ঢাকা সোমবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৮, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৫
১৯ °সে

‘একটি প্রচার মাধ্যমের প্রতিটি মিনিটই গুরুত্বপূর্ণ’

‘একটি প্রচার মাধ্যমের প্রতিটি মিনিটই গুরুত্বপূর্ণ’
বরেণ্য গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব হানিফ সংকেত। ছবি : ইত্তেফাক

এদেশে মাত্র একটি অনুষ্ঠান নির্মাণ করে সর্বাধিক দর্শকদের আকাঙ্ক্ষায় পৌঁছানোর ঘটনা বিরল। সেই বিরলতম কাজটি করেছেন দেশের বরেণ্য গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব হানিফ সংকেত। বছরে সবচেয়ে কম অনুষ্ঠান নির্মাণ করেও দর্শকদের অনুভূতিতে বেশি নাড়া দেওয়া যায় তা দারুণভাবে দেখিয়েছেন তিনি। আজ দেশের সেই সবচেয়ে জনপ্রিয় অনুষ্ঠান ইত্যাদি প্রচার হবে রাত ৮টার বাংলা সংবাদের পর বিটিভিতে। বর্তমান দেশের গণমাধ্যম প্রাসঙ্গিকতা নিয়ে কথা বলেছেন বিনোদন প্রতিদিনের সাথে। সাক্ষাত্কার নিয়েছেন তানভীর তারেক

টেকেরঘাট অত্যন্ত দুর্গম একটি এলাকা। এছাড়া অনেকের কাছেই স্থানটি অপরিচিত, তারপরও ইত্যাদির জন্য আপনি কেন এই স্থানটিকে বেছে নিলেন?

ইত্যাদি সবসময়ই বৈচিত্র্য খুঁজতে চেষ্টা করে। অজানাকে জানা এবং জানাবার চেষ্টা করে। টেকেরঘাটের সৌন্দর্য আমাদের মুগ্ধ করেছে। পাহাড়, নদী, লেক, ঝরনা, টিলা এবং হাওড় বেষ্টিত এই অঞ্চলটি দেখলে মনে হবে প্রকৃতি যেন উদার হস্তে এই স্থানটিকে সাজিয়েছে। অনেকে এই স্থানটিকে বাংলাদেশের সুইজারল্যান্ড বলে অভিহিত করেন। কর্তৃপক্ষ নজর দিলে আর যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতি হলে এই স্থানটি হতে পারে বাংলাদেশের অন্যতম প্রধান একটি পর্যটন কেন্দ্র।

ইত্যাদিতে সবসময় সাম্প্রতিক বিষয় নিয়ে বিভিন্ন পর্ব করা হয়। দেশে এখন নির্বাচনী হাওয়া বইছে, এবারের অনুষ্ঠানে নির্বাচন নিয়ে কী কোনো পর্ব রয়েছে?

জনগণের দ্বারা-জনগণ থেকে-জনগণের জন্যে প্রতিনিধি পাওয়ার একমাত্র উপায় নির্বাচন। বলা হয় ‘জনগণই সকল ক্ষমতার উত্স’। সেই উেসর যুত্সই ব্যবহারের সময় হলো নির্বাচন। আর এই নির্বাচনে নির্বাচিত হতে হবে যোগ্য প্রার্থীদের। এবারের ইত্যাদিতে দর্শক পর্বের মাধ্যমেও আমরা বলেছি, ‘সত্ এবং যোগ্য লোক-এটাই সবার লক্ষ্য হোক।’

সাম্প্রতিক সময়ে এসডিজি বাস্তবায়নে নাগরিক প্লাটফর্ম, বাংলাদেশ আয়োজিত ‘যুব সম্মেলন ২০১৮’-তে উপস্থিত তরুণ-তরুণীদের উদ্দেশ্যে আপনার প্রেরণামূলক বক্তব্যটি ভাইরাল হয়েছে। আপনার কাছে কি মনে হয়, আমাদের তরুণ সমাজ কতটা সম্ভাবনাময়?

এ দেশের বড় সম্পদ তারুণ্য শক্তি। একাত্তরে আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধে ৮০ ভাগের বেশি ছিলেন তরুণ, যাদের বয়স ছিল ৪০-এর নিচে। শিক্ষায়, গবেষণায়, ক্রীড়ায়, উদ্ভাবনে পৃথিবীর বিভিন্ন স্থানে মেধার স্বাক্ষর রাখছে আমাদের ছেলেমেয়েরা। সুতরাং আজকের তরুণরাই আগামীর কর্মবীর। আর এই তরুণদের অনেক সফলতার চিত্রও বহুবার তুলে ধরেছি ইত্যাদির মাধ্যমে। আজকের অনুষ্ঠানেও আছে কিছু তরুণের সততা ও নিষ্ঠার ভিন্নরকম কাজের চিত্র।

প্রতিবারই নিত্য-নতুন বিষয় দিয়ে ইত্যাদিকে সাজান। এবার বিশেষ কি কি থাকছে?

