জাতীয় | The Daily Ittefaq

আগামী মাসে ঢাকায় বসবে ইভিএম মেলা

আগামী মাসে ঢাকায় বসবে ইভিএম মেলা
সাইদুর রহমান১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং ০২:০৪ মিঃ
আগামী মাসে ঢাকায় বসবে ইভিএম মেলা
আগামী মাসে বড় পরিসরে ঢাকায় ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) মেলার আয়োজন করতে যাচ্ছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। ইভিএম মেলা আয়োজন সংক্রান্ত এক সভায় জাতীয় সংসদের ৩০০ আসনের প্রত্যেকটিতে অন্তত একটি করে ভোটকেন্দ্রে ইভিএম ব্যবহারের প্রস্তুতি নিতে বলা হয়েছে। এতে আগামীতে সকল উপজেলা ও সিটি করপোরেশন নির্বাচনেও ইভিএম ব্যবহারের প্রস্তুতি নিতে বলা হয়। ইতিমধ্যে মেলা উপলক্ষে কর্মসূচি বাস্তবায়ন ও সমন্বয় কমিটি গঠন করেছে ইসি। দুই দিনব্যাপী ইভিএম মেলায় লোকসমাগম ঘটাতে ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করছে ওই কমিটি। জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগের (এনআইডি) মহাপরিচালককে এ মেলার আয়োজনের সার্বিক দায়িত্ব প্রদান করা হয়েছে। ইভিএমের এই প্রদর্শনীতে আমন্ত্রণ জানানো হচ্ছে বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের। কিন্তু ইসির মূল অংশীজন রাজনৈতিক দলকে সেখানে আমন্ত্রণ জানানো হচ্ছে না।
 
ইভিএম মেলা বাস্তবায়নের জন্য গত ২৮ আগস্ট সভার আয়োজন করা হয়। ওই সভায় নির্বাচন কমিশনের সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, আগামীতে সকল উপজেলা, সিটি করপোরেশন এবং সংসদের ৩০০ আসনের প্রতিটিতে অন্তত একটি করে কেন্দ্রে ইভিএম ব্যবহার করলে আমাদের এখন থেকেই প্রস্তুতি গ্রহণ করতে হবে। তাছাড়া আগামী অক্টোবর মাসে অনুষ্ঠিতব্য উন্নয়ন মেলায় নির্বাচন অফিসের স্টলসমূহ যাতে ইভিএম প্রদর্শন করতে পারে সে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে এনআইডির ডিজিকে অনুরোধ জানান সচিব।
 
সভার কার্যবিবরণী থেকে জানা যায়, ১৫ অক্টোবরের মধ্যে সুবিধাজনক সময়ে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ইভিএম প্রদর্শনী মেলা অনুষ্ঠানের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। বিভিন্ন জাতীয় দৈনিক, টেলিভিশন, ওয়েবসাইট এবং ফেসবুকের মাধ্যমে মেলা সম্পর্কে ব্যাপক প্রচারণা চালানো হবে। এজন্য ইসির ওয়েবসাইটে রেজিস্ট্রেশন পেইজ খোলা হবে। প্রথমদিন উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পর রাত নয়টা পর্যন্ত মেলা চলবে। দ্বিতীয় দিন সকাল ৯টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত মেলা সর্বসাধারণের জন্য উন্মুক্ত থাকবে। সভায় বড় বড় কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়কে পত্র দিয়ে শিক্ষার্থীদের মেলায় অংশ নেয়ার জন্য আহ্বান জানানোর সিদ্ধান্ত হয়। এছাড়া ঢাকা মহানগরীর থানা নির্বাচন অফিসসমূহ সিটি করপোরেশনে ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের মাধ্যমে প্রতিটি ওয়ার্ড হতে ১০-১৫ জনের বিভিন্ন বয়সী ভোটারদের একটি করে গ্রুপকে মেলায় আনার জন্য ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত হয়। ওইসব ব্যক্তির জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর আগেই ইসির আইটি শাখায় পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। বিষয়টি সম্পর্কে ঢাকা মেট্রোপলিটন এলাকার থানা নির্বাচন অফিসারগণ তথ্য দেবে এবং ঢাকা জেলার নির্বাচন অফিসার তা নিশ্চিত করবেন। মেলার খরচ ডাটা শেয়ারিং চুক্তিবদ্ধ প্রতিষ্ঠানসমূহের কাছ থেকে গ্রহণ করা হবে।
 
ওই বৈঠকে সচিব বলেন, বিশ্ব আজ ক্রমাগতভাবে নতুন নতুন তথ্য প্রযুক্তি গ্রহণ করছে তাই আস্তে আস্তে আমাদেরকে নির্বাচনী ব্যবস্থায় প্রযুক্তির ব্যবহার শুরু করতে হবে। সভায় উপস্থিত একাধিক কমকর্তার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, রাজনৈতিক দলগুলোকে মেলায় আমন্ত্রণের বিষয়ে কোনো আলোচনা হয়নি। মেলা সকলের জন্য উন্মুক্ত থাকবে। সেখানে চাইলে রাজনৈতিক দলগুলো অংশ নিতে পারবে। তবে সেখানে কোনো পরামর্শ গ্রহণ বা আপত্তি জানানোর কোনো সুযোগ থাকবে না।
 
গত ৩০ আগষ্ট ইসির সভায় আরপিও সংশোধন করে ইভিএম ব্যবহারের সুযোগ রাখা হয়। যদিও নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার নোট অব ডিসেন্ট দিয়ে কমিশন সভা বর্জন করেন। কমিশন সভা শেষে নির্বাচন ভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদা বলেন, আগামী নির্বাচনে কতটি আসনে ইভিএম ব্যবহার হবে কমিশন সে সিদ্ধান্ত নেয়নি। আইন যদি পাস করে পার্লামেন্ট, তারপর আমরা প্রদর্শনী করব। সেখানে স্টেকহোল্ডারদের সম্মতি যদি থাকে তাহলে কমিশন সেটা নিয়ে বসবে। পরিবেশ পরিস্থিতি যদি অনুকূলে থাকে তাহলে ইভিএম ব্যবহার হবে। 
 
ইত্তেফাক/নূহু
এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:৩২
যোহর১১:৫২
আসর৪:১৪
মাগরিব৫:৫৮
এশা৭:১১
সূর্যোদয় - ৫:৪৭সূর্যাস্ত - ০৫:৫৩