রাজধানী | The Daily Ittefaq

প্রেসক্লাবের সামনে পুলিশের অনুরোধে তিন ঘণ্টা আগেই অনশন শেষ

প্রেসক্লাবের সামনে পুলিশের অনুরোধে তিন ঘণ্টা আগেই অনশন শেষ
ইত্তেফাক রিপোর্ট১৫ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮ ইং ০১:৩২ মিঃ
প্রেসক্লাবের সামনে পুলিশের অনুরোধে তিন ঘণ্টা আগেই অনশন শেষ

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অনশন কর্মসূচি পুলিশের অনুরোধে নির্ধারিত সময়ের ৩ ঘণ্টা আগেই শেষ করেছে বিএনপি। গতকাল সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪টা অবধি এই কর্মসূচি পালন করার কথা ছিল। কিন্তু পুলিশ দুপুর একটার মধ্যেই তা শেষ করার অনুরোধ করলে অনেকটা তড়িঘড়ি করেই অনশন শেষ করা হয়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি অধ্যাপক ড. এমাজউদ্দীন আহমদ বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতাদের পানি পান করিয়ে অনশন ভাঙান। বিএনপি ছাড়াও ২০ দলীয় জোটের নেতারা এই প্রতীকী অনশনে অংশ নেন। প্রেসক্লাবের সামনে সড়কের একপাশে হাইকোর্ট মোড় থেকে সচিবালয় পর্যন্ত ছিল নেতাকর্মীদের অবস্থান। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা এই অনশন কর্মসূচি ঘিরে কঠোর নিরাপত্তা বলয় গড়ে তোলে। দুপুর পৌনে ১টার দিকে পুলিশের একটি প্রতিনিধি দল বিএনপির নেতাদের জানান, ডিএমপি কমিশনারের নির্দেশ ১টার মধ্যেই কর্মসূচি সমাপ্ত করতে হবে। এরপর কর্মসূচি সংক্ষিপ্ত করে বিএনপি নেতাকর্মীরা। এ ব্যাপারে রমনা জোনের ডিসি মারুফ হোসেন সরদার বলেন, জনদুর্ভোগের কথা চিন্তা করে তাদের সেখান থেকে সরে যেতে অনুরোধ করা হয়েছে।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, বেগম জিয়ার মুক্তির দাবিতে আমাদের অনশন বিকেল চারটা পর্যন্ত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের অনুরোধে আমাদের দুপুর ১টার মধ্যেই কর্মসূচি শেষ করতে হচ্ছে। আমি আজকের এই অনশন কর্মসূচি থেকে সরকারের কাছে আহ্বান রাখবো আমাদের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে অবিলম্বে মুক্তি দিন। প্রশাসনকে উদ্দেশ্য করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, আমরা আমাদের শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি শেষ করছি। দয়া করে আপনারা পরিবেশ খারাপ করবেন না। এর আগে অনশন কর্মসূচিতে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন অভিযোগ করে বলেন, আমাদের পূর্ব নির্ধারিত অনশন কর্মসূচি সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত হওয়ার কথা ছিল। প্রশাসনের চাপের কারণে আমরা শেষ করতে বাধ্য হচ্ছি।

আরেক স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেন, এই সরকার একটি ভুয়া বানোয়াট মিথ্যা মামলায় খালেদা জিয়াকে সাজা দিয়েছে। সম্পূর্ণ রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে এবং বিএনপিকে দুর্বল করতেই এটা করা হয়েছে। কিন্তু খালেদা জিয়া ও বিএনপিকে দুর্বল করা যাবে না। খালেদা জিয়াকে ছাড়া দেশে কোনো নির্বাচন হবে না।

মির্জা আব্বাস বলেন, চব্বিশ ঘণ্টার মধ্যে খালেদা জিয়ার মামলার রায়ের কপি পাওয়ার কথা থাকলেও তা দেয়নি। আসলে তাদের দীর্ঘসূত্রতায় প্রমাণিত হয় খালেদা জিয়াকে জেলে আটকে রাখাই তাদের উদ্দেশ্য। আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বিচারকদের ক্যালকুলেটর দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, ২ কোটি টাকার জন্য যদি পাঁচ বছর জেল হয় তাহলে হলমার্কসহ বিভিন্ন দুর্নীতির মাধ্যমে বিদেশে অর্থ পাচারের জন্য কত বছরের জেল হবে? সেটা মাথায় হিসাব করা যাবে না।

এদিকে খালেদা জিয়ার রায়ের দিন থেকে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অবস্থান করছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। গতকাল বুধবার সকাল থেকে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অনশনে যাননি তিনি। অফিসে বসে অনশন করেন। বিকাল চারটার দিকে দলের ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন এসে রুহুল কবির রিজভীকে শরবত পান করিয়ে অনশন ভঙ্গ করান।

বিএনপির অনশনের কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করতে আসার পথে ছাত্রদলের ৫ নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। দুপুরে রাজধানীর শিল্পকলা একাডেমির সামনে থেকে তাদের আটক করা হয়।

ইত্তেফাক/নূহু

এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
২৪ মে, ২০১৮ ইং
ফজর৩:৪৭
যোহর১১:৫৬
আসর৪:৩৫
মাগরিব৬:৪১
এশা৮:০৩
সূর্যোদয় - ৫:১২সূর্যাস্ত - ০৬:৩৬