থাকছে সুনামগঞ্জের ইতিহাস, ঐতিহ্য, দর্শনীয় স্থানগুলোর ওপর রিপোটিং। এ মাসেই প্রথমবারের মতো সুনামগঞ্জের তাহেরপুরে প্রত্নতাত্ত্বিক খনন কাজ শুরু হয়েছে এবং এখানে লাউড়ের গড় রাজ্যের রাজধানীর সন্ধান পাওয়া যাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। যে সভ্যতা হাজার বছরের আগের। এছাড়াও থাকছে টাঙ্গুয়ার হাওড়, শিমুল বাগান, টেকেরঘাট, শহীদ সিরাজ লেক, বারেকের টিলা, জাদুকাটা নদীর সৌন্দর্য। রয়েছে এই অঞ্চলের চারজন লোক সাধকের ওপর সরেজমিন প্রতিবেদন। জার্মান প্রবাসী শৌখিন দূরপাল্লার দৌড়বিদ শিব শংকর পাল, ঘড়ি সংগ্রাহক মাইনুল মাজেদীন, দক্ষিণ আফ্রিকার ওপর একটি তথ্যবহুল প্রতিবেদন এবং ক’জন তরুণের মানবিক কাজের ওপর রয়েছে একটি রিপোটিং। এছাড়াও বিষয়ভিত্তিক গান, নাচ এবং ইত্যাদির নিয়মিত পর্ব তো আছেই।

এই ডিজিটাল যুগেও টিভিতে, ইউটিউবে, সোশ্যাল মিডিয়ায় উপস্থাপক এবং নির্মাতা হিসেবে আপনি সেরা। আপনার অনুষ্ঠানটিও দেশসেরা। আপনি কী মনে করেন আপনার যথাযথ মূল্যায়ন হচ্ছে?

এই প্রশ্নের উত্তর আমি বহুবার দিয়েছি। প্রথম কথা হচ্ছে, আমরা মূল্যায়নের জন্য অনুষ্ঠান করি না। বলতে পারেন পুরস্কার-মূল্যায়ন এগুলোর ধার ধারি না। মানুষ আমাকে ভালোবাসেন, ইত্যাদিকে ভালোবাসেন, আমার অনুষ্ঠান দেখার জন্য অপেক্ষা করেন—এর চাইতে আর বড় পুরস্কার কী? আজকাল পয়সা দিলে, চ্যানেল থাকলে, লাইন থাকলে, তোষামোদি চরিত্র থাকলে, লেজুড়বৃত্তি করলে অনেক পুরস্কার পাওয়া যায়। গবেষণা করানো যায়, ফেলো হওয়া যায়। আর যদি নিজের চ্যানেল থাকে, তাহলে তো কথাই নেই! ছোটখাট বিষয়কে বিশাল করে প্রচার করা যায়। এ জন্যই এদের বলে প্রচার কাঙাল। এখানে যোগাযোগ এবং ক্ষেত্র বিশেষে দেওয়া-নেওয়াটাই মুখ্য।

ইত্যাদি নিয়ে মানুষের এই যে বিশাল প্রত্যাশা। এই প্রত্যাশার চাপকে এত বছর ধরে কিভাবে সামাল দিচ্ছেন?

আমাদের আন্তরিকতা দিয়ে, সততা দিয়ে। আমরা দীর্ঘদিন গবেষণা করে একটি অনুষ্ঠান নির্মাণ করি। দর্শকরা অনুষ্ঠানটি দেখার জন্য সময় বের করেন। আমরাও তাদের সেই সময়ের মূল্য দিতে চেষ্টা করি। আমাদের মনে রাখতে হবে, একটি প্রচার মাধ্যমের প্রতিটি মিনিটই অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আর সেকারণেই দীর্ঘ তিন দশক ধরে মানুষের ভালোবাসায় সিক্ত হয়ে ইত্যাদি দর্শক পছন্দের শীর্ষে অবস্থান করছে।

ইত্তেফাক/ইউবি

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১০ ডিসেম্বর, ২০১৮
আর্কাইভ
 
বেটা
ভার্সন