ভবানীগঞ্জ-বান্দাইখাড়া রাস্তার বেহাল অবস্থা
বাগমারা (রাজশাহী) সংবাদদাতা১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং
ভবানীগঞ্জ-বান্দাইখাড়া রাস্তার বেহাল অবস্থা
জেলায় বাগমারা উপজেলার ভবানীগঞ্জ থেকে বান্দাইখাড়া হয়ে নওগাঁগামী পাকা রাস্তাটির বেহাল অবস্থা ও চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। কর্তৃপক্ষের অবহেলার কারণেই রাস্তাটির বেহাল অবস্থার সৃষ্টি হয়ে যানবাহন চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। ভবানীগঞ্জ-বান্দাইখাড়া পাকা রাস্তাটি সংস্কার না করায় এলাকার জনসাধারণ ও গাড়ি চলাচলে ব্যাপক সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে বলে এলাকার সাধারণ মানুষ জানিয়েছে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল (এলজিইডি) বিভাগের ২০০৭ সালে নির্মিত এই রাস্তাটি দিয়ে মিনি ট্রাক, পিকআপ, সিএনজি, অটোরিক্সা, নছিমনসহ বিভিন্ন ধরনের শতাধিক যানবাহন নিয়ে প্রতিদিন প্রায় চার থেকে পাঁচ হাজার লোক বাগমারা থেকে বান্দাইখাড়া হয়ে নওগাঁ সদরে যাতায়াত করে। রাস্তাটির বেহাল অবস্থার কারণেও চলাচল অযোগ্য হয়ে পড়ায় প্রায় প্রতিদিন কোনো না কোনো যানবাহন দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে। রাস্তাটিতে অসংখ্য খানা-খন্দে ভরে গেছে এবং উঠে গেছে পিচ। এছাড়া ছোট বড় মিলে রাস্তাটিতে প্রায় পাঁচ শতাধিক গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। বিভিন্ন যানবাহন এসব গর্তে পড়ে অহরহ ঘটছে দুর্ঘটনা।

স্থানীয় ব্যবসায়ীরা জানান, বান্দাইখাড়া হাটের পাশে আত্রাই নদীর ওপর ব্রিজ নির্মাণের আগে এলাকার ব্যবসায়ীরা পার্শ্ববর্তী আত্রাই উপজেলা ও রানীনগর হয়ে নওগাঁ শহরে যাতায়াত করতো। এতে তাদের সময় ও যাতায়াত ব্যয় বেশি হত। কিন্তু সম্প্রতি বন্দাইখাড়া হাটের পাশে আত্রাই নদীর উপর ব্রিজ নির্মাণ হওয়ায় এখন আর তাদের আত্রাই হয়ে নওগাঁ যাতায়াত করতে হয় না। তারা খুব অল্প সময়ে এবং কম দূরত্ব অতিক্রম করে বান্দাইখাড়ার আত্রাই ব্রিজ অতিক্রম করে সহজে নওগাঁ গিয়ে মালামাল কেনাবেচা করতে পারেন। এতে তাদের খরচ ও সময় দুইই কম লাগে।

ফার্নিচার ব্যবসায়ী আফজাল হোসেন বলেন, আগে আত্রাই হয়ে নওগাঁ গিয়ে মালামাল কিনে আনতাম। এতে সময় ও পরিবহন খরচ দুটোই বেশি লাগত। আর এখন বান্দাইখাড়া হয়ে সহজেই নওগাঁ গিয়ে মালামাল কিনে অল্প সময়ের মধ্যেই এলাকায় ফিরতে পারি। তবে ভবানীগঞ্জ থেকে গজমতখালি পর্যন্ত রাস্তাটির বেহাল অবস্থা হওয়ায় মালামাল পরিবহন করতে আমাদের ব্যাপক ভোগান্তিতে পড়তে হয়। কোনো যানবাহন সহজে ভাড়া মারতে চায় না। আসলেও অনেক বেশি ভাড়া দাবি করে।

বাস চালক ফজলু মিয়া বলেন, গজমতখালি থেকে বাস নিয়ে আমি রাজশাহী যাতায়াত করি। গজমতখালি থেকে ভবানীগঞ্জ পর্যন্ত রাস্তাটি বেহাল অবস্থা হওয়ায় ভালোমানের বাস এই লাইনে আসতে চায় না। তার মতে, ভবানীগঞ্জ থেকে গজমতখালি পর্যন্ত প্রায় সাড়ে ৯ কিলোমিটার রাস্তাটি সংস্কার করা হলে তারা রাজশাহী থেকে ভবানীগঞ্জ ও বান্দাইখাড়া হয়ে নওগাঁ পর্যন্ত বাস সার্ভিস চালু করবেন।

ভবনীগঞ্জ বাজারের ব্যবসায়ী কামাল হোসেন বলেন, গুরুত্বপূর্ণ এই রাস্তাটির সংস্কার করা অতি জরুরি। এতে এলাকার ব্যবসা-বাণিজ্য সর্বস্তরের উন্নয়ন ত্বরান্বিত হবে এবং ভবানীগঞ্জ নিউমার্কেট একটি ব্যবসা কেন্দ্র হিসেবে অতি দ্রুত প্রচার লাভ করবে। উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুল মালেক নয়ন প্রায় একই অভিমত ব্যক্ত করে বলেন, রাস্তাটির মাধ্যমে দুই জেলা সদরে যাতায়াত সহজ হয়েছে। রাস্তাটি আরো প্রশস্ত করে সংস্কার করার তিনি দাবি জানান।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা প্রকৌশলী সানোয়ার হোসেন বলেন, ভবানীগঞ্জ টু বান্দাইখাড়ার বাগমারা অংশ যার দৈর্ঘ্য ৯.৩ কিলোমিটার। এর মধ্যে ভবানীগঞ্জ থেকে সাড়ে তিন কিলোমিটার পর্যন্ত রাস্তাটি এক কোটি ৪৪ লাখ টাকা ব্যয়ে সংস্কারের জন্য দরপত্র আহ্বান করে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান নির্বাচন প্রক্রিয়া শেষ হয়েছে। চলতি বর্ষা মৌসুমের পর পরই রাস্তাটির সংস্কার কাজ শুরু হরা হবে। এছাড়া রাস্তাটির অবশিষ্ট অংশ সংস্কারের জন্য চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে বলে জানান এই প্রকৌশলী।

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং
ফজর৪:২৮
যোহর১১:৫৫
আসর৪:২১
মাগরিব৬:০৮
এশা৭:২১
সূর্যোদয় - ৫:৪৪সূর্যাস্ত - ০৬:০৩
পড়ুন