বিষয় ভাবনা
ফাতেমা তুজ জোহরা
রসায়ন বিভাগ, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়
নাদিম মজিদ১২ নভেম্বর, ২০১৪ ইং
‘রসায়নের ব্যবহারিক ক্লাসগুলো আমাদের অন্যরকম হয়। কিছু কিছু রাসায়নিক পদার্থ দেখতে পানির মত বর্ণহীন; কিন্তু একটির সাথে আরেকটি সংযোগ ঘটালে তার বর্ণ পরিবর্তিত হয়ে যায়। যা সাধারণ চোখে অকল্পনীয়। আমরা নানা রকম বিক্রিয়া নিয়ে খেলি। অণু-পরমাণুগুলো একেক পরিবেশে একেক ধরনের কাজ করে। যা আমাদের আনন্দ দেয়।’ জানালেন ফাতেমা তুজ জোহরা।

ভর্তি হওয়ার আগে রসায়নে পড়ার কোনো ইচ্ছা ছিল না তার; কিন্তু ক্লাস করতে করতে এ বিষয়ের প্রতি ভাললাগা সৃষ্টি হয়। বাংলাদেশে শিল্প বিপ্লব না হলেও রসায়নের কাজের ক্ষেত্র বেশ সমৃদ্ধ। বিসিএসআইআর, বিএসটিআই, কাগজ, কেমিক্যাল, পানি প্রক্রিয়াজাতকরণ, সিমেন্ট, ইস্পাত, খাদ্য, কোমল পানীয়, সিরামিক, ওষুধ প্রক্রিয়াকরণসহ সব ধরনের শিল্প প্রতিষ্ঠানে পণ্যের মান যাচাই এবং মান সমৃদ্ধকরণে রসায়নবিদেরা কাজ করছে।

রসায়ন বিজ্ঞানের একটি মৌলিক বিষয়। এ বিষয়ে পড়ার জন্য শিক্ষার্থীর উচ্চ মাধ্যমিকে বিজ্ঞান নিয়ে পড়তে হবে। দেশের সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় এবং কলেজসমূহে এ বিষয়ে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর পড়ার সুযোগ রয়েছে।

বাংলাদেশে রসায়ন বিষয়কে সমৃদ্ধ করার যথেষ্ট সুযোগ আছে বলে মনে করেন ফাতেমা। ‘আমাদের শিল্প প্রতিষ্ঠানে যে সব কেমিক্যাল ব্যবহার করা হয়, তার বেশিরভাগ বিদেশ থেকে আমদানি করা হয়। এ খাতকে আরো সমৃদ্ধ করা যেতে পারে। ফরমালিন দিয়ে বিভিন্ন খাদ্যদ্রব্য তাজা রাখা হয়; কিন্তু ফরমালিনে থাকা বিষাক্ত কেমিক্যাল আমাদের শরীরের ক্ষতি করে থাকে। এ ক্ষেত্রে গবেষণা করে ফরমালিনের বিকল্প বের করতে পারি।’

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১২ নভেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:৫৩
যোহর১১:৪৩
আসর৩:৩৯
মাগরিব৫:১৭
এশা৬:৩২
সূর্যোদয় - ৬:১১সূর্যাস্ত - ০৫:১২
পড়ুন