বিনোদন | The Daily Ittefaq

‘বহু বর্ণে এক দ্রৌপদী’ উৎসব শুক্রবার শিল্পকলায়

‘বহু বর্ণে এক দ্রৌপদী’ উৎসব শুক্রবার শিল্পকলায়
অনলাইন ডেস্ক১২ আগষ্ট, ২০১৮ ইং ১০:৪৭ মিঃ
‘বহু বর্ণে এক দ্রৌপদী’ উৎসব শুক্রবার শিল্পকলায়
ছবি: শিরিন খান মনি, নাজনিন হাসান চুমকী, বন্যা মির্জা ও সুষমা সরকার
গত ১৮ বছর ধরে ঢাকার মঞ্চে যে নারী চরিত্র একক রাজত্ব করেছে। অকপটে বলে গেছে নারীর নানান সংকটের গল্প। উন্মোচন করেছে নারীর মনজগতে আটকে থাকা না বলা কথা। সেই চরিত্রের নাম ‘দ্রৌপদী’। এই সুদীর্ঘ সময়ে চারজন অভিনেত্রী রাঙিয়েছেন, ধারণ করেছেন দেশ নাটক প্রযোজিত ‘নিত্যপুরাণ’ নাটকের বিখ্যাত চরিত্রটি। নাটকটির ৭৫তম প্রদর্শনীতে অভিনব এক আয়োজন করতে চলেছে দেশ নাটক। সেই চার অভিনেত্রীকে এক মঞ্চে এনে আগামী ১৭ তারিখ শিল্পকলায় বসানো হচ্ছে ‘দ্রৌপদীর মেলা’।
 
যে চারজন অভিনেত্রী এ পর্যন্ত ‘দ্রৌপদী’ চরিত্রটি অলঙ্কৃত করেছেন তারা হলেন যথাক্রমে— শিরিন খান মনি, নাজনিন হাসান চুমকী, বন্যা মির্জা ও সুষমা সরকার। এই চারজন দ্রৌপদীই আগামী ১৭ আগস্ট শুক্রবারের ৭৫তম প্রদর্শনীতে একসাথে অভিনয় করবেন। দেশ নাটক এই উৎসবের নাম দিয়েছে ‘বহু বর্ণে এক দ্রৌপদী’। রাজধানীর শিল্পকলা একাডেমির এক্সপেরিমেন্টাল হলে ওইদিন দুটি প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হবে। প্রথমটা বিকেল চারটা ৩০ মিনিটে ও দ্বিতীয় প্রদর্শনী সন্ধ্যা সাতটা ১৫ মিনিটে।
জনপ্রিয় এই নাটকটির অভিনেতা-অভিনেত্রীরাও গেঁথে রয়েছেন দর্শকের মনে। কেউ হয়তবা একলব্য রূপে দেখেছেন অকাল প্রয়াত দিলীপ চক্রবর্তীকে, দেখা হয়নি নতুন একলব্য মামুন চৌধুরী রিপনের পারফরমেন্স। আবার মামুন চৌধুরীকে দেখেছেন, দেখা হয়নি বিখ্যাত দিলীপ চক্রবর্তীর অভিনয়। আর তাই এখনো নিত্যপুরাণের প্রদর্শনী শেষে দর্শকরা যখন আলোচনার ঝড় তোলেন শিল্পকলার কোনো এক চায়ের দোকানে, তখন পুরনো কোনো এক দর্শক দীর্ঘশ্বাস ছেড়ে বলে ওঠেন, মামুন ভালো করেছে, তবে খুব মিস করি দিলীপকে! একই কথা প্রযোজ্য দ্রৌপদীদের ক্ষেত্রেও। কেউ দেখেছেন শিরিন খান মনির অভিনীত দ্রৌপদীকে কিন্তু দেখা হয়নি বন্যা মির্জাকে। কারো চোখে লেগে আছে নাজনিন হাসান চুমকি অভিনীত দ্রৌপদী, কেউ বা মাত্রই দেখেছেন সুষমা সরকার অলঙ্কৃত দ্রৌপদী। তাই ভক্ত-দর্শকদের সব স্বাদ একবারে দিতেই নির্দেশকের এই প্রচেষ্টা। সবসময়ের সব দর্শকের চোখে লেগে থাকুক নতুন-পুরাতন দ্রৌপদীগণ।
ঢাকার মঞ্চে প্রথম দর্শনেই বাজিমাত করে ‘নিত্যপুরাণ’। নান্দনিক সংলাপ, অনন্য গাঁথুনির ‘নিত্যপুরাণ’ হয়ে ওঠে দর্শকের নিত্যদিনের গল্প। দর্শকরাও মুখে মুখে আওড়ে চলেছেন নিত্যপুরাণের বিখ্যাত সব সংলাপ।
 
দ্রৌপদী চরিত্রটি নিয়ে সর্বপ্রথম দর্শকদের সামনে আবির্ভূত হন শিরিন খান মনি। সেসময় তার অভিনয়ে মুগ্ধ হয়েছে দর্শকরা। দীর্ঘসময় পরে আবার সেই চরিত্রে অভিনয় করবেন তিনি। এ বিষয়ে দৈনিক ইত্তেফাককে শেয়ার করেছেন তার ভালো লাগা ও নতুন উপলব্ধির কথা। তিনি বলেন, ‘এই চরিত্রের প্রথম অভিনেত্রী হিসেবে একটা ভালো লাগা আছেই। তাছাড়া সময়ের সাথে সাথে এই নাটকের যে গভীর সংলাপ সেটাকে অনুভব করতে পারছি। সব মিলিয়ে এই আয়োজনটা ভালো লাগছে।’
 
 
‘বহু বর্ণে এক দ্রৌপদী’ এই উৎসবের বিষয়ে জানতে চাইলে নাটকটির রচয়িতা ও নির্দেশক প্রখ্যাত নাট্যকার মাসুম রেজা দৈনিক ইত্তেফাককে বলেন, ‘আমি সবসময় বলি নাটক চর্চার দায় আমাদের কিন্তু নাটকের পরিচর্যার দায়িত্ব দর্শকদের। আমরা দর্শকদের অপেক্ষায থাকবো.. সবাইকে আমন্ত্রণ।'
 
ইত্তেফাক/এএম
 
এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:৩০
যোহর১১:৫৩
আসর৪:১৭
মাগরিব৬:০২
এশা৭:১৫
সূর্যোদয় - ৫:৪৬সূর্যাস্ত - ০৫:৫৭