ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ৯ ফাল্গুন ১৪২৫
২৫ °সে

যৌতুকের দাবিতে গৃহবধূকে হত্যা: চার ভাইয়ের মৃত্যুদণ্ড

যৌতুকের দাবিতে গৃহবধূকে হত্যা: চার ভাইয়ের মৃত্যুদণ্ড
ছবি প্রতীকী, সংগৃহীত

সিরাজগঞ্জ শহরে যৌতুকের দাবিতে এক গৃহবধূকে হত্যার দায়ে স্বামী ও তার তিন ভাইকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক ফজলে খোদা মো. নাজির এ রায় দেন। দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- স্বামী সুবির কুমার রায়, ডা. সুশীল কুমার রায়, সুনীল কুমার রায়, মনোরঞ্জন কুমরা রায়।

জানা যায়, ১৯৯৯ সালে সিরাজগঞ্জ শহরের সুবির কুমার রায়ের সঙ্গে টাঙ্গাইলের সুমি রানীর বিয়ে হয়। বিয়ের সময় দাবীকৃত ৫ লাখ টাকা যৌতুকের মধ্যে আড়াই লাখ টাকা দেয় মেয়ে পক্ষ। বাকি টাকার জন্য সুমিকে নির্যাতন করতে থাকেন সুবির কুমার রায় ও তার পরিবার।

২০০১ সালের ১২ জানুয়ারি যৌতুকের বাকি টাকার জন্য সুমিকে চাপ দিলে তিনি তার বাবার বাড়ি থেকে টাকা আনতে অস্বীকার করেন। এরপর গৃহবধূর স্বামী সুবির কুমার রায়, ডা. সুশীল কুমার রায়, সুনীল কুমার রায়, মনোরঞ্জন কুমরা রায় সুমিকে গলা টিপে ও মারপিট করে হত্যা করেন।

এ ব্যাপারে মনোরঞ্জন রায় সুমি রানী আত্মহত্যা করেছেন বলে সিরাজগঞ্জ সদর থানায় মিথ্যা জিডি করেন। ময়নাতদন্তে সুমিকে হত্যা করা হয়েছে বলে রিপোর্ট আসায় থানার এসআই মনিরুল ইসলাম ২০০১ সালের ১৫ জানুয়ারি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

আরো পড়ুন: হাতে চিপস দিয়ে অপহরণ, ২০ ঘণ্টা পর মিলল লাশ

মামলা দায়েরের পর সুবির, সুশীল, ডা. সুনিল, মনোরঞ্জন আত্মগোপনে যান। বাদী পক্ষের ১২ জন সাক্ষ্য প্রমাণ শেষে বিচারক এ রায় দেন।

রাষ্ট্র পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন নারী ও শিশু নির্যাতন আদালতের বিশেষ পিপি শেখ আব্দুল হামিদ লাভলু, বিশেষ এপিপি আনোয়ার পারভেজ লিমন। আসামি পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন রাষ্ট্র নিযুক্ত স্টেট ডিফেন্স অ্যাড. এসএম জাহাঙ্গীর আলম।

ইত্তেফাক/জেডএইচ

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন