ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ৯ ফাল্গুন ১৪২৫
২৭ °সে

আমি মদ খাইনি, ট্রাকচালক খেয়েছিলেন: অহনা

আমি মদ খাইনি, ট্রাকচালক খেয়েছিলেন: অহনা
অ্যাপোলো হাসপাতালে অভিনেত্রী অহনা। ছবি: ফেসবুক

সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত অভিনেত্রী অহনা রহমান লাকীর শারীরিক অবস্থা সংকটজনক। তাকে রাজধানীর উত্তরার ক্রিসেন্ট হাসপাতাল থেকে মঙ্গলবার অ্যাপোলো হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সেখানেই এখান চিকিৎসাধীন তিনি।

অহনার খালাতো বোন লিজা ইয়াসমীন মিতু বলেন, অহনার অবস্থা সংকটজনক। তার রক্তে জীবাণু ছড়িয়ে গেছে। শরীরে তার ব্যথা একদম কমছে না। এমআরই করা হয়েছে। প্রতিবেদন পেলে বোঝা যাবে তার চিকিৎসার পরবর্তী ধাপ। সবাই তার জন্য দোয়া করবেন।

গত ১০ জানুয়ারি ভোর ৩টার পর শুটিং শেষে বাসায় ফিরছিলেন অহনা। পথে উত্তরা লেকড্রাইভ রোডের ৭ নম্বর সেক্টরে একটি ট্রাক অহনার গাড়িকে চাপা দেয়। এসময় গাড়ি থেকে নেমে তিনি প্রতিবাদ করে ট্রাকচালককে নিচে নামতে বলেন। একপর্যায় ট্রাক ড্রাইভার ও তার হেলপার নিচে না নেমে অহনাকে উত্যক্ত করতে থাকেন।

এরপর অহনা ট্রাকের দরজায় উঠলে তাকে নিয়েই ট্রাকটি ছেড়ে দেন চালক। এ সময় ট্রাকের দরজায় ঝুলতে থাকা অহনা বাঁচাও বলে চিৎকার করতে থাকেন। এভাবেই ট্রাকটি অহনাকে ঝুলন্ত অবস্থায় নিয়ে উত্তরার ১২নং সেক্টরে পৌঁছায়। এসময় স্থানীয়দের বাধায় ট্রাকচালক সজোরে ব্রেক কষলে অহনা উল্টে রাস্তায় পড়ে যান। এতে গুরুতর আহত হন তিনি। এ ঘটনার পর উত্তরা পশ্চিম থানায় মামলা করেন অহনার খালাতো বোন লিজা ইয়াসমীন মিতু।

অভিনেত্রী অহনা। ছবি: ফেসবুক

এরপর গত শনিবার সকালে সাভার থেকে গ্রেফতার করা হয় চালক সুমনকে। এর আগে শুক্রবার দিবাগত মধ্যরাতে আশুলিয়া থেকে ট্রাকের হেল্পার রোহানকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারের পর দুজনই আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। ঢাকার মহানগর হাকিম দেবব্রত বিশ্বাসের আদালতে তারা এ জবানবন্দি দেন।

আরো পড়ুন: সিজার অপারেশন পিছিয়ে ভোট দিয়ে আলোচনায় টিউলিপ

এদিকে অহনার সঙ্গে ট্রাকচালককের তর্কের ভিডিও সামাজিক যোগযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে অনেকে সমবেদনা জানালে আবার কেউ কেউ ভিন্ন মন্তব্য করেন।

এ বিষয়ে শয্যাশায়ী অহনা বলেন, আজকে আমার জায়গায় যদি তাদের মা, বোন ও প্রেমিকা থাকতেন তাহলে তিনি কী এরকম বলতে পারতেন।

স্রষ্টার কাছে বিচারপ্রার্থী জানিয়ে অভিনেত্রী বলেন, আমি পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়ি। পাপ-পুণ্যের বিচার আল্লাহ করবেন। বেঁচে থাকলে আমার সঙ্গে যদি একই ঘটনা ঘটে আবারও আমি প্রতিবাদ করব।

ট্রাকচালক মাদকাসক্ত ছিলেন জানিয়ে অহনা বলেন, ট্রাকচালক ছিলেন মাদকাসক্ত। অথচ অনেকে মন্তব্য করেছেন আমি নাকি মদ খেয়েছিলাম!

ঘটনার বিবরণ দিয়ে তিনি বলেন, আমি যদি ওই সময় ট্রাকে না উঠতাম তাহলে তো ট্রাক আমার উপর দিয়ে উঠে যায়। সঙ্গে থাকা খালাতো বোনকে ভিডিও বন্ধ করে পুলিশকে কল করতে বলি। এসময় ট্রাকচালক বলতে থাকে ‘পুলিশ ডাকছে, দেখাচ্ছি।’ এই বলে ট্রাক চালিয়ে দেয়।

ইত্তেফাক/জেডএইচ

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন