সংস্কৃতি | The Daily Ittefaq

আইসিএসএফ-কমলা কালেক্টিভের উপস্থাপনায় ‘১৯৭১ এর নারী নির্যাতন’

আইসিএসএফ-কমলা কালেক্টিভের উপস্থাপনায় ‘১৯৭১ এর নারী নির্যাতন’
অনলাইন ডেস্ক০৩ অক্টোবর, ২০১৭ ইং ১৩:০৪ মিঃ
আইসিএসএফ-কমলা কালেক্টিভের উপস্থাপনায় ‘১৯৭১ এর নারী নির্যাতন’
 
হিউম্যান রাইটস সামার স্কুলে (এইচআরএসএস) ইন্টারন্যাশনাল ক্রাইমস স্ট্রর‌্যাটেজি ফোরাম (আইসিএসএফ) এবং কমলা কালেক্টিভ যৌথভাবে ১ অক্টোবর একটি বিশেষ উপস্থাপনা পেশ করে। উপস্থাপনার মূল বিষয়বস্তু ছিল ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে সংঘটিত যৌন নির্যাতন। 
 
১০ দিনব্যাপী অনুষ্ঠিতব্য সামার স্কুলটির আয়োজক ‘এম্পাওয়ারমেন্ট থ্রো ল’ অফ কমন পিপল’ (এলকপ), যেখানে এ বছরের নির্ধারিত বিষয়বস্তু ছিল ‘মানবাধিকার এবং নারী’। ২৭ সেপ্টেম্বর থেকে আগামী ৭ অক্টোবর ২০১৭ পর্যন্ত অনুষ্ঠিতব্য এই আয়োজনের স্থান মানিকগঞ্জের প্রশিকা এইচআরডিসি।
 
যৌথ উপস্থাপনাটি শুরু হয় আইসিএসএফ নির্মিত বাংলাদেশের গণহত্যার উপরে স্বল্প দৈর্ঘ্য তথ্যচিত্র ‘ক্রিড ফর জাস্টিস’ প্রদর্শনীর মধ্য দিয়ে। এর পরে কমলা কালেক্টিভের পক্ষ থেকে লীসা গাজি ‘বীরাঙ্গনা- যুদ্ধের নারী’ প্রসঙ্গে একটি কথ্য রূপের প্রযোজনা উপস্থাপন করেন।
 
আইসিএসএফের সদস্য রাশেদা খান এবং ব্যারিস্টার তাপস কান্তি বাউল আরো দু’টি গবেষণাপত্র পেশ করেন। বিষয় ছিল, যথাক্রমে: ‘১৯৭১ সালের গণহত্যার ঠিক পরবর্তী সময়ে বাংলাদেশে গর্ভপাত আইনের/মাসিক নিয়মিতকরণ নীতির প্রয়োগ’ এবং ‘আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে ১৯৭১ সালের যৌন সহিংসতার বিচার’। এই গবেষণাপত্রগুলো উপস্থাপনার পরেই ছিলো এই বছরের সামার স্কুলের অংশগ্রহণকারীদের সঙ্গে একটি প্রশ্নোত্তর পর্ব।
 
পুরো অধিবেশনটি আইসিএসএফের সদস্য নাবীল আশরাফ আলী পরিচালনা করেন। সেই সঙ্গে তিনি সংগঠনের পক্ষ থেকে সংক্ষিপ্ত উদ্বোধনী ও সমাপনী বক্তব্যও প্রদান করেন।
 
যৌথ উপস্থাপনার পাশাপাশি আইসিএসএফ এবং কমলা কালেক্টিভের পক্ষ থেকে একটি পোস্টার প্রদর্শনীরও আয়োজন করা হয়। প্রদর্শনীর বিষয় ছিলো ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে বাঙালি নারীদের উপর পাকিস্তানি সেনাবাহিনী এবং তাদের স্থানীয় সহযোগীদের সাহায্যে সংঘটিত নির্যাতন ও ধর্ষণ।
 
আন্তর্জাতিক অপরাধের ভিক্টিমদের ন্যায়বিচার প্রদানের লক্ষ্যে কর্মরত শিক্ষাবিদ, গবেষক, বিশেষজ্ঞ এবং কর্মীদের সমন্বয়ে গঠিত ইন্টারন্যাশনাল ক্রাইমস স্ট্র্যাটেজি ফোরাম (আইসিএসএফ) একটি স্বাধীন বৈশ্বিক নেটওয়ার্ক যা দীর্ঘদিন ধরে বাংলাদেশে সংগঠিত গণহত্যার স্বীকৃতি আদায় ও অপরাধীদের বিচারের আওতায় আনার লক্ষ্যে কাজ করে চলেছে।
 
কমলা কালেক্টিভ লন্ডনভিত্তিক থিয়েটার এবং আর্টস দল, যারা তাদের প্রযোজনাগুলোতে নারীর দৃষ্টিকোণ তুলে আনায় নিবেদিত। ‘বীরাঙ্গনা: যুদ্ধের নারী’ তাদের একটি অন্যতম প্রযোজনা, যা বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সময় নির্যাতিত ও ধর্ষিত ২ লাখ নারীর না-বলা সত্য ঘটনা অবলম্বনে নির্মিত।
 
ইত্তেফাক/আনিসুর
এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
১৯ অক্টোবর, ২০১৭ ইং
ফজর৪:৪২
যোহর১১:৪৪
আসর৩:৫২
মাগরিব৫:৩৩
এশা৬:৪৪
সূর্যোদয় - ৫:৫৭সূর্যাস্ত - ০৫:২৮