রাজধানী | The Daily Ittefaq

বিশিষ্ট ব্যক্তিদের অনুরোধে আন্দোলন স্থগিত করলেন শিক্ষকরা

বিশিষ্ট ব্যক্তিদের অনুরোধে আন্দোলন স্থগিত করলেন শিক্ষকরা
ইত্তেফাক রিপোর্ট১১ জুলাই, ২০১৮ ইং ২১:১০ মিঃ
বিশিষ্ট ব্যক্তিদের অনুরোধে আন্দোলন স্থগিত করলেন শিক্ষকরা
জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে টানা এক মাস অনশন কর্মসূচি পালনের পর অবশেষে অনশন ভাঙলেন নন-এমপিওভুক্ত শিক্ষকরা। সরকারের আশ্বাসের প্রেক্ষিতে ও বিশিষ্ট ব্যক্তিদের অনুরোধে শিক্ষকরা অনশন স্থগিতের ঘোষণা দেন।
 
বুধবার বিকালে জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা রাশেদা কে চৌধুরী, মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ট্রাস্টি জিয়াউদ্দিন তারিক আলী ও ড. সারওয়ার আলী পানি পান করিয়ে শিক্ষকদের অনশন ভাঙান।
 
এ সময় জাতীয় অধ্যাপক ড. আনিসুজ্জামান বলেন, আমি আপনাদের একজন সহকর্মী হিসেবে এখানে উপস্থিত হয়েছি। আপনাদের কাছে আমার বিনীত অনুরোধ, আপনারা অনশন-ধর্মঘট আর প্রলম্বিত না করে অনশন ভঙ্গ করবেন। ছাত্রছাত্রীদের ভবিষ্যতের কথা ভাবুন, তাদের লেখাপড়ার যে ক্ষতি হয়েছে, তা ভাবুন।
 
এমপিওভুক্তির দাবিতে গত এক মাস ধরে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন নন-এমপিও শিক্ষক-কর্মচারীরা। অনশন ভাঙার আগ পর্যন্ত আন্দোলনের ১৭তম দিনে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে খোলা আকাশের নিচে বসে অমরণ অনশন পালন করেন তারা।
 
ড. আনিসুজ্জামান বলেন, আপনারা দীর্ঘদিন ধরে খোলা আকাশের নিচে না খেয়ে আন্দোলন করে যাচ্ছেন। এটি জাতির জন্য কষ্টদায়ক বিষয়। আপনাদের এ কষ্টে সমগ্র জাতি আজ উদ্বিগ্ন।
 
তিনি বলেন, আপনাদের দাবির যৌক্তিকতা আছে। প্রধানমন্ত্রী সংসদে আপনাদের বিষয়টি নিয়ে বক্তব্য দিয়েছেন। আমরা আশা করছি বিষয়টি দ্রুত সমাধান হবে। আপনাদের আন্দোলনের কারণে জাতির যাতে কোনো ক্ষতি না হয় সে বিষয়টিও বিবেচনায় রাখতে হবে।
 
রাশেদা কে চৌধুরী শিক্ষকদের উদ্দেশে বলেন, আপনাদের যৌক্তিক দাবি ধাপে ধাপে বাস্তবায়ন হবে। আপনারা শিক্ষার্থীদের কথা ও সাধারণ মানুষের কথা চিন্তা করে অনশন ভেঙে পাঠদানে মনোযোগ দিন।
 
নন-এমপিও শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক বিনয় ভূষণ রায় বলেন, সরকারের ওপর আস্থা রেখে আমরা অনশন ভেঙে ক্লাসে ফিরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে আমাদের বৈঠক হয়েছে। তিনি আমাদের দাবি আদায়ের বিষয়ে আশ্বস্ত করেছেন।
 
সংগঠনের সভাপতি অধ্যক্ষ গোলাম মাহমুদুন্নবী ডলার অনশন ভাঙাতে আসা নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান। তিনি আরও বলেন, আপনি আমাদের শিক্ষকদের শিক্ষক। আপনারা এসেছেন। প্রধানমন্ত্রী যে আশ্বাস দিয়েছেন, আমরা আশা করি তিনি তা বাস্তবায়ন করবেন।
 
এর আগে সকালে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের সঙ্গে সচিবালয়ে তাঁর অফিসকক্ষে নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের ৫ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল সাক্ষাৎ করেন। শিক্ষক প্রতিনিধিদলে উপস্থিত ছিলেন নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশনের সভাপতি অধ্যক্ষ গোলাম মাহমুুদুন্নবী, সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ ড. বিনয় ভূষণ রায়, সদস্য শফিকুল ইসলাম, আনোয়ার হোসেন  এবং জহুরুল ইসলাম। 
 
এসময় শিক্ষামন্ত্রী বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করতে সরকারের বিভিন্ন প্রচেষ্টা ও উদ্যোগ তুলে ধরেন। শিক্ষামন্ত্রী বলেন, সর্বোচ্চ এমপিওভুিক্তর চেষ্টা করা হবে। এজন্য মন্ত্রণালয়ে দু’টি কমিটি কাজ করছে। যে সকল শিক্ষক এমপিওভুক্ত হবেন, তারা জুলাই মাস থেকেই বেতন প্রাপ্য হবেন।
 
তিনি বলেন, শিক্ষা মন্ত্রণালয় শুরু থেকেই শিক্ষকদের কল্যাণে কাজ করছে। এবারও এমপিওভুক্তির সকল কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। তিনি শিক্ষক নেতৃবৃন্দকে বলেন, আপনারা আর কষ্ট করবেন না। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. সোহরাব হোসাইন এ সময় উপস্থিত ছিলেন।
 
ইত্তেফাক/এমআই
 
এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:৩৩
যোহর১১:৫২
আসর৪:১৩
মাগরিব৫:৫৭
এশা৭:১০
সূর্যোদয় - ৫:৪৭সূর্যাস্ত - ০৫:৫২