বাগেরহাটে আঞ্চলিক মহাসড়কে হাঁটু পানি
বাগেরহাটে আঞ্চলিক মহাসড়কে হাঁটু পানি
বাগেরহাটের সাইনবোর্ড-মোরেলগঞ্জ-শরণখোলা আঞ্চলিক মহাসড়কের শরণখোলা অংশের চারটি জনগুরুত্বপূর্ণ পয়েন্ট মারাত্মক ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। শরণখোলা উপজেলা সদরের রায়েন্দা পাঁচরাস্তা মোড়ের বাদল চত্বরে হাঁটু পানিতে তলিয়ে গেছে। এছাড়া রায়েন্দা সেতুর দুই মাথার তিনটি পয়েন্টে মহাসড়ক দেবে গিয়ে যানবাহন চলাচল ঝুঁকির মধ্যে পড়েছে। প্রায় একবছর ধরে সড়কের এমন বেহাল অবস্থা হলেও সড়ক ও জনপথ বিভাগ কোনো ব্যবস্থা নেয়নি।

শনিবার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, শরণখোলা উপজেলা সদরের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ পাঁচরাস্তা বাদল চত্বর এলাকার প্রায় ৫০ মিটার সড়কের কার্পেটিং উঠে সেখানে পানি জমে পুকুরে পরিণত হয়েছে। হেঁটে চলার কোনো উপায় নেই। এমনকি যানবাহনও স্বাভাবিকভাবে চলাচল করতে পারছে না। সামান্য বৃষ্টি হলে হাঁটু পানি জমে সেখানে। আশপাশ এলাকার ময়লা পানি এসে জমে থাকায় পরিবেশও দূষিত হয়ে উঠছে। অপরদিকে রায়েন্দা সেতুর দুই মাথায় তিনটি পয়েন্টের নিচ থেকে বালু সরে গিয়ে বিশাল গর্ত হয়েছে। মাঝেমধ্যে গর্তগুলো মাটি ও বালুর বস্তা দিয়ে ভরাট করা হলেও কিছুদিন পর আবার দেবে যায়। বর্তমানে সেখান থেকে যাত্রীবাহী ও অন্যান্য যানবাহন ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে।

বাদল চত্বর এলাকার মুদি দোকানদার মোঃ আনসার আলী ও ফল ব্যবসায়ী দুলাল হোসেন জানান, প্রায় একবছর ধরে এখানকার ব্যবসায়ীদের দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। দোকানের সামনে পানি জমে থাকায় কাস্টমার আসতে চায় না। তাছাড়া ময়লা পানিতে মানুষের জামাকাপড়ও নষ্ট হয়ে যায়। পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। রায়েন্দা ইউপি চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান মিলন বলেন, বাদল চত্বর এলাকার কিছু প্রভাবশালী ব্যক্তি পানি নিষ্কাশনের পথ অবরুদ্ধ করে সেখানে বাড়িঘর, দোকানপাট নির্মাণ করায় এমন অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। সড়ক ও জনপথ বিভাগকে সড়ক মেরামতের জন্য তাগিদ দেওয়া হয়েছে।

শরণখোলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা লিংকন বিশ্বাস বলেন, জনদুর্ভোগ নিরসনে আপাতত বাজার উন্নয়ন প্রকল্পের টাকা থেকে পানি নিষ্কাশনের একটি ড্রেন নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এছাড়া মহাসড়ক  মেরামতের জন্য সড়ক বিভাগকে বলা হবে। বাগেরহাট সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আনিসুজ্জামান মাসুদ ও  উপ-বিভাগীয় প্রকোশলী মোঃ নজরুল ইসলামের মোবাইলে একাধিকবার চেষ্টা করেও তাদের মোবাইল বন্ধ থাকায় বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১৬ জুলাই, ২০১৮ ইং
ফজর৩:৫৫
যোহর১২:০৫
আসর৪:৪৪
মাগরিব৬:৫১
এশা৮:১৪
সূর্যোদয় - ৫:২০সূর্যাস্ত - ০৬:৪৬
পড়ুন