রাজধানী | The Daily Ittefaq

ঢাকা বাঁচাতে সমন্বিত পরিকল্পনায় দরকার ওয়ার্কিং কমিটি

ঢাকা বাঁচাতে সমন্বিত পরিকল্পনায় দরকার ওয়ার্কিং কমিটি
ইত্তেফাক রিপোর্ট১৮ আগষ্ট, ২০১৮ ইং ১৯:৫৬ মিঃ
ঢাকা বাঁচাতে সমন্বিত পরিকল্পনায় দরকার ওয়ার্কিং কমিটি
ইকোনমিস্ট ইনটেলিজেন্স ইউনিট, লন্ডনের গবেষণায় ঢাকাকে বিশ্বের বসবাসের অযোগ্য দ্বিতীয় শহর হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। এই ঢাকাকে বাঁচাতে সমন্বিত পরিকল্পনার জন্য দরকার ওয়ার্কিং কমিটি। এজন্য স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের নেতৃত্বে দুই সিটি করপোরেশনের মেয়র, ঢাকার সংশ্লিষ্ট ৫৪টি মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি এবং নগর পরিকল্পনাবিদ, পরিবেশ বিশেষজ্ঞ, জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ, জন অধিকার বিশেষজ্ঞের সমন্বয়ে একটি শক্তিশালী ওয়ার্কিং কমিটি গঠন করা দরকার। নইলে ঢাকা শহরকে বাঁচানো সম্ভব হবে না বলে মন্তব্য করেছেন পরিবেশবিদরা।  
 
শুক্রবার সকালে কলাবাগান পবা কার্যালয়ে ‘অবসবাসযোগ্য নগরীর তালিকায় অন্যতম ঢাকা : উত্তরণের উপায়’ শীর্ষক সাংবাদিক সম্মেলনে বক্তারা এ অভিমত ব্যক্ত করেন। পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলন (পবা) এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে। 
 
মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন পবা’র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. লেলিন চৌধুরী। তিনি বলেন, ঢাকা গত ৭ বছর যাবত বসবাসেরর অযোগ্য শহরগুলোর মধ্যে দ্বিতীয় থেকে চতুর্থ নম্বরে উঠা-নামা করছে। আমরা ঢাকার বর্তমান অবস্থার দিকে তাকালে লক্ষ্য করি ঢাকায় জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার ৬৩ ভাগ। এ শহরে প্রতি বর্গ কিলোমিটারে প্রায় ২ লাখ লোক বাসবস করে। শহরে বসবাসকারী জনসংখ্যার ৪০ ভাগ হচ্ছে ঢাকায়। দেশের জিডিপির ৩৫ শতাংশ ঢাকা থেকে আসে এবং দেশের সামগ্রিক কর্ম সামর্থ্যের ৩০ ভাগ ঢাকাতে বসবাস করে। ঢাকার বস্তিগুলোর জনঘনত্ব বাংলাদেশের একটি সাধারণ গ্রামের তুলনায় ৩০ ভাগ বেশি। এই প্রেক্ষাপটে ঢাকার অবস্থাকে বিশ্লেষণ করতে হবে। 
 
অপরিকল্পিত নগরায়নের ফলে ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা, সড়ক ব্যবস্থাপনা ও গৃহ নির্মাণ ব্যবস্থাপনাসহ সর্বক্ষেত্রে অব্যবস্থাপনা বিরাজ করছে। খেলার মাঠ, পার্ক, জলাধারসহ পরিবেশ ব্যাপকভাবে বিপর্যস্ত। এমতাবস্থায় আমরা মনে করি ঢাকা মহানগরী শুধু বসবাসের একটি অযোগ্য নগরই নয় এটি এখন ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে। 
ঢাকাকে বসবাসযোগ্য করতে পবা’র পক্ষ থেকে সুপারিশ হচ্ছে- স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের নেতৃত্বে দুই সিটি করপোরেশন, রাজউক, ওয়াসা, ঢাকা মেট্রো পলিটান পুলিশসহ ঢাকা নগর সংশ্লিষ্ট ৫৪টি মন্ত্রণালয়ের সমন্বয়ে শক্তিশালী একটি ওয়ার্কিং কমিটি গঠন করে আগামী ৬ মাসের মধ্যে বসবাসযোগ্য ঢাকার একটি মহাপরিকল্পনা প্রণয়ন এবং বাস্তবায়নের কাজ শুরু করতে হবে। 
 
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, পবা’র চেয়ারম্যান আবু নাসের খান, সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী মো. আবদুস সোবহান, নাসফ-এর সাধারণ সম্পাদক মো. তৈয়ব আলী, সহ-সম্পাদক ব্যারিস্টার নিশাত মাহমুদ, গ্রিন ফোর্সের সমন্বয়ক মেসবাহ সুমন, নবযাত্রা ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক মো. আজমল হোসেন প্রমুখ।
 
এই ওয়ার্কিং কমিটিতে শহরে বসবাসের উপযোগিতার সঙ্গে যুক্ত বিশেষজ্ঞগণ যেমন নগর-পরিকল্পনাবিদ, জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ, পরিবেশবাদীসহ এ সম্পর্কিত বিষয়ে বিশেষজ্ঞগণ যুক্ত থাকবেন।  
 
এই পরিকল্পনা বাস্তবায়নে কেন্দ্রীয় সরকার, স্থানীয় সরকার এবং জনগণ যুক্ত থাকবে। এই বিষয়টি বাস্তবায়নের জন্য রাজনৈতিক মনোভাব অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আমরা প্রত্যাশা করবো প্রতিটি রাজনৈতিক দল ঢাকা মহানগরীর উন্নয়ন পরিকল্পনা জনসম্মুখে প্রকাশ করবে। 
 
ইত্তেফাক/এমআই
 
এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:৩০
যোহর১১:৫৩
আসর৪:১৭
মাগরিব৬:০২
এশা৭:১৫
সূর্যোদয় - ৫:৪৬সূর্যাস্ত - ০৫:৫৭