শিক্ষাঙ্গন | The Daily Ittefaq

জাবিতে ভর্তি জালিয়াত চক্রের ৬ সদস্য আটক

জাবিতে ভর্তি জালিয়াত চক্রের ৬ সদস্য আটক
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি১৩ নভেম্বর, ২০১৭ ইং ২৩:০০ মিঃ
জাবিতে ভর্তি জালিয়াত চক্রের ৬ সদস্য আটক
 
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) ভর্তি জালিয়াত চক্রের ৬ সদস্যকে আটক করা হয়েছে।সোমবার বিভিন্ন অনুষদে সাক্ষাৎকার চলাকালে তাদের আটক করা হয়। পরে সাবাইকে আশুলিয়া থানা পুলিশে সোপর্দ করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। 
 
আটককৃতরা হলেন- নিশাদ আহমেদ, নাঈমুর রহমান সরকার, আশরাফুজ্জামান নয়ন, মাহমুদুল রশিদ সৌরভ ও নাঈমুর রহমান। এছাড়া মো. রিজওয়ান নামে আরো এক ব্যক্তিকেও আটক করা হয়। তবে সে নিজেকে নির্দোষ দাবি করে বলে, “নিশাদ ও নাঈমুর আমাকে সঙ্গে নিয়ে এসেছে। জালিয়াতির বিষয়ে আমি কিছুই জানতাম না।” 
 
প্রক্টর অফিস সূত্রে জানা যায়, নীলফামারী জেলার নিশাদ আহমেদ আইন ও বিচার বিভাগের ভর্তি পরীক্ষায় ৪৭তম অবস্থানে ছিল। নিশাদের হয়ে অন্য একজন ৩ লাখ টাকা চুক্তিতে পরীক্ষা দেয়। তার সঙ্গে আসা তার বড় ভাই ছাত্রদল কর্মী নাঈমুর রহমান সরকারকেও আটক করা হয়। অন্যদিকে যশোরের আশরাফুজ্জামান নয়ন সি (কলা ও মানবিকী) ইউনিটে ১৭তম স্থান লাভ করে। সে ১ লাখ টাকার বিনিময়ে এক ব্যক্তির সঙ্গে চুক্তি করে প্রক্সি পরীক্ষা দিয়ে চান্স পায়। গাজীপুর জেলার জয়দেবপুর থানার মাহমুদুল রশিদ সৌরভ ‘ই’ ইউনিটে (বিজনেস স্টাডিজ অনুষদ) ১৫২তম অবস্থানে ছিল। সে  ৫ লাখ টাকার বিনিময়ে প্রক্সির ব্যবস্থা করে। তার রোল নং-৫২৩২৫৩। নীলফামারী জেলার নাঈমুর রহমান ‘ই’ ইউনিটে (বিজনেস স্টাডিজ অনুষদ) ১২৭তম অবস্থানে ছিল। সে সুবির নামের এক শিক্ষার্থীর সঙ্গে ২ লাখ টাকার বিনিময়ে প্রক্সির ব্যবস্থা করে। ইতোমধ্যে সে ১ লাখ টাকা পরিশোধও করেছে। তার রোল নং-৫২৬০৯৮। 
 
এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক তপন কুমার সাহা বলেন, “তারা ভর্তি জালিয়াতির সঙ্গে জড়িত থাকায় তাদেরকে আশুলিয়া থানা পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করা হবে।”
 
ইত্তেফাক/আরকেজি
এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
২৩ নভেম্বর, ২০১৭ ইং
ফজর৪:৫৯
যোহর১১:৪৫
আসর৩:৩৬
মাগরিব৫:১৫
এশা৬:৩১
সূর্যোদয় - ৬:১৮সূর্যাস্ত - ০৫:১০