ঢাকা মঙ্গলবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫
২৮ °সে

মিলানে বিজয়ফুল কর্মসূচী অনুষ্ঠিত

মিলানে বিজয়ফুল কর্মসূচী অনুষ্ঠিত
মিলানে অনুষ্ঠিত হলো বিজয়ফুল কর্মসূচী। ছবি: ফেসবুক

‘‘এসো সৃষ্টি সুখের উল্লাসে বাঁধি বিজয়ফুল, বিজয়ফুল পরুন, বিজয়ের গৌরবে সমুন্নত থাকুন’’ এই স্লোগানের মধ্যদিয়ে ইতালির মিলানে অনুষ্ঠিত হলো বিজয়ফুল কর্মসূচী।

৩ ডিসেম্বর বিকেলে বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল মিলানের হলরুমে বিজয়ফুল উদযাপন কমিটি মিলান, শিকড় এবং মিলান বাংলা প্রেস ক্লাব ইতালীর যৌথ আয়োজনে এবং বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেলের সহযোগিতায় এ অনুষ্ঠান করা হয়।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন জুবায়ের আহমেদ, এরপর জাতীয় সঙ্গীত এবং মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের বিদেহী আত্মার মাগফেরত কামনায় সুরা ফাতেহা পাঠ করা হয়। এই উপলক্ষে প্রকাশিত বিশেষ ক্রোড়পত্রের মোড়ক উন্মোচন করেন এবং লাল সবুজের বিজয়ফুল পরিয়ে অনুষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি মিলানোস্থ কনসাল জেনারেল ইকবাল আহমেদ।

অনুষ্ঠানের প্রতিপাদ্য বিষয় তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন বিজয়ফুল কমিটির সমন্বয়কারী মিলান বাঙলা প্রেস ক্লাব ইতালীর সভাপতি কাওছার হাওলাদার। এ উপলক্ষে লিখিতি প্রবন্ধ পাঠ করেন বিজয়ফুল সমন্বয়কারী শিকড়ের সাধারণ সম্পাদক তুহিন মাহমুদ। এতে মুক্তিযুদ্ধের গল্প বলেন মুক্তিযোদ্ধা জাকির হোসেন। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব আকরাম হোসেন।

বিশেষ অতিথি হিসেবে আরো উপস্থিত ছিলেন কনসাল এ কে মোঃ শামসুল আহসান,শ্রম কনসাল রফিকুল করিম, মিলান লম্বারদিয়া আওয়ামী লীগ সহ সভাপতি দেলোয়ার হোসেন মোল্লা,জিনু মিয়া মেম্বর,ফরিদপুর কল্যান সমিতির আহবায়ক হাজী শাহালম,সেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি তোফায়েল আহমেদ খান তপু,এবং ইউনুস মোড়ল। সবাইকে লাল সবুজের বিজয়ফুল পরিয়ে দেন মিলান বাংলা প্রেস ক্লাব এবং শিকড়ের সদস্যরা।

উল্লেখ্য বিজয়ফুল আমাদের স্বাধীনতা যুদ্ধ বিজয়ের প্রতীক নব্বই দশকে কবি শামীম আজাদ বিলেতে পপিফুল কেন্দ্রীক মহাযুদ্ধ স্মারকে অনুপ্রাণিত হয়ে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের প্রতীক নিয়ে লিখা লিখি শুরু করেন।এরই ধারা বাহিকতায় বিজয়ফুলের সৃষ্টি। বিশেষতঃবহির্বিশ্বে বসবাসরত বাংলাদেশীদের কাছে বিজয়ফুল হয়ে উঠেছে মুক্তিযুদ্ধের একটি অনন্য স্মারক। প্রতিবারের ন্যায় শিশু-কিশোরদের মুক্তিযুদ্ধের গল্প জানাতেই এবারো ইতালির মিলানোতে পালিতো হলো বিজয় ফুল অনুষ্ঠান। বিজয়ফুল কর্মসূচীর মাধ্যমে প্রবাসী নতুন প্রজন্মের মাঝে মুক্তি যুদ্ধের সঠিক ইতিহাস ছড়িয়ে যাবে এমন টি প্রত্যাশা আয়োজকদের।

ইত্তেফাক/এএম

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১১ ডিসেম্বর, ২০১৮
আর্কাইভ
 
বেটা
ভার্সন