জাতীয় | The Daily Ittefaq

২০ উপজেলায় ভিশন সেন্টারের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

২০ উপজেলায় ভিশন সেন্টারের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী
গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি২৯ আগষ্ট, ২০১৮ ইং ১৪:৫২ মিঃ
২০ উপজেলায় ভিশন সেন্টারের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী
 
ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গোপালগঞ্জসহ আশপাশের ৮টি জেলার ২০টি উপজেলায় কমিউনিটি ভিশন সেন্টারের উদ্বোধন করেছেন। আজ বুধবার সকাল ১০ টায় গণভবন থেকে   ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা  গোপালগঞ্জ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা চক্ষু হাসপাতাল ও ট্রেনিং ইনস্টিটিউটে সংযোগ স্থাপন করে কমিউনিটি ভিশন সেন্টারের উদ্বোধন করেন।
 
অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী  মোহাম্মদ নাসিম শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন। অন্যান্যের মধ্যে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সাবেক মহা-পরিচালক চক্ষু বিশেষজ্ঞ প্রফেসর ডা. দ্বীন মোহাম্মদ, গোপালগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মোখলেসুর রহমান সরকারসহ আরো অনেকে বক্তব্য রাখেন। এ সময় ভারতের তামিল নাড়ুর মাধুরাই অরবিন্দ চক্ষু হাসপতালের চেয়ারম্যান আরডি রবীন্দ্রম, বাংলাদেশ চক্ষু বিজ্ঞান ইনস্টিটিউটের পরিচালক প্রফেসর ডা. গোলাম মোস্তফা, গোপালগঞ্জ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা চক্ষু হাসপাতালের পরিচালক প্রফেসর ডা. সাইফুদিন আহমেদ, গোপালগঞ্জের পুলিশ সুপার মুহাম্মদ সাইদুর রহমান খান, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি চৌধুরী এমদাদুল হক, সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব আলী খান সহ আরো অনেকে উপস্থিত ছিলেন।
 
স্বাস্থ্য মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেন, প্রধানমন্ত্রীর মানবিক উদ্যোগে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষ চক্ষু সেবা পাচ্ছেন। অনেকে ফিরে পাচ্ছেন চোখের আলো। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে দেশ সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। দেশের সব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এটি চালু করে চক্ষু সেবা প্রতিটি মানুষের ঘরে পৌঁছে দেয়া হবে।
 
বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা চক্ষু হাসপাতালের পরিচালক প্রফেসর ডা. সাইফুদিন আহমেদ বলেন, ভারতের তামিল নাড়ুর মাধুরাই অরবিন্দ চক্ষু হাসপাতালের সহযোগিতায়  গোপালগঞ্জ  বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা চক্ষু হাসপাতাল ও ট্রেনিং ইনস্টিটিউট থেকে বাংলাদেশে কমিউনিটি ভিশন সেন্টার আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু করেছে। প্রধানন্ত্রী এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেছেন।
 
তিনি আরো বলেন, ২০ টি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ভিশন সেন্টার স্থাপন করা হয়েছে। এখান  থেকে গরীব অসহায় রোগীরা বিনামূল্যে অনলাইনে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা চক্ষু হাসপাতালের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ পাবেন। ঘরে বসেই তারা চক্ষু সেবা পাবে। এতে গরীব ও অসহায় রোগীদের যাতায়াত খরচ সাশ্রয় হবে। পাশাপাশি  বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা চক্ষু হাসপাতালে এসে এসব রোগী চোখের সব ধরণের চিকিৎসা, ছানি, নেত্রনালী সহ অন্যান্য অপারেশনের সুযোগ পাবেন।
 
ভারতের তামিল নাড়ুর মাধুরাই অরবিন্দ চক্ষু হাসপতালের চেয়ারম্যান আরডি রবীন্দ্রম বলেন, ২০১৭ সালে এ চক্ষু হাসপাতালের সাথে আমাদের চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। সেই আলোকে আমরা অনলাইন ভিশন সেন্টার স্থাপনে কারিগরি সহ অন্যান্য সব ধরনের সহযোগিতা করেছি। ভিশন সেন্টারের নার্সদের  মাধুরাইতে ট্রেনিং দিয়েছি। এ সেন্টার তৃনমূল পর্যায়ের মানুষের চক্ষু সেবাকে সহজ করে দেবে।
 
ইত্তেফাক/মোস্তাফিজ
এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:৩১
যোহর১১:৫২
আসর৪:১৫
মাগরিব৫:৫৯
এশা৭:১২
সূর্যোদয় - ৫:৪৬সূর্যাস্ত - ০৫:৫৪