বিনোদন | The Daily Ittefaq

যে সিনেমাগুলোর মাঝে চিরকাল বেঁচে থাকবেন শ্রীদেবী

যে সিনেমাগুলোর মাঝে চিরকাল বেঁচে থাকবেন শ্রীদেবী
অনলাইন ডেস্ক২৫ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮ ইং ১৩:৪৫ মিঃ
যে সিনেমাগুলোর মাঝে চিরকাল বেঁচে থাকবেন শ্রীদেবী
 
মাত্র ৪ বছর বয়স থেকে অভিনয় শুরু করেন শ্রীদেবী। তামিল, তেলেগু, মালায়ালাম, কন্নড় এবং হিন্দি ভাষার সিনেমায় অভিনয় করেছেন তিনি। ভারতীয় অভিনেত্রীদের মধ্যে নায়ক ছাড়া বক্স অফিস হিট সিনেমা উপহার দিতে সক্ষম অভিনেত্রীদের একজন ছিলেন এ অভিনেত্রী। ১৯৭৮ সালে বলিউড সিনেমায় শ্রীদেবীর অভিষেক হয়।
 
দীর্ঘ প্রায় পাঁচ দশকের ক্যারিয়ারে তিনশ সিনেমায় অভিনয় করেছেন তিনি। গ্যালারির পাতায় রইল শ্রীদেবী অভিনীত সেরা কয়েকটি ছবির খোঁজ। যে ছবিগুলোর মাঝে চিরকাল বেঁচে থাকবেন তিনি। 
 
ইংলিশ ভিংলিশ (২০১২): বিয়ের পর অভিনেত্রীদের সেকেন্ড ইনিংস নাকি তেমন সফল হয় না। এই মিথকে ভেঙেছেন মিস ‘হাওয়া হাওয়াই’। ২০১২ সালে মুক্তিপাওয়া গৌরী শিন্ডের ‘ইংলিশ ভিংলিশ’ ছবিতে ‘শশী’ চরিত্রে শ্রীদেবীর অভিনয় মাতিয়ে দিয়েছিল সিনেপ্রেমীদের। বক্স অফিসে চূড়ান্ত সাফল্য পায় এই ছবি।
 
মম (২০১৭): কামব্যাকের পর শ্রীদেবী অভিনীত সেরা ছবিগুলির একটি রবি উদিয়া পরিচালিত ‘মম’। ছবিটি সন্তানের প্রতি অবিচারের বিরুদ্ধে একজন মায়ের লড়াইয়ের কাহিনী। মায়ের ভূমিকায় শ্রীদেবীর অভিনয় মুগ্ধ করে দর্শককে।
 
সদমা (১৯৮৩): ত্যাগরাজনের প্রযোজনায় এবং বালু মহেন্দ্র-র পরিচালনায় ১৯৮৩ সালে তৈরি হয় সদমা। শৈশবে স্মৃতিশক্তি হারিয়ে যাওয়া এক মেয়ের চরিত্রে দেখা যায় তাকে। শ্রীদেবী এবং কমল হাসন অভিনীত এই ছবিটি বলিউডে ক্লাসিক ছবির তকমা পায়।
 
নাগিনা (১৯৮৬): এক ইচ্ছাধারী নাগিনের চরিত্রে শ্রীদেবীর অসাধারণ অভিনয় মুগ্ধ করেছিল দর্শককে। অমরেশ পুরীর বীণের তালে তালে ‘ম্যায় তেরা দুশমন’ গান এখনও লোকের মুখে মুখে ফেরে।
 
মিস্টার ইন্ডিয়া (১৯৮৭): আটের দশকে বক্স অফিস কাঁপানো ছবি ‘মিস্টার ইন্ডিয়া’। সেই সময় দাঁড়িয়ে শেখর কাপুরের ছবিটির কনসেপ্ট দর্শকমহলে খুবই জনপ্রিয় হয়।
 
চাঁদনী (১৯৮৯): যশ চোপড়ার ‘চাঁদনী’ এক সময় বক্স অফিসে সব রেকর্ড ভেঙে দেয়। পর্দায় ঋষি কাপুর এবং শ্রীদেবীর রোমান্স মুগ্ধ করেছিল আট থেকে আশিকে।
 
চালবাজ (১৯৮৯): পঙ্কজ পরাশর পরিচালিত ‘চালবাজ’ ছবিটি মুক্তি পায় ১৯৮৯ সালে। ছবিটিতে ‘অঞ্জু’ এবং ‘মঞ্জু’ নামে যমজ বোনের চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা যায় শ্রীদেবীকে। ছবিটিতে একই সঙ্গে দু’টি ভিন্ন চরিত্রের স্বাদ এনে দেন শ্রীদেবী।
 
খুদা গাওয়া (১৯৯২): অমিতাভ বচ্চন ও শ্রীদেবী অভিনীত ‘খুদা গাওয়া’ মুক্তি পেয়েছিল ১৯৯২ সালে। নাজির আহমদ এবং মনোজ দেশাইয়ের ‘খুদা গাওয়া’ বক্স অফিসে দারুণ সাড়া জাগিয়েছিল।
 
লমহে (১৯৯১): ‘লমহে’তে শ্রীদেবী ও অনিল কাপুরের অনস্ক্রিন রোমান্স পছন্দ করেছিলেন দর্শকরা। জানেন কী, সে ছবিতে শ্রীদেবীর বিপরীতে অভিনয় করার জন্য তাঁর রিয়েল লাইফ পার্টনার বনি কাপুরকে অফার করেছিলেন যশ চোপড়া? ছবিটি দুর্দান্ত সাফল্য পায় বক্স অফিসে।
 
জুদাই (১৯৯৭): রাজ কানওয়ারের ‘জুদাই’ ছবিতে এক লোভী গৃহবধূর চরিত্রে শ্রীদেবীর অভিনয় ছিল দুর্দান্ত। ছবিটিতে নেগেটিভ চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা যায় শ্রীদেবীকে।
 
শাহরুখ খানের রেড চিলিজ প্রোডাকশনের ‘জিরো’ ছবিতে শেষ অভিনয় করতে দেখা যাবে শ্রীদেবীকে। আনন্দ এল রাইয়ের পরিচালনায় এই ছবিতে অভিনয় করেছেন শাহরুখ নিজে।
 
ইত্তেফাক/মোস্তাফিজ
এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:৩২
যোহর১১:৫২
আসর৪:১৪
মাগরিব৫:৫৮
এশা৭:১১
সূর্যোদয় - ৫:৪৭সূর্যাস্ত - ০৫:৫৩