সাতদিনে ভারত দেখা
মুকিত আনিস১২ নভেম্বর, ২০১৪ ইং
সাতদিনে ভারত দেখা
 

সমপ্রতি ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যায়ের কো-কারিকুলাম একটিভিটির অংশ হিসাবে ভারত সরকারের আমন্ত্রণে ১০ জনের একটি প্রতিনিধি দল ৭ দিনব্যাপী ভারত সফর করে এসেছে। শিক্ষাগত যোগ্যতা, নেতৃত্ব গুণ এবং আরো ৮টি সুনির্দিষ্ট মাপকাঠির মাধ্যমে ১০ জনের এই প্রতিনিধি দল নির্বাচন করা হয়। ভারত সরকার আমন্ত্রিত ১০০ সদস্য বিশিষ্ট প্রতিনিধি দলের অংশ হিসাবে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের এই দলটি সুযোগ পায় ভারতের রাজধানী দিল্লী, মুম্বাই (মহারাষ্ট্র), আগ্রা এবং কোলকাতা ঘুরে দেখার। ৪টি শহরে বিভিন্ন ঐতিহাসিক স্থান ও স্থাপনার মধ্যে আগ্রার তাজমহল, দিল্লীর রেডফোর্ট, ইন্ডিয়াগেট এবং মুম্বাইয়ের গেটওয়ে অব ইন্ডিয়া বিশেষ ভাবে উল্লেখযোগ্য। এছাড়াও তাদের একটি বিশেষ সুযোগ হয় ভারতের মহামান্য রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জির সাথে সাক্ষাত্ করার।

ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা তাদের রেসিডিনশিয়াল সেমিস্টার এ নিজেদের বিভিন্ন প্রশিক্ষণমূলক কাজে নিয়োজিত রাখে যা তাদের আত্মনির্ভর হতে সাহায্য করে। টানা ৭ দিনের সফরে অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সাথে সৌহার্দ্যমূলক সম্পর্ক গড়ে তোলা, একে অপরের সহযোগিতা করা, ভ্রমণসূচি মেনে চলা, এক পর্যায়ে কষ্টসাধ্য মনে হলেও রেসিডেন্সিয়াল সেমিস্টারের অভিজ্ঞতা তা অনেকটা কাটিয়ে তুলতে সাহায্য করে। এই সফরে ১০ জন ব্র্যাক শিক্ষার্থীর অভাবনীয় অর্জন হচ্ছে গিয়ে ভারতের মতো একটি ক্রমবর্ধমান  উন্নয়নশীল রাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতির সাথে সাক্ষাত্ করা। এছাড়াও সাংবাদিক, চিকিত্সক, বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সাথে পারস্পরিক সুন্দর সম্পর্ক গড়ে তুলতে তাদের বেগ পেতে হয়নি।

দিল্লীতে ভারতের যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় আয়োজিত অনুষ্ঠানে অংশ নেয় ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩ জন ছাত্রী (অর্পিতা, ফারিহা এবং মাহফুজা)। তারা দেশাত্মবোধক বাংলা গান এবং লোকজ নৃত্যের মাধ্যমে বাংলাদেশীয় সংস্কৃতি ভারতীয় নাগরিকদের সামনে তুলে ধরেন। দেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠগুলোর শ্রেষ্ঠ শিক্ষার্থী, দেশ সেরা সাংবাদিক এবং চিকিত্সকদের মিলনমেলা প্রত্যেককে বিভিন্ন মানবিক এবং পেশাগত বৈশিষ্ট্য অর্জনে সক্ষম করেছে যা শুধুমাত্র ক্লাস রুমের লেকচার দ্বারা কখনোই সম্ভব ছিল না। ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের এই ১০ জন শিক্ষার্থীদের মধ্যে ছিল মুকিত আনিস, মাহফুজা রাহাত, আরিফ হোসেন, শামীম আহম্মেদ, কাজী তুরিন সরকার, ফারিহা হায়দার, তাসনিম অর্পিতা, সাবিরুল ইসলাম রাহি, ফারদিন মারুফ এবং মোরশেদ হোসেন।

বিপণন শ্রেণিকক্ষে শেখা নেটওয়ার্কিং-এর বাস্তবিক জীবনে প্রয়োগ এবং প্রয়োজনীয়তা বোঝার জন্য এর চাইতে ভাল ময়দান আর হতে পারে না বলে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা মনে করেন। ভারত সফর এই ১০ জন শিক্ষার্থীদের মধ্যে আত্মবিশ্বাসের উপলব্ধি ঘটায় যা ভবিষ্যতে যে কোন ক্ষেত্রে তাদের পরস্পর পরস্পরের প্রতি প্রতিযোগিতা, সহযোগিতা এবং সহমর্মী মনোভাব বজায় রাখতে সাহায্য করবে।

এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
১২ নভেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:৫৩
যোহর১১:৪৩
আসর৩:৩৯
মাগরিব৫:১৭
এশা৬:৩২
সূর্যোদয় - ৬:১১সূর্যাস্ত - ০৫:১২
পড়ুন