রোজা প্রোপার্টিজের দুই কর্মকর্তাকে দুদকে জিজ্ঞাসাবাদ
দুবাইয়ে ৮০ লাখ ডলার পাচার
ইত্তেফাক রিপোর্ট১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং

দুবাইয়ে ৮০ লাখ মার্কিন ডলার পাচারের অভিযোগ অনুসন্ধানে অংশ হিসেবে রোজা প্রোপার্টিজের দুই কর্মকর্তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে দুদক। গতকাল বুধবার দুদক পরিচালক সৈয়দ ইকবাল হোসেনের নেতৃত্বে সহকারী পরিচালক গুলশান আনোয়ার প্রধান তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করেন। এ দু’জন হলেন, রোজা প্রোপার্টিজ লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নাঈম উদ্দিন আহম্মেদ ও একই প্রতিষ্ঠানের পরিচালক আশফাক উদ্দিন। এ দু’জনই হলেন বিএনপি চেয়ারপাসন খালেদা জিয়ার সাবেক রাজনৈতিক সচিব মোসাদ্দেক আলী ফালু’র ভাতিজা।

সূত্র জানিয়েছে, বিএনপি নেতা মোসাদ্দেক আলী ফালু বর্তমানে দুবাই রয়েছেন। বিদেশে অবস্থান করে তিনি বাংলাদেশে থাকা তার ‘অবৈধ সম্পদ’ এর মধ্যে পাঁচটি ফ্ল্যাট, একাধিক বাড়ি ও জমি এই দুই ভাতিজার নামে লিখে দিয়েছেন। এরজন্য দুবাই থেকে তিনি পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে পাওয়ার অব অ্যাটর্নির মাধ্যমে ঢাকা ডিসি বরাবর পাঠান। এসব দলিল সম্পাদনের ক্ষেত্রে আমিরাতে বাংলাদেশ দূতাবাসের এক কর্মকর্তা এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা সহযোগিতা করেছেন। বিষয়টি দুদকের নজরে আসায় এবং এবং প্রাপ্ত অভিযোগের ভিত্তিতে এ ব্যাপারে কমিশন অনুসন্ধান শুরু করেছে। কমিশন গত মঙ্গলবার দুদকের সহকারী পরিচালক গুলশান আনোয়ার প্রধানকে অনুসন্ধান কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োগ করেছে। ইতোমধ্যে দুদক থেকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কাছেও এ বিষয়ে ব্যাখ্যা চাওয়া হয়েছে।

বিএনপি নেতা মোসাদ্দেক আলী ফালুসহ অন্যদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনিয়ম, দুর্নীতি, তথ্য গোপন ও জালিয়াতিপূর্বক অবৈধ উপায়ে দুবাইয়ে ৮০ লাখ ডলার পাচারের অভিযোগ রয়েছে। তারা বিদেশে অফশোর কোম্পানি খুলে মানিল্ডারিং ও হুন্ডির মাধ্যমে সংযুক্ত আরব আমিরাতসহ বিভিন্ন দেশে অর্থ পাচার করেছেন। এ বিষয়ে প্রাথমিক সত্যতা পাওয়ার পর গত ৩ আগস্ট এ অভিযোগে বিএনপি নেতা মোসাদ্দেক আলী ফালু ও জিজ্ঞাসাবাদকৃত ব্যবসায়ীসহ নয়জনকে বিদেশযাত্রায় নিষেধাজ্ঞা চেয়ে ইমিগ্রেশনে চিঠি পাঠায় দুদক।

এ নয়জন হলেন, বিএনপি নেতা মোসাদ্দেক আলী ফালু, আরএকে পেইন্টস ও আশালয় হাউজিংয়ের পরিচালক এস এ কে একরামুজ্জামান, তাঁর ছেলে এবং আরএকে পেইন্টস ও আরএকে কনজ্যুমার প্রোডাক্টসের পরিচালক কামার উজ জামান, ঝুলপার বাংলাদেশ লিমিটেড ও রাকিন ডেভেলপমেন্ট কোম্পানির পরিচালক সৈয়দ এ কে আনোয়ারুজ্জামান, আরএকে পাওয়ার লিমিটেডের পরিচালক মাকসুদুল করিম, আরএকে কনজ্যুমার প্রোডাক্টসের দুই পরিচালক মোহাম্মদ আমির হোসেন ও এম এ মালেক, রোজা প্রোপার্টিজের পরিচালক আশফাক উদ্দিন আহমেদ এবং আরএকে পেইন্টস ও আরএকে ক্যাপিটাল লিমিটেডের পরিচালক শায়লিন জামান আকবর।

 

এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:২৮
যোহর১১:৫৫
আসর৪:২১
মাগরিব৬:০৮
এশা৭:২১
সূর্যোদয় - ৫:৪৪সূর্যাস্ত - ০৬:০৩
পড়ুন