রাজনীতি | The Daily Ittefaq

সামনের নির্বাচনই হয়তো আমার জীবনের শেষ নির্বাচন হতে পারে: এরশাদ

সামনের নির্বাচনই হয়তো আমার জীবনের শেষ নির্বাচন হতে পারে: এরশাদ
রংপুর অফিস২২ আগষ্ট, ২০১৮ ইং ১৯:০২ মিঃ
সামনের নির্বাচনই হয়তো আমার জীবনের শেষ নির্বাচন হতে পারে: এরশাদ
ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য ও ত্যাগের মহিমায় রংপুরে উদযাপিত হচ্ছে পবিত্র ঈদুল আজহা। রংপুর মহানগরীর কালেক্টরেট ঈদগাহ ময়দানে সকাল সাড়ে আটটায় সাবেক রাষ্ট্রপতি জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের শীর্ষ স্থানীয় নেতাকর্মী ও প্রশাসনের উদ্ধর্তন কর্মকর্তাসহ প্রায় বিশ হাজার মুসল্লি পবিত্র ঈদুল আজহার নামাজ জামাতে আদায় করেন।
 
নামাজ শুরুর আগে রংপুরসহ পুরো দেশবাসীকে ঈদুল আজহার শুভেচ্ছা জানান এরশাদ। এ সময় তিনি বলেন, সামনে জাতীয় সংসদ নির্বাচন। আমি রংপুর সদর আসন থেকে নির্বাচন করব। আপনারা আমাকে ভোট দিয়ে নতুন জীবন দিয়েছেন। আমি আপনাদের ঋণ কোন দিনও শোধ করতে পারব না। সামনের নির্বাচনই হয়তো আমার জীবনের শেষ নির্বাচন হতে পারে। এজন্য আমি আপনাদের পাশে থেকে কিছু করতে চাই।
 
কোরবানির পশুর বর্জ্য সংরক্ষণ ও অপসারণে সিটি করপোরেশনের দায়িত্বরত কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ পরিচ্ছনতাকর্মীদের সহযোগিতা করতে নগরবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়ে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় করেন মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা।
 
এছাড়াও শুভেচ্ছা জানান, রংপুর বিভাগীয় কমিশনার কাজী হাসান আহম্মেদ, জেলা প্রশাসক এনামুল হাবীব ও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) রবিউল ইসলাম।
 
এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মমতাজ উদ্দিন আহমেদ, কেন্দ্রীয় জাতীয় পার্টির সাংগঠনিক সম্পাদক ও রংপুর মহানগরের সেক্রেটারি এসএম ইয়াছির, জেলা জাতীয় পার্টির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাজী আবদুর রাজ্জাক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাফিউল ইসলাম সাফি ও জাপা নেতা বারী মুন্সি প্রমুখ।
 
এর আগে সকাল আটটায় রংপুর পুলিশ লাইন ঈদগাহ মাঠে ঈদের নামাজের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। এতে রংপুরের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা, গণমাধ্যম কর্মীসহ প্রায় পাঁচ হাজার মুসল্লি ঈদের নামাজ আদায় করেন। সেখানে নগরবাসীকে ঈদ শুভেচ্ছা জানান নবাগত রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোহাম্মদ আবদুল আলীম মাহমুদ।
 
এদিকে রংপুর সিটি করপোরেশন এলাকাসহ রংপুর বিভাগের আট জেলায় ৭ হাজার ৩৩২টি স্থানে সকাল সাড়ে সাতটা থেকে সকাল সাড়ে দশটা পর্যন্ত পবিত্র ঈদুল আজহার নামাজের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। এরমধ্যে উপমহাদেশের সবচেয়ে বড় ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে দিনাজপুরের গোর-এ শহীদ বড় ময়দানে। এখানে প্রায় আড়াই লক্ষাধিক মানুষ ঈদের নামাজ আদায় করেন।
 
এছাড়া রংপুরের গঙ্গাচড়া উপজেলার আলমবিদিতর ঈদগাহ মাঠে ঈদের জামাতে অংশ নেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী মসিউর রহমান রাঙ্গা। সাবেক মন্ত্রী ও জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান জিএম কাদের লালমনিরহাটে ঈদের নামাজ আদায় করেন।
 
মিঠাপুকুরে সংসদ সদস্য আশিকুর রহমান, কাউনিয়ায় সংসদ সদস্য টিপু মুন্সি, বদরগঞ্জে সংসদ সদস্য আবুল কালাম মো. আহসানুল হক চৌধুরী ডিউকসহ আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সম্ভাব্য প্রার্থীরা নিজ নিজ নির্বাচনী এলাকাতে ঈদের জামাতে অংশ নেন।
 
ইত্তেফাক/আরকেজি
এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:৩২
যোহর১১:৫২
আসর৪:১৪
মাগরিব৫:৫৮
এশা৭:১১
সূর্যোদয় - ৫:৪৭সূর্যাস্ত - ০৫:৫৩