সংস্কৃতি | The Daily Ittefaq

ক্যানভাসে তরুণ শিল্পীদের সাহসী আঁচড়

ক্যানভাসে তরুণ শিল্পীদের সাহসী আঁচড়
চারুকলায় শিল্পকর্ম প্রদর্শনী
ইত্তেফাক রিপোর্ট০৮ আগষ্ট, ২০১৭ ইং ০২:১৩ মিঃ
ক্যানভাসে তরুণ শিল্পীদের সাহসী আঁচড়

যুদ্ধবাজদের কাছে মানুষের কোনো মূল্য নেই। ব্যবসাই মূল। মানুষের চাওয়া পাওয়া সবকিছু চাপা পড়ে অস্ত্রের কাছে। অস্ত্র তাক করা হয় মানুষের দিকে। অস্ত্রের আয়নায় মুখ থুবড়ে পড়ে মানুষের জীবন। সেখানে জীবন নয় মৃত্যুই বড় মূল্যবান। শেখ ফাইজুর রহমানের স্থাপনা প্রদর্শনী ‘ইমপ্যাক্ট’ এ বিশ্বজুড়ে অস্ত্রের যে প্রভাব তার ভয়াবহতা ও মানুষের অসহায়ত্ব ফুটে উঠেছে। এই স্থাপনা প্রদর্শনী জিতে নিয়েছে এ বছর চারুকলা অনুষদের অঙ্কন ও চিত্রায়ণ বিভাগের বার্ষিক চিত্র প্রদর্শনীর নিরীক্ষাধর্মী শ্রেষ্ঠ পুরস্কার।

তরুণ শিল্পীদের সাহসী শিল্প উচ্চারণ ফুটে উঠেছে চারুকলার জয়নুল গ্যালারিতে শুরু হওয়া শিক্ষার্থীদের বার্ষিক চিত্রকর্ম প্রদর্শনীতে। ক্যানভাসে শিল্পীদের নতুন ভাবনা ও প্রকাশভঙ্গি হূদয়কে আন্দোলিত করে। তরুণ শিক্ষার্থীদের এই রকম সাহসী শিল্পকর্ম নিয়ে গতকাল সোমবার শুরু হয়েছে চারুকলা অনুষদের অঙ্কন ও চিত্রায়ণ বিভাগের বার্ষিক প্রদর্শনী। ড্রইং, তেলরং, জলরংসহ নানা মাধ্যমে চারু শিক্ষার্থীদের সৃজিত শিল্পকর্ম শোভা পাচ্ছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলার ১ ও ২ নম্বর জয়নুল গ্যালারিতে। প্রদর্শনীতে ৬০ জন শিক্ষার্থীর ৭২টি চিত্রকর্ম স্থান পেয়েছে। সেই সঙ্গে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রদর্শনীতে অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থী শিল্পীদের নিরীক্ষাধর্মী কাজের মূল্যায়নের ভিত্তিতে পুরস্কার প্রদান করা হয়।

এ প্রদর্শনী প্রধান অতিথি হিসেবে উদ্বোধন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক। বিশেষ অতিথি ছিলেন অঙ্কন ও চিত্রায়ণ বিভাগের অধ্যাপক ড. ফরিদা জামান ও অধ্যাপক জামাল আহমেদ। সভাপতিত্ব করেন চারুকলা অনুষদের ডীন অধ্যাপক নিসার হোসেন। এছাড়া বিচারকমণ্ডলীর পক্ষে বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক শিশির ভট্টাচার্য্য।

পুরস্কারপ্রাপ্ত শিল্পীরা হলেন — ‘ইমপ্যাক্ট’ শীর্ষক স্থাপনা শিল্পের জন্য নিরীক্ষাধর্মী কাজের শ্রেষ্ঠ পুরস্কার পেয়েছেন শেখ ফাইজুর রহমান। ‘ক্রাইসিস অ্যান্ড ক্যাপসুল গড’ শিরোনামে চিত্রকর্মের জন্য আনোয়ারুল হক স্মৃতি পুরস্কর পেয়েছেন মোঃ রেজাউল করিম। ‘এক্সপেরিমেন্ট’ শীর্ষক কাজের জন্য কাজী আবদুল বাসেত স্মৃতি পুরস্কার পেয়েছেন মোঃ রাকিবুল আনোয়ার। তেল রংয়ে আঁকা কাঁচাবাজার শীর্ষক চিত্রের জন্য তেলরং মাধ্যমে শ্রেষ্ঠ পুরস্কার পেয়েছেন মোঃ তরিকুল ইসলাম। চারুকলা প্রাঙ্গণ শীর্ষক চিত্রের জন্য দেলোয়ার হোসেন স্মৃতি পুরস্কার অর্জন করেছেন শাহানা মোস্তফা, জলরংয়ের মাধ্যমে সেরা শিল্পী হয়েছেন সৈকত সরকার। মাহবুবুল আমিন স্মৃতি পুরস্কার পেয়েছেন ভুটানের শিক্ষার্থী উগেন তেসরিং দয়া। পেন্সিলের মাধ্যমে শ্রেষ্ঠ পুরস্কার পেয়েছেন সৌরভ ধর, শহীদ শাহনেওয়াজ স্মৃতি পুরস্কার পেয়েছেন নাজমুস ছাকিম খান। এ বছর কাজের মান বিচার করে জয়নুল আবেদীন পুরস্কার পায়নি কোনো শিক্ষার্থী।

আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বলেন, ভালো শিল্পী হওয়ার পাশাপাশি প্রকৃত মানুষ হিসেবে নিজেকে গড়ে তুলতে হবে। সেখানেই শিক্ষার্থীর সার্থকতা।

শিশির ভট্টাচার্য্য বলেন, শিক্ষার্থীদের কাজ দেখে আমরা খুব তৃপ্ত হইনি। প্রদর্শনী চলবে ১৩ আগস্ট পর্যন্ত। প্রতিদিন সকাল ১১টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত খোলা থাকবে।

বঙ্গবন্ধুর ছবি প্রদর্শনী : জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কর্মময় জীবনের দুর্লভ স্থিরচিত্র নিয়ে মাসব্যাপী প্রদর্শনীর আয়োজন করেছে যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে এ চিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে। গতকাল মতিঝিলে অধিদপ্তরের প্রধান কার্যালয়ের নীচতলায় এর উদ্বোধন করেন যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আনোয়ারুল করিম। এসময় অধিদপ্তরের পরিচালক (প্রশাসন ও অর্থ) শিশির কুমার রায় উপস্থিত ছিলেন।

ইত্তেফাক/নূহু

এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
১৮ নভেম্বর, ২০১৭ ইং
ফজর৫:১৩
যোহর১১:৫৫
আসর৩:৩৯
মাগরিব৫:১৮
এশা৬:৩৬
সূর্যোদয় - ৬:৩৪সূর্যাস্ত - ০৫:১৩