শিক্ষাঙ্গন | The Daily Ittefaq

ঢাবিতে অভিযোগ উপেক্ষা করে প্রভাষককে স্থায়ী করার সুপারিশ

ঢাবিতে অভিযোগ উপেক্ষা করে প্রভাষককে স্থায়ী করার সুপারিশ
কবির কানন২৭ মে, ২০১৮ ইং ২১:৩৬ মিঃ
ঢাবিতে অভিযোগ উপেক্ষা করে প্রভাষককে স্থায়ী করার সুপারিশ
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টেলিভিশন, ফিল্ম অ্যান্ড ফটোগ্রাফি বিভাগের একজন প্রভাষকের বিরুদ্ধে বিভাগের সমন্বয় ও উন্নয়ন কমিটি (সিঅ্যান্ডডি) গবেষণায় চৌর্যবৃত্তিসহ একাধিক অভিযোগ করেছে। কিন্তু অভিযোগ উপেক্ষা করে তথ্য লুকিয়ে ওই প্রভাষককে স্থায়ী করার সুপারিশ করেছে চাকরি স্থায়ীকরণ কমিটি। সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেটে চূড়ান্ত স্থায়ীকরণের জন্য বিষয়টি উঠানো হবে। 
 
জানা যায়, প্রভাষক এস এম ইমরান হোসেন গত ৩০ জানুয়ারি টেলিভিশন, ফিল্ম অ্যান্ড ফটোগ্রাফি বিভাগে প্রভাষক পদে স্থায়ী বহাল করার আবেদন করেন। তার আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে গত ২৫ মার্চ বিভাগের চেয়ারপার্সন রিফ্ফাত ফেরদৌস এর সভাপতিত্বে ‘সিঅ্যান্ডডি’ কমিটির এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় কমিটির সদস্যরা তার বিরুদ্ধে গবেষণা প্রবন্ধে চৌর্যবৃত্তির অভিযোগসহ একাধিক অভিযোগ করেন। কিন্তু তা সত্ত্বেও তাকে স্থায়ীকরণের জন্য সুপারিশ করা হয়েছে। 
 
তার বিরুদ্ধে সিঅ্যান্ডডি কমিটির অন্যান্য অভিযোগগুলো হলো- যে পত্রিকায় তার প্রবন্ধ ছাপা হয়েছে সেটি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বীকৃত কোনো জার্নাল নয়, নারী সহকর্মীদের সঙ্গে ঔদ্ধত ও অসৌজন্যমূলক আচরণ করা, নিয়োগ কমিটির নির্দেশ অনুযায়ী ব্যবহারিক কোর্সে অংশ না নেওয়া, বিষয়গত ও ভাষাগত দক্ষতার অভাব।
 
কমিটির সুপারিশনামায় বলা হয়েছে, ইমরান হোসেন স্থায়ীকরণের জন্য যে প্রবন্ধটি জমা দিয়েছেন সেটি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক স্বীকৃত কোনো জার্নাল নয় বা এটিকে কোনো একাডেমিক বা স্কলারলি জার্নাল বলা যায় না। এই পত্রিকার কোনো সুনির্দিষ্ট সাইটেশন বা রেফারেন্সিং নেই।
 
অভিযোগ করার বিষয়ে জানতে চাইলে টেলিভিশন, ফিল্ম অ্যান্ড ফটোগ্রাফি বিভাগের চেয়ারপার্সন জনাব রিফ্ফাত ফেরদৌস কোনো মন্তব্য করতে চাননি। 
 
অভিযোগের বিষয়ে ইমরান হোসেন ইত্তেফাককে বলেন, এটা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। সিঅ্যান্ডডি কমিটি কোনো বিষয় উত্থাপন করতে গেলে তার জন্য কাউকে অভিযোগ জানাতে হয়। আমার বিরুদ্ধে কেউ অভিযোগ দেয়নি। অথচ একাধিক অভিযোগ সিঅ্যান্ডডি কমিটিতে পাঠানো হয়েছে। আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ অথচ আমি এর কোনো কপি পাইনি। আমাকে কিছু জানানো হয়নি।
 
বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার এনামুজ্জামান বলেন, ওটা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠিয়ে দিয়েছি। তারা সিদ্ধান্ত নেবে।
 
বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-উপাচার্য (শিক্ষা) ও চাকরি স্থায়ীকরণ কমিটির সভাপতি অধ্যাপক নাসরীন আহমাদ বলেন, স্থায়ীকরণের বিষয়টি এখনও চূড়ান্ত হয়নি।
 
ইত্তেফাক/এমআই
 
এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:২৯
যোহর১১:৫৩
আসর৪:১৭
মাগরিব৬:০৩
এশা৭:১৬
সূর্যোদয় - ৫:৪৫সূর্যাস্ত - ০৫:৫৮