শিক্ষাঙ্গন | The Daily Ittefaq

'নিপীড়নের ক্ষেত্র প্রস্তুত করে দেওয়া হয়েছিল'

'নিপীড়নের ক্ষেত্র প্রস্তুত করে দেওয়া হয়েছিল'
বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার১৭ জুলাই, ২০১৮ ইং ২০:০৯ মিঃ
'নিপীড়নের ক্ষেত্র প্রস্তুত করে দেওয়া হয়েছিল'

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নিপীড়নবিরোধী শিক্ষকবৃন্দ অভিযোগ করেছেন গত রবিবার শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার জন্য শহীদ মিনারে হামলার ক্ষেত্র প্রস্তুত করে দেওয়া হয়েছিল। মঙ্গলবার সোয়া বারোটায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রে এক সংবাদ সম্মেলনে তারা এই অভিযোগ করেন।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক ড. ফাহমিদুল হক, সহযোগী অধ্যাপক আব্দুর রাজ্জাক খান, আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক তানজীমউদ্দিন খান, সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. সামিনা লুৎফা, অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষক রুশাদ ফরিদী প্রমুখ।

লিখিত বক্তব্যে সামিনা লুৎফা বলেন, সেদিন সাধারণ শিক্ষার্থীদের সমাবেশে কয়েকজন শিক্ষক সংহতি জানাতে যান। কিন্তু ছাত্রলীগ সদস্যরা সেই সমাবেশ পণ্ড করতে নানান অসভ্য উপায় গ্রহণ করে। তারা শিক্ষার্থীদের সমাবেশের কাছে এসে পাল্টা মাইক জুড়ে দেয়। শিক্ষকদের নিয়ে কটুক্তি করে। কোনো যোগসূত্র ছাড়াই জামায়াত-শিবির দোসর হিসেবে আখ্যা দেয়। তারা সমাবেশ ঘিরে হৈ চৈ করতে থাকে। মিছিলে হামলা করে প্রায় ১০-১২ জন শিক্ষার্থীকে মারধর করে এবং কয়েকজন শিক্ষকের ওপর তারা চড়াও হয় ও লাঞ্ছনা করে।

লিখিত বক্তব্যে আরও বলা হয়, শিক্ষকদের লাঞ্ছনার বিষয়টি অত্যন্ত আপত্তিকর। এরকম একটি পরিস্থিতিতে সেই সমাবেশস্থলে প্রক্টরিয়াল বডির কেউ উপস্থিত ছিলেন না। পুলিশ বাহিনীর কেউ ছিলেন না; এভাবে নিপীড়নের জন্য একটি ক্ষেত্র প্রস্তুত করে দেওয়া হয়েছিল।

সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষক লাঞ্ছনার বিচারের দাবিতে আগামী বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে শিক্ষকদের সংহতি সমাবেশের ঘোষণা দেওয়া হয়। এছাড়া আগামী ২৩ জুলাই বিশ্ববিদ্যালয়ের বটতলায় নিপীড়নবিরোধী সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হবে বলে উল্লেখ করা হয়। শিক্ষক লাঞ্ছনার পরিপ্রেক্ষিতে তারা বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য বরাবর একটি চিঠিও দিয়েছেন বলে জানান।

ইত্তেফাক/নূহু

এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:৩৪
যোহর১১:৫১
আসর৪:১১
মাগরিব৫:৫৪
এশা৭:০৭
সূর্যোদয় - ৫:৪৮সূর্যাস্ত - ০৫:৪৯