ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২১ মার্চ ২০১৯, ৭ চৈত্র ১৪২৫
২৫ °সে

তুরস্কের সামসুন শহরে দু’দিনব্যাপী বাণিজ্যিক এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত

তুরস্কের সামসুন শহরে দু’দিনব্যাপী বাণিজ্যিক এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত
রাষ্ট্রদূত এম. আল্লামা সিদ্দীকীর নেতৃত্বে দূতাবাসের প্রতিনিধিদল

তুরস্কে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এম. আল্লামা সিদ্দীকীর নেতৃত্বে দূতাবাসের একটি প্রতিনিধিদল তুরস্কের কৃষ্ণসাগরীয় শহর সামসুনে ৫-৬ই মার্চ দুই দিনব্যাপী কর্মসূচীতে অংশগ্রহণ করে। গত ৫ মার্চ সকালে সামসুন শহরে অবস্থিত তুরস্কের অন্যতম বৃহৎ ওন্দোকুজ মেইস বিশ্ববিদ্যালয়ে উক্ত প্রতিনিধিদলের উপস্থিতিতে “মিট বাংলাদেশ” শীর্ষক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত বাংলাদেশী ছাত্ররা উক্ত অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ দূতাবাসের প্রথম সচিব ও দূতালয় প্রধান সবুজ আহমেদ বাংলাদেশ এবং বাংলাদেশ-তুরস্ক দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের উপরে পাওয়ার পয়েন্টের মাধ্যমে সামগ্রিক উপস্থাপনা করেন। অনুষ্ঠানে উক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেক্টর অধ্যাপক ড. মেহেমেত কুরান বক্তৃতা করেন। বাংলাদেশের উপর নির্মিত চারটি প্রামাণ্যচিত্র এ অনুষ্ঠানে প্রদর্শিত হয়। উক্ত অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে দেশী-বিদেশী ছাত্র-ছাত্রীদের অংশগ্রহণে বাংলাদেশী সংস্কৃতির প্রতিফলন ঘটিয়ে একটি মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়। সবশেষে বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী রকমারী সুস্বাদু পিঠা উপস্থিতদের মধ্যে পরিবেশন করা হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে চার শতাধিক শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন।

ঐ দিনের দ্বিতীয়ভাগে রাষ্ট্রদূত এম. আল্লামা সিদ্দীকী সামসুন প্রদেশের গর্ভনর ওসমান কায়মাক এর সাথে সৌজন্য সাক্ষাতে মিলিত হোন। রাষ্ট্রদূত গর্ভনরকে বাংলাদেশের ইতিহাস, ঐতিহ্য, সংস্কৃতি, অর্থনীতি এবং বাংলাদেশ- তুরস্কের মধ্যে বিদ্যমান ভ্রাতৃত্বপূর্ণ সম্পর্কের বিষয়ে অবহিত করেন। প্রায় দেড় ঘন্টাব্যাপী চলা এই আলোচনায় দু’দেশের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক জোরদার করাসহ সামসুন প্রদেশের সাথে বাংলাদেশের যোগাযোগ সুনিবিড় করার উপায় নিয়েও আলোচনা হয়। আলোচনা শেষে রাষ্ট্রদূত সামসুনের গর্ভনরকে বাংলাদেশ দূতাবাস কর্তৃক তুর্কী ভাষায় অনূদিত জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অসমাপ্ত আত্মজীবনী উপহার দেন।

পরদিন ৬ মার্চ ২০১৯ তারিখে সামসুন বাণিজ্য ও শিল্প চেম্বারে সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে চেম্বারের ২১টি সদস্য প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিগণ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানের শুরুতে বাংলাদেশের সাম্প্রতিক আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের উপর নির্মিত প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শিত হয়। এছাড়া অনুষ্ঠানে সূচনা বক্তব্য প্রদান করেন উক্ত চেম্বারের সভাপতি সালিহ্ জেকি মুরজিওলু। তিনি তাঁর বক্তব্যে বাংলাদেশের সাথে তুরস্কের অর্থনৈতিক সম্পর্ক জোরদার করার উপর গুরুত্বারোপ করেন।

উক্ত সেমিনারে রাষ্ট্রদূত তাঁর বক্তব্যের প্রথম অংশে বাংলাদেশের ইতিহাস ঐতিহ্য, সংস্কৃতি প্রভৃতি বিষয়ের উপর আলোকপাত করেন। তিনি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বলিষ্ঠ ও দূরদর্শী নেতৃত্বে স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যূদয়ের বিষয়টি তুলে ধরেন। তিনি জাতির জনকের সুযোগ্যা কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের এগিয়ে যাওয়ার বিষয়ে বিস্তারিত উল্লেখ করেন।

তিনি বাংলাদেশে বাণিজ্য এবং বিনিয়োগ সম্ভাবনার বিষয়ে আলোকপাত করে তুর্কী ব্যবসায়ী এবং বিনিয়োগকারীদের বাংলাদেশে সুযোগের অনুসন্ধানের জন্য আহ্বান জানান। তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন যে, আগামী দিনগুলোতে দু’দেশের মধ্যে বাণিজ্য এবং বিনিয়োগ সম্পর্ক জোরদার হবে। উপস্থিত ব্যবসায়ীগণ গভীর মনোযোগের সাথে রাষ্ট্রদূতের উপস্থাপনা শোনেন এবং বাংলাদেশে বাণিজ্য ও বিনিয়োগের সম্ভাবনা অনুসন্ধানে তাঁদের আগ্রহের বিষয়টি ব্যক্ত করেন।

ইত্তেফাক/আরকেজি

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২১ মার্চ, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন