রাজধানী | The Daily Ittefaq

গণমাধ্যমের স্বাধীনতা ও দেশের স্বার্থ রক্ষায় চাই সমন্বিত আইন

গণমাধ্যমের স্বাধীনতা ও দেশের স্বার্থ রক্ষায় চাই সমন্বিত আইন
ইত্তেফাক রিপোর্ট১৯ আগষ্ট, ২০১৮ ইং ০২:০৪ মিঃ
গণমাধ্যমের স্বাধীনতা ও দেশের স্বার্থ রক্ষায় চাই সমন্বিত আইন

গণমাধ্যমের স্বাধীনতা ও দেশের স্বার্থ রক্ষায় একটি সমন্বিত আইন করা প্রয়োজন বলে মত প্রকাশ করেছেন বিজ্ঞজন। তারা বলেন, বাকস্বাধীনতা যেমন প্রয়োজন তেমন গুজবকে রোধ করাও প্রয়োজন। ‘প্রসেসড ডিজিটাল অ্যাকট : ফরদার থটস’ শীর্ষক গোলটেবিল আলোচনায় এসব কথা বলেন তারা।

গতকাল শনিবার পেন ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ- জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে গোলটেবিল আলোচনার আয়োজন করে। সংস্থার প্রেসিডেন্ট কথাসাহিত্যিক মাসুদ আহমেদের সভাপতিত্বে বৈঠকে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন লিগ্যাল ইকোনমিস্ট মোঃ শাহজাহান সিদ্দিকী। প্যানেলিস্ট হিসেবে আলোচনা করেন- দ্য ডেইলি স্টার সম্পাদক মাহফুজ আনাম, দৈনিক ইত্তেফাক সম্পাদক তাসমিমা হোসেন, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি মনজুরুল আহসান বুলবুল, জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি মোঃ শফিকুর রহমান, ব্রতী’র প্রধান নির্বাহী শারমিন মুরশিদ, পেন ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ-এর নির্বাহী প্রেসিডেন্ট কবি কাজী রোজী এমপি, পেন ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ-এর প্রধান উপদেষ্টা কবি মুহম্মদ নূরুল হুদা প্রমুখ।

মাহফুজ আনাম বলেন, মত প্রকাশের স্বাধীনতার মাধ্যমে সমাজ উন্নতি লাভ করে। আমরাও মত প্রকাশের স্বাধীনতা রক্ষা করে এগিয়ে যাব। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মত প্রকাশের ক্ষেত্রে আমাদের দায়িত্বশীল হতে হবে। একটি দেশের তথ্যের নির্ভরযোগ্যতার মান নিয়ে প্রশ্ন থাকার কারণেই গুজব ছড়ায়। ডিজিটাল অ্যাক্টের দ্বারা আমলাতান্ত্রিক প্রক্রিয়ার মাধ্যমে মত প্রকাশের ব্যবস্থা হচ্ছে। কোনো পরোয়ানা ব্যতীত তল্লাশি, জব্দ, গ্রেফতার— এই একটি ধারা সমগ্র মত প্রকাশের স্বাধীনতাকে নষ্ট করে। লাগামহীনতাও বন্ধ করা দরকার। এজন্য সূক্ষ্ম ভারসাম্য আনা দরকার।

মনজুরুল আহসান বুলবুল বলেন, সাংবাদিকদের স্বাধীনতা রক্ষার জন্য যতটুকু চেষ্টা করতে পারছি, সুশীল সমাজ ও সাধারণ জনগণের জন্য আমরা ততটুকু করতে পারছি না। এজন্য সকল পর্যায় থেকে চেষ্টা করা দরকার। প্রিন্ট মিডিয়ার জন্য আইন আছে, সম্প্রচার আইন আছে আবার ডিজিটাল আইন হলে সবগুলোর সঙ্গে দ্বন্দ্ব না হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে।

মুহম্মদ নূরুল হুদা বলেন, সৃজনশীল লেখকরা প্রশ্নের সম্মুখীন হতে পারেন। কল্পনার সঙ্গে বাস্তবতার দ্বন্দ্ব থাকে। এজন্য লেখকদের রক্ষা করতে হবে।

শারমিন মুরশিদ বলেন, মত প্রকাশের স্বাধীনতা রক্ষায় সরকারের দায়বদ্ধতা আছে। সমাজের সমৃদ্ধির জন্য মেধা, ভাবনা-চিন্তার বিকাশ দরকার। প্রেস ক্লাউন্সিলের মতো জনগণের জন্যেও কাউন্সিল দরকার।

মুহম্মদ শফিকুর রহমান বলেন, এ ধরনের আলোচনা বেশি বেশি প্রয়োজন। আইন স্বাধীনতা খর্ব করলে সমাজ এগুতে পারে না। তবে মত প্রকাশ সুষ্ঠুভাবে করার জন্য আইন দরকার। সবকিছু পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে আইন চূড়ান্ত করা দরকার। কবি কাজী রোজী বলেন, আইন আইনের মতো চলছে, চলবে। আইন হোক জনগণের জন্য।

তাসমিমা হোসেন বলেন, গণতন্ত্রের জন্য বাকস্বাধীনতা গুরুত্বপূর্ণ। বর্তমান বিশ্বে জঙ্গি তত্পরতাও আছে। আমাদের নিজেদের বুঝতে হবে আমরা কতটুকু স্বাধীনতা প্রয়োগ করবো।

মাসুদ আহমেদ বলেন, আজকের এই গোলটেবিল আলোচনার বিবেচ্য বিষয়গুলো স্পিকারের মাধ্যমে সংসদীয় স্ট্যান্ডিং কমিটির কাছে পেন ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ পৌঁছানোর উদ্যোগ গ্রহণ করবে।

বৈঠকের শুরুতে পেন ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ-এর সেক্রেটারি জেনারেল ড. সৈয়দা আইরিন জামান স্বাগত বক্তব্যে গোলটেবিল আলোচনার বিষয়বস্তুর জাতীয় গুরুত্ব উপস্থাপন করেন।

ইত্তেফাক/নূহু

এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:৩২
যোহর১১:৫২
আসর৪:১৪
মাগরিব৫:৫৮
এশা৭:১১
সূর্যোদয় - ৫:৪৭সূর্যাস্ত - ০৫:৫৩