বাংলাদেশ | The Daily Ittefaq

মানুষ ক্ষুধার্ত থাকলে সোনার বাংলাদেশ গড়া সম্ভব হবে না

মানুষ ক্ষুধার্ত থাকলে সোনার বাংলাদেশ গড়া সম্ভব হবে না
জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানদের শপথ অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী
বিশেষ প্রতিনিধি১২ জানুয়ারী, ২০১৭ ইং ০১:২৯ মিঃ
মানুষ ক্ষুধার্ত থাকলে সোনার বাংলাদেশ গড়া সম্ভব হবে না

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যানদের দেশ ও জাতির কল্যাণে সততা-নিষ্ঠা ও নিবেদিতপ্রাণ হয়ে কাজ করার নির্দেশ দিয়ে বলেছেন, আমি চাই সততা, নিষ্ঠা, একাগ্রতার সাথে আপনারা দায়িত্ব পালন করবেন। আমাদের মূল লক্ষ্য হবে জনগণের সেবা করা। প্রতিটি উন্নয়ন কাজ যাতে সঠিকভাবে বাস্তবায়িত হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। মানুষের সেবা ও উন্নয়নে জেলা পরিষদের হাতে পর্যাপ্ত ক্ষমতা থাকবে। বাংলাদেশকে ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত সোনার বাংলাদেশ গড়ে তোলাই আমাদের লক্ষ্য। দেশের মানুষ যদি ক্ষুধার্ত ও অশিক্ষিত থাকে, তা হলে সোনার বাংলাদেশ গড়া কখনোই সম্ভব হবে না।

 
গতকাল বুধবার সকালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যানদের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে তিনি এ সব কথা বলেন। প্রথমবারের মতো নির্বাচিত ৫৯ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান দেশবাসীর দায়িত্ব পালনের শপথ গ্রহণ করেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাদের শপথ বাক্য পাঠ করান। অনুষ্ঠানে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী খোন্দকার মোশাররফ হোসেন এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের উপস্থিত ছিলেন। এলজিআরডি সচিব আব্দুল মালেক অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন। মন্ত্রী পরিষদের সদস্যবৃন্দ, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টাবৃন্দ, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকবৃন্দ এবং উচ্চপদস্থ সরকারি কর্মকর্তাগণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। প্রসঙ্গত, ২০০০ সালে সংশ্লিষ্ট জেলা পরিষদ আইনটি পাসের ১৬ বছর পর গত ২৮ ডিসেম্বর ৫৯টি জেলা পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। জেলা পরিষদের ১৩১ বছরের ইতিহাসে এটিই ছিল প্রথম সরাসরি নির্বাচন। আইনি জটিলতার কারণে কুষ্টিয়া ও বগুড়া জেলা পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়নি। প্রতি জেলায় একজন করে চেয়ারম্যান, ১৫ জন সাধারণ সদস্য ও পাঁচজন সংরক্ষিত সদস্য নির্বাচিত হন এ নির্বাচনে। জেলা পরিষদের নির্বাচিত সদস্যদের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান আগামী ১৮ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে।
 
জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানদের শপথ বাক্য পাঠ করানোর পর প্রধানমন্ত্রী দেশে বিভিন্ন ক্ষেত্রে উন্নয়নের কথা তুলে ধরে নবনির্বাচিত চেয়ারম্যানদের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনাদের মনে রাখতে হবে— এ দেশের মানুষ দীর্ঘদিন শোষিত-বঞ্চিত-নিপীড়িত ছিল। ১৯৭৫ সালে জাতির পিতাকে হত্যার পর থেকে মানুষের ভাগ্য নিয়ে ছিনিমিনি খেলা হয়েছিল। আপনাদের ওপর এটাই দায়িত্ব থাকবে যে, প্রতিটি উন্নয়নের কাজ যেন যথাযথভাবে বাস্তবায়ন হয়।
 
প্রধানমন্ত্রী আক্ষেপ করে বলেন, যদি ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির জীবনে না আসতো তা হলে বাংলাদেশ আরো ২৫-৩০ বছর আগেই সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে গড়ে উঠত। জাতির পিতা সেই কাজ সম্পন্ন করতেন। দুর্ভাগ্যজনকভাবে তিনি সেই কাজ সম্পন্ন করে যেতে পারেননি। কাজেই দায়িত্ব এখন  আমাদের কাঁধে।
 
বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানদের শ্রদ্ধা নিবেদন
 
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন নবনির্বাচিত জেলা পরিষদের চেয়ারম্যানরা। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে শপথ গ্রহণ শেষে দুপুরে ধানমন্ডিস্থ বঙ্গবন্ধু ভবনের সামনে রক্ষিত বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যানরা ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এ সময় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের উপস্থিত ছিলেন।

ইত্তেফাক/এএন

এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
২৯ মে, ২০১৭ ইং
ফজর৩:৪৫
যোহর১১:৫৬
আসর৪:৩৫
মাগরিব৬:৪৩
এশা৮:০৬
সূর্যোদয় - ৫:১১সূর্যাস্ত - ০৬:৩৮