রাজনীতি | The Daily Ittefaq

‘‌গ্রেনেড হামলায় বিএনপি যে জড়িত তা প্রমাণ হয়ে যেতে পারে’

‘‌গ্রেনেড হামলায় বিএনপি যে জড়িত তা প্রমাণ হয়ে যেতে পারে’
অনলাইন ডেস্ক২৫ আগষ্ট, ২০১৮ ইং ১৬:৪৭ মিঃ
‘‌গ্রেনেড হামলায় বিএনপি যে জড়িত তা প্রমাণ হয়ে যেতে পারে’
ফাইল ছবি
একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলার রায় প্রসঙ্গে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আমরা আশা করি, বাস্তবতার নিরিখেই রায় হবে। বিচার বিভাগ তার স্বাধীন সিদ্ধান্ত দেবে, রায় দেবে। 
 
তিনি বলেন, এই ঘটনার সঙ্গে বিএনপি যে সরাসরি জড়িত তা প্রমাণ হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। আর এতে দণ্ডিত হতে পারেন দলটির অনেক শীর্ষস্থানীয় নেতা। তারা যদি কনভিকটেড (দণ্ডিত) হন, তাহলে সামনে জাতীয় নির্বাচনে তাদের অস্তিত্ব কিছুটা সংকটের মুখে পড়বে।
 
আজ শনিবার সকালে চট্টগ্রামের পতেঙ্গায় কর্ণফুলী নদীর তলদেশে টানেল নির্মাণকাজ পরিদর্শন শেষে তিনি এ কথা বলেন।
 
কোটা আন্দোলনে বিএনপিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের ইন্ধন ছিল জানিয়ে তিনি বলেন, আন্দোলনের শুরুটা বাইরের ইন্ধনে হয়নি। তবে পরে বাইরের ইন্ধন এবং উস্কানি যুক্ত হয়েছে।
 
ওবায়দুল কাদের বলেন, দুই কিশোর-কিশোরীর মৃত্যুর পর ছাত্র-ছাত্রীদের যে আন্দোলনটা হয়েছে, এটা একেবারে যুক্তিসঙ্গত। কিন্তু আন্দোলন যখন একটা পর্যায়ে গেছে, তখন শেষ সময়ে এসে ইন্ধন দেয়া হয়েছে। এটাকে রাজনৈতিক রূপ দেয়ার চক্রান্ত হয়েছে।
 
তিনি বলেন, আন্দোলন ছিল নিরীহ ছাত্রছাত্রীদের-ক্ষমতা দখলের জন্য ছিল না। কিন্তু বিএনপি ক্ষমতা দখলের জন্য নিরাপদ সড়কের আন্দোলনে নিরাপদ রাস্তা খুঁজছিল। তারা নিজেদের আন্দোলনে ব্যর্থতার পর শিক্ষার্থীদের ওপর ভর করেছিলেন।
 
কর্ণফুলী টানেল প্রকল্পের নির্মাণকাজ ২৪ শতাংশ ইতোমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে বলে জানিয়েছেন ওবায়দুল কাদের।
 
‘ওয়ান সিটি অ্যান্ড টু টাউন’ মডেলে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় কর্ণফুলী নদীর তলদেশে চার লেনের টানেলটি নির্মাণ করছে। প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে ১ হাজার ৫৫ দশমিক ৮৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। এর মধ্যে বাংলাদেশ সরকার ৩৫০ মিলিয়ন ডলার এবং চীন সরকার ৭০৫ দশমিক ৮৩ মিলিয়ন ডলার দেবে। ২০১৭ সালের ৫ ডিসেম্বর প্রকল্পের কাজ শুরু হয়। পাঁচ বছরের মধ্যে কাজ সম্পন্ন করার কথা রয়েছে।
 
মন্ত্রীকে নির্মাণাধীন প্রকল্পের বিভিন্ন অংশ দেখান উপ-প্রকল্প পরিচালক (প্রশাসন) ড. অনুপম সাহা। এ সময় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, উপ-প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এমএ সালাম, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমদ, সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
 
ইত্তেফাক/কেকে
এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:৩২
যোহর১১:৫২
আসর৪:১৪
মাগরিব৫:৫৮
এশা৭:১১
সূর্যোদয় - ৫:৪৭সূর্যাস্ত - ০৫:৫৩