উলিপুরের দু’হাজার পরিবার জলাবদ্ধতার শিকার
০৪ জুলাই, ২০১৫ ইং
g জাহাঙ্গীর আলম সরদার, উলিপুর (কুড়িগ্রাম) সংবাদদাতা

পাউবোর ৯ ফুকারবিশিষ্ট একটি ভাঙ্গা কালভার্টের কারণে হাজীপাড়া, ভারতপাড়া, দালালপাড়া, ফকিরপাড়া, চেয়ারম্যানপাড়া, কুমারপাড়া, ডাক্তারপাড়া, পাটোয়ারীপাড়া গ্রামের ২ হাজার পরিবার পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। কালভার্টের মুখ মাটি দিয়ে ভরাট করায় ১০ বছর ধরে সামান্য বৃষ্টিতে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হলেও কর্তৃপক্ষ নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করছে। এ পরিস্থিতির কারণে পাশের সবজি গ্রাম নামে আরো ৮ গ্রামের প্রায় ১ হাজার হেক্টর জমির রবিশস্য ও পাটক্ষেত নিয়ে বিপদে পড়েছে কৃষকরা। গতকাল রবিবার জেলার উলিপুর উপজেলার থেতরাই ইউনিয়নের ভাংতিরপাড় গ্রামে গিয়ে দেখা যায়, গ্রামটির রাস্তা-ঘাট পানিতে ডুবে গেছে।

গ্রামের বাসিন্দাদের সাথে কথা বলে জানা যায়, পানি নিষ্কাশনের জন্য কুড়িগ্রাম পানি উন্নয়ন বোর্ড ভাংতির পাড় এলাকায় বাঁধের রাস্তায় ৯ ফুকারবিশিষ্ট একটি কালভার্ট নির্মাণ করে। কিন্তু কালভার্টটির ফুকারে সংযোগ ২০০৫ সালে ভেঙে গেলে পাউবো কর্তৃপক্ষর মুখ মাটি দিয়ে ভরাট করে দেয়। ফলে এসব গ্রামের নিম্নাঞ্চলে সামান্য বৃষ্টিপাতেই মারাত্মক জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়।

ঐ এলাকার আবুল কাশেম, সহিদার রহমান, মানিক মিয়া, হেলালউদ্দিন, মোজাম্মেল হক জানান, পাউবো কর্তৃপক্ষকে বারবার অনুরোধ করলেও তারা কোন ব্যবস্থা নেয়নি। জলাবদ্ধতার কারণে হোকডাঙ্গা উচ্চ বিদ্যালয়, হোকডাঙ্গা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, ১নং হোকডাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ২নং হোকডাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও হোকডাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কয়েক হাজার শিক্ষার্থীকে চরম ভোগান্তিতে পড়তে হয়।

১নং হোকডাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আন্জু মনোয়ারা বেগম জানান, জলাবদ্ধতার কারণে বিদ্যালয় মাঠে স্থায়ীভাবে পানি জমে থাকায় অনেক সময় ক্লাস করাই সম্ভব হয় না।

তাছাড়া শিক্ষার্থীরাও পানি ভেঙে প্রতিষ্ঠানে আসতে পারে না। থেতরাই ইউপি চেয়ারম্যান রুহুল আমিন বকসি বলেন, ৮ গ্রামের মানুষকে নিয়মিত জলাবদ্ধতার হাত থেকে রক্ষা করতে দ্রুত ঐ স্থানে একটি সেতু নির্মাণ করে জলাবদ্ধতা দূর করা দাবি করেন তিনি। উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান হায়দার আলী মিঞা বলেন, জলাবদ্ধতা নিরসন করতে কুড়িগ্রাম পাউবোর নির্বাহী প্রকৌশলীকে অনুরোধ করেছি।

পাউবোর উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী আবু তাহের মন্ডল বলেন, জলাবদ্ধতার বিষয়টি তার জানা ছিল না। আগামী শুকনা মৌসুমে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
৪ জুলাই, ২০১৭ ইং
ফজর৩:৪৮
যোহর১২:০৩
আসর৪:৪৩
মাগরিব৬:৫৩
এশা৮:১৭
সূর্যোদয় - ৫:১৫সূর্যাস্ত - ০৬:৪৮
পড়ুন