মাগফেরাত কামনা ও দেশের অব্যাহত শান্তি, সমৃদ্ধি কামনা করে মোনাজাত করা হয়। সন্ধ্যায় হাই কমিশন মিলনায়তনে আলোচনা সভার শুরতে পুরাতন ঢাকার অগ্নিকান্ডে নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান তার বক্তৃতায় বলেন, 'আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস সারা বিশ্বে ভাষার বৈচিত্র্য উদযাপনের একটি প্রেক্ষাপট তৈরী করেছে'। এ সময় তিনি মহান ভাষা আন্দোলনে ভাষা শহীদ ছাড়াও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর অবদান তুলে ধরার সঙ্গে ১৯৭৪ সালে জাতিসংঘ সাধারন পরিষদে তার বাংলায় বক্তব্য প্রদানের বিষয়টি উল্লেখ করেন। ভাষা আন্দোলনের ঐতিহাসিক গুরুত্ব তুলে ধরে তিনি আরো বলেন, 'বাংলাদেশের স্বাধীনতা ভাষা আন্দোলনের ধারাবাহিক অর্জনের ফসল'।

আরও পড়ুন: এথেন্সে মহান শহীদ ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত

আলোচনা শেষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে স্থানীয় শিল্পীরা অংশ গ্রহণ করেন এবং তাদের সুন্দর পরিবেশনার মাধ্যমে আগত অতিথি ও দর্শকদের প্রশংসা লাভ করেন। অনুষ্ঠানে সিঙ্গাপুরস্থ বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের প্রতিনিধি, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রী এবং বাংলাদেশ কম্যুনিটির নেতৃবৃন্দ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। শেষে, ঐতিহ্যবাহী বাংলাদেশী খাবারে অতিথিদের আপ্যায়ন করা হয়।

ইত্তেফাক/জেডএইচডি

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৯ মার্চ, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন