লাইফস্টাইল | The Daily Ittefaq

সাজানো স্নানঘর

সাজানো স্নানঘর
কড়চা ডেস্ক০২ মে, ২০১৮ ইং ১১:৪১ মিঃ
সাজানো স্নানঘর
নিজের রুচি আর পছন্দের সঙ্গে মিল রেখে আপনার বাথরুমটি যেন হয়ে ওঠে আপনার ব্যক্তিগত অভিরুচির পট প্রকল্প। ঘরের সার্বিক অবস্থার সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখেই আপনার স্নানঘর অর্থাৎ বাথরুমটিকে সাজাতে হবে। রোজকার জীবনে স্নানঘরই হলো আপনার এক ফালি বিলাসিতা। তাই তার সাজ নিয়ে অযত্ন করা কি চলে? তাই স্নানঘর বড় হোক কিংবা ছোট নিজের বাজেট অনুযায়ী কী করে আকর্ষণীয় করে তুলবেন তা নিয়ে এবারের আয়োজন—
 
এক বা দুই বেডরুমের ছোট ফ্ল্যাটের স্নানঘরে বিলাসিতার সাজসজ্জার তেমন পরিসর নেই। তবে ওই ছোট জায়গাটির মধ্যেই সাজিয়ে নিয়ে দিব্যি একটা ডিজাইনার লুক দেওয়া যায়। এর জন্য পকেট থেকে যা খরচ করবেন তার চেয়েও বেশি খরচা করতে হবে বুদ্ধি। ছোট বাথরুমের স্টোরেজ খুব গুরুত্বপূর্ণ। ওয়াশ বেসিনের নিচে কয়েকটা তাক বানিয়ে নিলেন। সেখানে রাখলেন জরুরি জিনিসপত্র। ওয়াশ বেসিনের লাগোয়া দেওয়ালে তো আয়না থাকেই। আয়নার ফ্রেম, বাজার চলতি প্লাস্টিক বা ফাইবার না বেছে রট আয়রনের হোক। আয়নার দু’পাশে রট আয়রনেরই বাহারি তাক লাগান। সেখানে রাখতে পারেন কিছু ডেকরেটিভ শো পিস। বাথরুমের দরজায় কিছু সুন্দর ছবিও লাগাতে পারেন। আর বাথরুম পরিষ্কারের সরঞ্জামগুলো অনেকেই কমোডের উপরে জানলার বাড়তি জায়গায় রাখেন, যা দেখতে অতি বিশ্রী লাগে। এই সমস্ত জিনিস রাখার জন্য কমোডের উপরেই একটা ক্যাবিনেট বানিয়ে নিন। আর জানলায় বরং ছোট টবে কোনও ইন্ডোর প্ল্যান্টস রাখুন। বাথরুমে একটাই হালকা উজ্জ্বল রঙের আলো রাখুন।
 
 
বাথরুমের আকার যদি বড় হয় তবে তো কথাই নেই। মন খুলে সাজাতে পারেন আপনার একান্ত বিলাসিতার জায়গাটি। চাইলে ছোট আকারের একটা ঘরোয়া স্পা বানিয়ে নিতে পারেন। সবই নির্ভর করবে আপনার বাজেটের উপর। তবে জায়গা বড় হলেই একগাদা জিনিস রেখে বাথরুমটাকে স্টোররুম বানিয়ে ফেলবেন না। যেহেতু অনেকটা জায়গা পাচ্ছেন তাই প্রয়োজনীয় জিনিস রাখার জন্য বানিয়ে নিন একটা বড়সড় ক্যাবিনেট। ওয়াশবেসিনের পাশেই একটা কাউন্টারের ব্যবস্থা করুন। সেখানে স্নান প্রসাধনীর পাশাপাশি রাখতে পারেন বড় কোনো শোপিস। বাথরুম যখন বড় তখন একটা বাথটাব তো থাকবেই। হ্যান্ডশাওয়ারের পাশাপাশি আরামে স্নান করতে করতে যাতে গান শুনতে পারেন তার জন্য উপযুক্ত মিউজিক সিস্টেমের ব্যবস্থা রাখতে পারেন। বাথরুমের দেওয়াল সাজাতে পারেন ওয়াল হ্যাঙ্গিং, পেইন্টিং, বা ডেকরেটিভ পিস দিয়ে। স্নানের জায়গা কমোডের থেকে আলাদা করতে কার্টন শাওয়ার মাস্ট। বড় বাথরুমেও কিন্তু রাখতে পারেন এক বা একাধিক ইন্ডোর প্ল্যান্টস। এমনি হালকা রঙের আলোর পাশাপাশি চাইলে এক কোণে একটু ডেকরেটিভ আলোর ব্যবস্থা করতেই পারেন। তবে সেটা বাথটাবের কাছাকাছি হলেই ভালো হয়।
 
বাথরুমের দেওয়ালের অধিকাংশ জায়গায় টালি বসানো থাকে। তবে যেটুকু জায়গায় রং করতে হবে, সেখানে জল নিরোধক রং লাগান। হালকা কোনো রং বা প্যাস্টেল শেড আদর্শ স্নান ঘরের রং হিসেবে। তবে তা যেন দেওয়ালের টালির রঙের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ হয়। বাথরুমের জন্য উডেন কালার আজকাল হট ট্রেন্ড। হালকা রঙের সঙ্গে এই রং ভারি মানিয়ে যায়। সেই অনুযায়ী বাছুন ক্যাবিনেট, অ্যাকসেসরিজ, যাবতীয় সাজসরঞ্জামের রঙও। মেঝেতে হালকা রঙের মার্বেল করিয়ে নিতে পারেন, যা জলে অনেকদিন টিকবে।
 
এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:৩২
যোহর১১:৫২
আসর৪:১৪
মাগরিব৫:৫৮
এশা৭:১১
সূর্যোদয় - ৫:৪৭সূর্যাস্ত - ০৫:৫৩