লাইফস্টাইল | The Daily Ittefaq

অতিরিক্ত পরিচ্ছন্নতাই কি শিশুদের ক্যান্সারের কারণ

অতিরিক্ত পরিচ্ছন্নতাই কি শিশুদের ক্যান্সারের কারণ
ইত্তেফাক ডেস্ক২৪ মে, ২০১৮ ইং ০৪:১৫ মিঃ
অতিরিক্ত পরিচ্ছন্নতাই কি শিশুদের ক্যান্সারের কারণ
আগে মানুষ মনে করতো শুধু বয়স্কদেরই ক্যান্সার হয়। কিন্তু সমপ্রতি গণমাধ্যমের অনেক খবরে শিশুদের ক্যান্সারের কথাও উঠে আসছে। শিশুদের ক্যান্সারের মধ্যে রয়েছে লিউকোমিয়া বা ব্লাড ক্যান্সার। গবেষণায় উঠে এসেছে, প্রতি দুই হাজার শিশুর মধ্যে গড়ে একজনের এই ধরনের ক্যান্সারে আক্রারে হওয়ার আশঙ্কা থাকে। শিশুদের এই ক্যান্সারের কারণ সম্পর্কে গবেষকরা এবার এমনই একটি কারণের কথা বলেছেন যা রীতিমতো অবাক করার মতো। গবেষকদের মতে, আধুনিক যুগের অত্যন্ত পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন পরিবেশে শিশুদের বড় হওয়ার কারণেই নাকি ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বেড়ে যায়। জীবাণুমুক্ত পরিবেশে বড় হওয়ার কারণে শিশুর দেহে রোগপ্রতিরোধ ব্যবস্থা যখাযথভাবে তৈরি হতে পারে না।
 
যুক্তরাজ্যের একজন নেতৃস্থানীয় ক্যান্সার বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক মেল গ্রিভস বলেছেন, আধুনিক   যুগের ‘জীবাণুমুক্ত’ জীবন শিশুদের লিউকোমিয়ার ঝুঁকি বাড়িয়ে দিচ্ছে। ইনস্টিটিউট অব ক্যান্সার রিসার্চের এই বিজ্ঞানী বলছেন, ৩০ বছরের তথ্য-উপাত্ত পরীক্ষা করে দেখা যাচ্ছে, মানুষের দেহের রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থার যদি শিশু বয়সে যথেষ্ট পরিমাণে জীবাণু মোকাবিলার অভিজ্ঞতা' না হয়, তাহলে তা দেহে ক্যান্সার তৈরি করতে পারে।
 
একিউট লিম্ফোব্লাস্টিক লিউকেমিয়া নামের যে ব্লাড ক্যান্সার তা প্রধানত উন্নত এবং ধনী সমাজগুলোয় দেখা যায় - যার অর্থ হলো আধুনিক জীবনযাপনের সাথে এর একটা সম্পর্ক আছে। অতীতে ক্যান্সারের কারণ হিসেবে বিচিত্র সব তত্ত্ব দেয়া হয়েছে যেমন - বৈদ্যুতিক কেবল, তড়িত্-চৌম্বকীয় তরঙ্গ এবং রাসায়নিক পদার্থকে ক্যান্সারের কারণ বলে দাবি করা হয়েছে। তবে সর্বশেষ এই জরিপে এসব তত্ত্ব নাকচ করে দেয়া হয়েছে।
 
অধ্যাপক গ্রিভস বলছেন, এ গবেষণায় আমরা জোরালো আভাস পাচ্ছি যে লিম্ফোব্লাস্টিক লিউকেমিয়ার একটা বায়োলজ্যিকাল কারণ আছে এবং কোন শিশুর রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থা যদি সংক্রমণ মোকাবিলার জন্য যথাযথভাবে তৈরি না হয়ে থাকে তাহলে তার দেহে লিউকেমিয়া দেখা দিতে পারে। উদাহরণ হিসেবে তারা বলেন, ইতালির মিলানে সোয়াইন ফ্লু ছড়িয়ে পড়ার পর সাতটি শিশুর লিউকেমিয়অ দেখা দেয়। যাদের বড় ভাই-বোন রয়েছে তাদের মধ্যে লিউকোমিয়ার হার কম। এছাড়া যে শিশুরা মায়ের বুকের দুধ খায় তাদেরও লিউকোমিয়ার হার কম। মায়ের দুধের কারণে এসব শিশুদের অন্ত্রে উপকারী ব্যাকটেরিয়া তৈরি হয়। যেসব শিশুদের স্বাভাবিক জন্ম হয় তাদেরও লিউকেমিয়ার হার কম। কারণ তারা মায়ের দেহ থেকে বেশি অণুজীব নিয়ে জন্ম নেয়।
 
অন্যদিকে যেসব শিশুরা মাইক্রোব বা অণুজীব-বিহীন পরিবেশে জন্ম নেয় তাদের কোন কোন সংক্রমণ হলে তা লিউকেমিয়ার সৃষ্টি করেছে। তবে প্রফেসর গ্রিভস পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা নিয়ে আতঙ্কিত না হওয়ার পরামর্শ দিয়ে বলেছেন, এর অর্থ অবশ্য এই নয় যে যে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন অভিভাবকদের লিউকেমিয়ারয জন্য দোষ দেয়া হচ্ছে। তার মতে, শিশুদের বাবা-মায়ের উচিত হবে সাধারণ সংক্রমণ নিয়ে বেশি চিন্তিত না হওয়ার, অন্য বাচ্চাদের সঙ্গে মেলামেশা করতে দেওয়া যাতে সঠিকভাবে তাদের দেহে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি হতে পারে।-বিবিসি
এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:২৯
যোহর১১:৫৩
আসর৪:১৭
মাগরিব৬:০৩
এশা৭:১৬
সূর্যোদয় - ৫:৪৫সূর্যাস্ত - ০৫:৫৮