নদী ভাঙনকবলিত সদরপুর চরাঞ্চলের ৩০ হাজার মানুষের ঈদ আনন্দ নেই
২১ জুন, ২০১৭ ইং
g সদরপুর (ফরিদপুর) সংবাদদাতা 

সদরপুর উপজেলার পদ্মা-আড়িয়াল খাঁ নদের চরাঞ্চলের পাঁচটি ইউনিয়নের প্রায় ৩০ হাজার নদী ভাঙন কবলিত দুস্থ, দরিদ্র ও হতদরিদ্র জনগণের মাঝে আসন্ন ঈদের আনন্দ নেই।

আসন্ন ঈদে সরকারি বরাদ্দের ১০ কেজি ভি.জি.এফ এর চাল ছাড়া তাদের জন্য অন্য কোনো সাহায্যের বরাদ্দ নেই। ফলে পরিবারের নতুন পোশাক, শাড়ি কাপড় ভাগ্যে জুটছে না বলে তথ্য সংগ্রহকালে প্রায় শতাধিক পরিবার জানান।

তথ্য সংগ্রহকালে চরনাছিরপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. আক্কাছ আলী জানান, তার ইউনিয়নের প্রায় পাঁচ শতাধিক পরিবারের পাঁচ সহস্রাধিক জনগণ নদী ভাঙনের শিকার হয়ে তারা আর্থিক সংকটে দিন কাটাচ্ছে। নারিকেলবাড়ীয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. নাসির উদ্দিন সরদার বলেন, তার ইউনিয়নের প্রায় সাত হাজার জনগণ নদী ভাঙনের শিকার। এর মধ্যে পাঁচ হাজার জনগণ দরিদ্র, হতদরিদ্র ও দুস্থ।

ঢেউখালী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আলহাজ ওমর ফারুক জানান, তার ইউনিয়নের প্রায় তিন হাজার পরিবার নদী ভাঙনের শিকার হয়ে চরম আর্থিক সংকটে দিন কাটাচ্ছে।  চরমানাইড় ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. আইয়ুব আলী জানান, তার ইউনিয়নের প্রায় সাত শতাধিক পরিবারের ঘর-বাড়ি হারিয়ে ছিন্নমূল হিসেবে চরম আর্থিক সংকটে দিন কাটাচ্ছে। আকটেরচর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মনিরুল হক চৌধুরী মুরাদ জানান, তার ইউনিয়নের চরাঞ্চলের প্রায় সহস্রাধিক জনগণ ভাসমান জীবনযাপন করছে।

 সকল ইউনিয়নের চেয়ারম্যানগণ জানান, ৩০ হাজার জনগণের মধ্যে ঈদ আনন্দ নেই।

এ ব্যাপারে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার মোহাম্মদ আবু এহসান মিয়া জানান, চরাঞ্চলের হতদরিদ্র মানুষের জন্য সরকারি বরাদ্দে ১০ কেজি বিজিএফ চালের পাশাপাশি আর্থিক সাহায্য চাওয়া হয়েছে। বরাদ্দ পাওয়া গেলে জরুরি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।  

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
২১ জুন, ২০১৮ ইং
ফজর৩:৪৩
যোহর১২:০০
আসর৪:৪০
মাগরিব৬:৫১
এশা৮:১৬
সূর্যোদয় - ৫:১১সূর্যাস্ত - ০৬:৪৬
পড়ুন