উদ্যোগ
সমাজ বদলানোর প্রত্যয় ওদের
মোহাম্মদ ওমর ফারুক১৪ জানুয়ারী, ২০১৫ ইং
সমাজ বদলানোর প্রত্যয় ওদের
 

কেহ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, কেহ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, কেহ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় আবার কেহ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করে সবমিলিয়ে দেশের কোন না কোন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে  সম্মানে পড়াশোনা করছে প্রত্যন্ত অঞ্চলের এসব অগ্রগামী তরুণ। সবাই নিজের মাতৃভূমির প্রতি দায়িত্ববোধ আর ভালোবাসা রেখে প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষকে সচেতনতা আর কুসংস্কার দূর করার প্রয়াসে বন্ধুত্বকে কাজে লাগিয়ে সমাজকে বদলে দেয়ার অঙ্গিকার নিয়ে শুরু করে বন্ধু ফোরাম নামে একটি সমাজ সচেতনতা মূলক সংগঠন। যারা শুধু গরিব অসহায় শিক্ষার্থী আর নিপীড়িত মানুষের পাশে এসে শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দেয়। যারা যৌতুক বিরোধী, মাদক বিরোধী আন্দোলনসহ সমাজে সকল কুসংস্কার বিরোধী আন্দোলনে তাদের অবদান বর্তমান  প্রেক্ষাপটে অনিস্বীকার্য। কুমিল্লা জেলার বুড়িচং উপজেলায় বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া শিক্ষার্থীরা গঠন করে এই ফোরামটি। যারা নিয়মিত কাজ করে যাচ্ছে অসহায় শিক্ষার্থী ও বঞ্চিত মানুষের জন্য।

একটি সমাজকে কখনো শাসন করে বদলে দেয়া সম্ভব না, সম্ভব না শাসন করে সমাজের মানুষকে পরিবর্তন করা। সকল মানুষ নিজ চিত্তে চলতে চায়, যা হতে পারে তার মতাদর্শে ভালো বা মন্দ। আর সেই জায়গাটি থেকে  বন্ধু ফোরাম মন্দটিকে বর্জন করে ভালোটিকে গ্রহণ করে বন্ধুত্বের মাধ্যমে একটি জায়গায় দাঁড়াতে চায় যে জায়গাটি হবে সমাজ বদলের হাতিয়ার এমনটাই মনে করে বন্ধু ফোরামের সদস্যরা। তাইতো তাদের স্লোগান ঠিক করেছে বন্ধুত্বের মাধ্যমে বদলে দিতে চাই সমাজকে। সেই চেষ্টাই কাজ করে যাচ্ছে এই তরুণরা।

এলাকার অনেক হত দরিদ্র শিক্ষার্থী খাতা, কলম, বই ও স্কুল-কলেজের ভর্তির জন্য অর্থ যোগান দেয়ার মতো যাদের সামর্থ নেই তাদেরকে নিয়ে কাজ করে “বন্ধু ফোরাম”। এলাকাভিত্তিক এসব হতদরিদ্র শিক্ষার্থীদের লিস্ট তৈরি করে প্রতি মাসে মাসে স্কুল-কলেজের ভর্তি ফি ও মাসিক বেতন থেকে শুরু করে শিক্ষার্থীর বিভিন্ন শিক্ষাসামগ্রী দিয়ে থাকে এই ফোরামটি। এখানেই শেষ নয় এই ফোরামটি কাজ, এলাকা থেকে মাদকমুক্ত সমাজ গড়া থেকে শুরু করে সমাজের বিভিন্ন কুসংস্কার দূর করতে কাজ করে যাচ্ছে এসব বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়া শিক্ষার্থীরা। তাদের বিভিন্ন কর্মকাণ্ডের মধ্যে রক্তদান কর্মসূচি অন্যতম। এই ফোরামের সদস্যদের সকলের রক্তের গ্রুপসহ আশেপাশের সকল এলাকার বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের রক্তের গ্রুপ তাদের কাছে লিপিবদ্ধ আছে, প্রয়োজন মাত্রই এলাকায় যে কোন মুহূর্তে মূমুর্ষূ রোগীদের জন্য রক্ত যোগাড় করে ফেলে  এই ফোরামের সদস্যরা। তাছাড়া সংগঠনটি প্রতিবছর বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি হিসেবে স্থানীয় শিক্ষার্থীদের হাতে ফলজ, বনজ, ওষদি গাছ বিতরণ করে থাকে। যৌতুক ও মাদকবিরোধী আন্দোলনের সাথে তারা প্রত্যক্ষভাবে কাজ করে যাচ্ছে। বন্ধুফোরামের  সদস্য মেহেদী হাসান রিপন বলেন, আমরা যথাযথ চেষ্টা করি মানুষের জন্য কাজ করার জন্য, মানুষের জন্য কাজ করাই আমাদের মূল লক্ষ্য। আমাদের সংগঠনের সদস্যদের মধ্যে যে যথেষ্ঠ বন্ধুত্ব রয়েছে আমরা আশা করি আমাদের ফোরাম যতদিন থাকবে ততদিন আমরা মানুষের জন্য কাজ করে যেতে পারবো।

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১৪ জানুয়ারী, ২০১৮ ইং
ফজর৫:২৩
যোহর১২:০৮
আসর৩:৫৭
মাগরিব৫:৩৫
এশা৬:৫২
সূর্যোদয় - ৬:৪২সূর্যাস্ত - ০৫:৩০
পড়ুন