খুলনার ঈদ বাজারে দেশি শাড়ির প্রতি কদর বেশি রমণীদের
খুলনা অফিস২১ জুন, ২০১৭ ইং
খুলনার ঈদ বাজারে দেশি শাড়ির প্রতি কদর বেশি রমণীদের
শাড়ির প্রতি বাঙালি রমণীদের আকর্ষণ চিরন্তন। বাঙালি নারীর সাথে শাড়ির যে টান তার প্রমাণ মিলছে এবারের ঈদ বাজারে। ঈদ উপলক্ষে খুলনা মহানগরীর শপিংমলগুলোতে পাওয়া যাচ্ছে দেশি-বিদেশি বিভিন্ন ধরনের দৃষ্টিনন্দন শাড়ি।

নগরীর বুটিক হাউজগুলোও এনেছে নান্দনিক অনেক ধাঁচের শাড়ি। তবে এবারের ঈদে দেশি শাড়ির প্রতি আকর্ষণ বেশি রমণীদের। আর যুগোপযোগী ও রুচিশীল রমণীদের জন্য শাড়িতেও যুক্ত হয়েছে নানা ধরনের আকর্ষণীয় কাজ।

নগরীর বিভিন্ন বিপণী বিতান ঘুরে জানা যায়, অন্যান্য পোশাকের দোকানের পাশাপাশি শাড়ির দোকানগুলোতেও ক্রেতাদের উপচেপড়া ভিড়। এ বছর দেশি ও ভারতীয় বিভিন্ন ধরনের বাহারি রঙের শাড়ির পসরা সাজিয়েছে দোকানিরা। তবে ভারতীয় শাড়ির চেয়ে দেশি শাড়ির প্রতি আকর্ষণ বেশি রমণীদের। আর দেশি শাড়ির মধ্যে সুতি শাড়িই বেশি বিক্রি হচ্ছে বলে জানান বিক্রেতারা। এসব সুতির শাড়িতে রয়েছে বাহারি নকশা। এসব শাড়ির আঁচল এবং পাড়ে বৈচিত্র্য নিয়ে আসছেন ফ্যাশন ডিজাইনাররা। এ ছাড়া কুচিতেও থাকছে আলাদা ডিজাইন। আবার সুতি শাড়িতে ব্লক প্রিন্ট, বাটিক, স্ক্রিন প্রিন্ট, ভেজিটেবল ডাই, এমব্রয়ডারি করে আনা হয়েছে দৃষ্টিনন্দন ও বৈচিত্র্য। রয়েছে কাঁথা স্টিচ, ফুলেল ও জামদানি প্রিন্ট, কুচি প্রিন্ট, অ্যাপ্লিক, গুজরাটি কাজের মতো বাহারি নকশা। এছাড়া কোটা, নেট সুতি এবং  চোষা সুতির কিছু শাড়ির প্রতিও আকৃষ্ট রমণীরা। সাধারণ তাঁতের শাড়ি থেকে শুরু করে ডিজাইনার সুতি শাড়ি, টাঙ্গাইল তাঁত, মণিপুরী তাঁত, ব্লক বা বাটিক প্রিন্ট, প্রিন্ট বা জলছাপ, পিওর সিল্ক মসলিন বা হাফ সিল্ক, হাতের কাজ, চেক, জামদানি, কাতান, মসলিন, রাজশাহী সিল্ক, কটন, এন্ডি সিল্ক শাড়িগুলোই বেশি চোখে পড়ছে দোকানগুলোতে।

এছাড়া রয়েছে স্মোক শিফনের শাড়ি, ধুপিয়ান কাতান, অপেরা জুট কাতান, গাদোয়ান কাতান, গাদ্দি কাতানের মতো বাহারি ডিজাইনের শাড়ি। এসব দেশীয় কাপড়ের প্রাধান্যের পাশাপাশি বিভিন্ন শপিংমলগুলো শাড়ি কালেকশনে রেখেছে হরেকরকম কাতান, ইন্ডিয়ান সিল্ক, কাঞ্জিভরম, মীনা-কুমারি, হ্যান্ডলুমের শাড়ি। এর মধ্যে কাঞ্জিভরম ও সুতি টাঙ্গাইল শাড়ির চাহিদা বেশি বলে বিক্রেতারা জানান।

নগরীর নিউ মার্কেটে  কেনাকাটা করতে আসা গৃহবধূ শিরিন আক্তার বলেন, ‘বাঙালি নারীদের সাজের পরিপূর্ণতা আসে শাড়িতেই। ঈদে অন্য  পোশাক যাইই কিনি না কেন কমপক্ষে একটা শাড়ি  তো নিবই। শাড়ির  ক্ষেত্রে সব  থেকে বেশি প্রাধান্য দিই সুতি শাড়ি। সুতি শাড়ি শুধু ঐতিহ্যবাহীই নয়, ফ্যাশনেবলও বটে।’

নিউমার্কেটের চার্মিং হাউজের স্বত্বাধিকারী তৌহিদ মৃধা বলেন, ‘পনেরো রমজানের পর  থেকেই ঈদের বাজার জমে উঠেছে। এবারে ঈদে রমণীদের শাড়ির প্রতি চাহিদাও অনেক। ঢাকার জামদানি, টাঙ্গাইল, রাজশাহী সিল্ক এগুলোর চাহিদা রয়েছে। এছাড়া পিওর সিল্কের ওপর কাঞ্জিভরম কাতান শাড়িও ভালো চলছে।’

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
২১ জুন, ২০১৮ ইং
ফজর৩:৪৩
যোহর১২:০০
আসর৪:৪০
মাগরিব৬:৫১
এশা৮:১৬
সূর্যোদয় - ৫:১১সূর্যাস্ত - ০৬:৪৬
পড়ুন