বর্ষায় পায়ের যত্নে ছত্রাক সংক্রমণ রোধ করা সম্ভব —ডা. সঞ্চিতা বর্মন
২১ জুন, ২০১৭ ইং
বর্ষাকালে স্যাঁতস্যাঁতে আবহাওয়া, রোদ, বৃষ্টি, কাদা-পানিতে পা  যতই পরিষ্কার রাখা হোক না কেন অনেকের এই সময় পায়ের আঙ্গুলের ফাঁকে বা পুরো পা ছত্রাক দ্বারা সংক্রমিত হয়। একে চিকিত্সা বিজ্ঞানে টিনিয়া পেডিস বা অ্যাথলেট ফুট বলা হয়। বৃষ্টির পর রাস্তায় জমে থাকা ময়লা পানি পাড়ালে, বেশিক্ষণ স্যাঁতস্যাঁতে স্থানে খালি পায়ে হাঁটলে বা কাজ করলে, বেশিক্ষণ পা ভেজা থাকলে, বেশিক্ষণ মোজা পরা থাকলে এই সমস্যা বেশি হয়ে থাকে।

ডায়াবেটিস ও অন্যান্য কারণে যাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম, তাদের পা ছত্রাক দ্বারা সংক্রমণ বেশি হয়। এতে পায়ে চুলকানি, জ্বালাপোড়া, ছোট ছোট ফোসকা হয় এবং পরে পায়ের তলা শুষ্ক হয়ে খোসা খোসা ত্বক উঠে আসতে পারে। ক্যানডিডা নামক ছত্রাক দ্বারা এই সংক্রমণ হয়ে থাকে। অনেক সময় আঙ্গুলের ফাঁকে সাদা স্তর দেখা যায়। পায়ের নখেও ছত্রাকের সংক্রমণ হতে পারে। সেক্ষেত্রে নখের রং সাদা থেকে হলুদ হয়ে যায়।

এই সমস্যায় সাধারণত অ্যান্টি ফাঙ্গাল ক্রিম ও ওষুধ ব্যবহার করলেই ভাল হয়ে যায়। তবে যাদের এই সমস্যা সব সময় থাকে তাদের ক্ষেত্রে কিছু নিয়ম মেনে চললে ছত্রাক সংক্রমণ প্রতিরোধ করা যায়। এ সময় পা সব সময় শুকনা ও পরিষ্কার রাখতে হবে। পা পানিতে ভিজলে বা ধোয়ার পর শুকনো কাপড় দিয়ে মুছে ফেলতে হবে। খালি পায়ে না হেঁটে স্যান্ডাল ব্যবহার করতে পারলে ভালো হয়। তা হলে পা পরিষ্কার ও শুকনো থাকে। প্রতিদিন ধোয়া ও সুতির মোজা পড়তে হবে। পায়ের নখ যথা সম্ভব ছোট রাখতে হবে। তবে যাদের এই সমস্যা দীর্ঘ দিনের, তাদের ক্ষেত্রে অনেক সময় দীর্ঘ দিন অ্যান্টি-ফাঙ্গাল ওষুধ সেবন করতে হতে পারে।

লেখক: ত্বক, লেজার এন্ড এসথেটিক বিশেষজ্ঞ

 

 

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
২১ জুন, ২০১৮ ইং
ফজর৩:৪৩
যোহর১২:০০
আসর৪:৪০
মাগরিব৬:৫১
এশা৮:১৬
সূর্যোদয় - ৫:১১সূর্যাস্ত - ০৬:৪৬
পড়ুন