শিক্ষাঙ্গন | The Daily Ittefaq

আউটডোর গেম পাঠ্যক্রমে অন্তর্ভুক্ত করা জরুরি

আউটডোর গেম পাঠ্যক্রমে অন্তর্ভুক্ত করা জরুরি
ইত্তেফাক ডেস্ক০৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং ০৮:৪৫ মিঃ
আউটডোর গেম পাঠ্যক্রমে অন্তর্ভুক্ত করা জরুরি
 
বিশ্বের প্রায় সব দেশেই আজকাল ছেলে-মেয়েরা স্কুলনির্ভর হয়ে পড়েছে। নির্দিষ্ট গণ্ডির মধ্যে আবদ্ধ শিশুদের জীবন। সকাল বেলা একগাদা বই নিয়ে স্কুলে যাওয়া, এরপর স্কুল শেষে ক্লান্ত শরীরে বাড়ি ফেরা। বিকাল বেলা স্কুলের পড়া নিয়ে ব্যস্ত থাকা। বিনোদন বলতে স্মার্টফোন কিংবা ভিডিও গেমস! মাঠে গিয়ে খেলাধুলা করাটা ভুলতেই বসেছে এই প্রজন্মের ছেলে-মেয়েরা। এতে করে শিশুদের দূরত্ব তৈরি হচ্ছে প্রকৃতির সাথে। গতানুগতিক এই ধারা থেকে বেরিয়ে আসার জন্য ভিন্নধর্মী এক শিক্ষা কার্যক্রমের কথা ভাবছেন শিক্ষা বিশেষজ্ঞরা।
 
তাদের মতে, প্রকৃত শিক্ষায় শিক্ষিত হতে হলে কোমলমতি শিশুদের নিয়ে যেতে হবে প্রকৃতির কাছে। এরই অংশ হিসেবে তারা আউটডোর গেমসকে পাঠ্যক্রমে অন্তর্ভুক্ত করার বিষয়ে মত দিয়েছেন। তাদের যুক্তি, প্রতিটা স্কুলই যদি তাদের ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়মিত খেলাধুলার পরিবেশ তৈরি করে দিতে পারে তাহলে তা শিশুর শারীরিক ও মানসিক বিকাশে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।
 
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এ বছর থেকেই শুরু হয়েছে প্রকৃতি থেকে শেখার বিশেষ শিক্ষা দিবস। প্রতি বছর ১৭ মে এবং ১ নভেম্বর শিক্ষার্থীদের শ্রেণীকক্ষের বাইরে প্রকৃতির কাছে নিয়ে যাওয়ার কর্মসূচি হাতে নিয়েছেন তারা। প্রথম বছরেই এই কর্মসূচিতে দারুণ সাড়া মিলেছে সারা বিশ্ব থেকে। বৈশ্বিক রূপ লাভ করা এই কর্মসূচিতে যুক্তরাজ্য থেকে নিউজিল্যান্ড, এশিয়া থেকে আফ্রিকা, আমেরিকা থেকে মধ্যপ্রাচ্য - বিশ্বের ১০০টি দেশের প্রায় সতের লাখ শিশু ১৭ মে শ্রেণীকক্ষের বাইরে গিয়ে প্রকৃতি থেকে শিখেছে।
 
যুক্তরাষ্ট্রের স্বনামধন্য শিক্ষা বিশারদ স্যার কেন রবিনসনের মতে, শেখার জন্য খেলাধুলা হচ্ছে প্রথম মাধ্যম। কোমলমতি শিশুরা তাদের আশপাশের পরিবেশ থেকেই সব থেকে ভালো জ্ঞান অর্জন করতে পারে। শিশু-কিশোরদের নিয়মিত বাইরে গিয়ে খেলাধুলা না করার বিষয়টি আজকের দিনের অন্যতম বড় একটি ইস্যুতে পরিণত হয়েছে। সামাজিক মূল্যবোধের যে অবক্ষয় তার পেছনেও নেতিবাচক প্রভাব ফেলে চলমান প্রক্রিয়া।
 
বিশেষজ্ঞদের মতে, শ্রেণীকক্ষের মাধ্যমে খেলাধুলাকে পাঠ্যক্রমে অন্তর্ভুক্ত করতে পারলে তা শিশুদের সৃজনশীল উপায়ে শিখতে এবং মনে রাখতে সাহায্য করবে। বাস্তবতার নিরিখে শিখবে বিভিন্ন বিষয়। দলবেঁধে কাজ করার গুণও রপ্ত করবে তারা। শিশুদের স্বাস্থ্যকর এবং সুষম উপায়ে গড়ে তুলতেও দারুণ ভূমিকা রাখবে এই ধরনের পাঠ্যক্রম। ১৭ মে’র পর এবছর ১ নভেম্বরও বিশ্বের বিভিন্ন দেশের স্কুলে পালিত হবে আউটডোর ক্লাসরুম ডে। তবে ভবিষ্যতে প্রতিটা স্কুলের পাঠ্যক্রমে যাতে আউটডোর গেমস অন্তর্ভুক্ত করা যায় সেটি-ই তাদের লক্ষ্য।-সিএনএন।
 
ইত্তেফাক/মোস্তাফিজ
এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:৩০
যোহর১১:৫৩
আসর৪:১৭
মাগরিব৬:০২
এশা৭:১৫
সূর্যোদয় - ৫:৪৬সূর্যাস্ত - ০৫:৫৭