মেহেরপুরের দুই উপজেলায় বিতরণ হয়নি ৫৮ হাজার স্মাট কার্ড!
১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং

মেহেরপুর প্রতিনিধি

নামের বানান ভুল, নাম ভুল, বাবার নাম ভুল, মায়ের নাম ভুল, জন্ম তারিখসহ বিভিন্ন ভুল তথ্য লক্ষ্য করা যাচ্ছে বিতরণকৃত জাতীয় স্মার্ট কার্ডে। এর মধ্যে সদর উপজেলা নির্বাচন অফিসে মঙ্গলবার পর্যন্ত দুই হাজার ৪৪১টি আবেদন ভুল সংশোধনের জন্য জমা পড়েছে। গাংনী উপজেলায় জমা পড়েছে ১১৩টি আবেদন। এছাড়াও দুটি উপজেলায় স্মার্ট কার্ড বিতরণ মাঠ পর্যায়ে শেষ হলেও এখনো ৫৮ হাজার কার্ড বিতরণ হয়নি।

জানা গেছে, মেহেরপুর সদর ও গাংনী উপজেলা নির্বাচন অফিসে ভুল সংশোধনের জন্য আড়াই হাজারের বেশি আবেদন জমা পড়েছে। প্রতিটি আবেদনে (ব্যাংকে জমা দিতে হচ্ছে) ২৩০ টাকা করে খরচ হচ্ছে। সঙ্গে লাগছে প্রয়োজনীয় প্রমাণপত্র। যারা এগুলো সরবরাহ করতে পারছেন তাদের দেড় মাসের মধ্যে সংশোধন হচ্ছে। কোনো কোনো ক্ষেত্রে কিছুদিন বেশিও লাগছে। তবে কোনো কারণবশত যারা প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দেখাতে পারছেন না তাদের সংশোধনের কোনো সুযোগ থাকছে না। ফলে বিভিন্ন কাজে তারা প্রতিনিয়ত বিড়ম্বনার শিকার হচ্ছেন। চাকরির সুযোগ-সুবিধা থেকে শুরু করে ব্যাংক, বীমা এমনকি ব্যবসায়িক কাজেও অসুবিধার সম্মুখীন হতে হচ্ছে তাদের।

মেহেরপুর পৌরসভার দীঘিরপাড়া এলাকার মো. জাহাঙ্গীর আলম বলেন, দশ বছর ধরে সৌদি আরবে প্রবাস জীবন কাটাচ্ছেন। ছুটিতে দেশে এসে স্মার্ট কার্ড সংগ্রহ করেছেন। কিন্তু সেখানে লক্ষ্য করেন জন্ম তারিখ ভুল হয়েছে। ফলে পুনরায় পাসপোর্ট নবায়ন করতে গেলে পড়বেন বিড়ম্বনায়। সে কারণে দেশে থাকতেই জন্ম তারিখ সংশোধনের জন্য ছুটেছেন নির্বাচন অফিসে।

সদর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. জাহাঙ্গীর কবির জানান, বিভিন্ন কারণে স্মার্ট কার্ডে ভুল তথ্য লিপিবদ্ধ হয়েছে। অপরদিকে মেহেরপুরে তিনটি উপজেলার মধ্যে সদর ও গাংনী উপজেলায় ইতোমধ্যে জাতীয় স্মার্ট কার্ড মাঠ পর্যায়ে বিতরণ শেষ হয়েছে। মুজিবনগর উপজেলায় এখন পর্যন্ত নির্ধারণ হয়নি কবে বিতরণ শুরু হবে। তবে গত ১৮ আগস্ট গাংনী উপজেলা এবং ৩১ মার্চ সদর উপজেলায় মাঠ পর্যায়ে স্মার্ট কার্ড বিতরণ শেষ হলেও এখন পর্যন্ত ৫৮ হাজার ৬৬২ জন স্মার্ট কার্ড গ্রহণ করেননি।  তিনি আরো জানান, গত বছরের ১ ডিসেম্বর থেকে ৩১ মার্চ পর্যন্ত স্মার্ট কার্ড বিতরণ করা হয়। যারা তখন নিতে পারেননি অফিসে এসে সুবিধামত সময়ে সংগ্রহ করছেন।

গাংনী উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা রশিদুল আলম জানান, গাংনীতে ১৯ এপ্রিল থেকে ১৮ আগস্ট পর্যন্ত উপজেলার বিভিন্ন স্থানে মাঠ পর্যায়ে স্মাট কার্ড বিতরণ করা হয়। যারা এখনো কার্ড সংগ্রহ করেননি তারা উপজেলা নির্বাচন অফিসে এসে কার্ড সংগ্রহ করতে পারবেন।

 

এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:২৮
যোহর১১:৫৫
আসর৪:২১
মাগরিব৬:০৮
এশা৭:২১
সূর্যোদয় - ৫:৪৪সূর্যাস্ত - ০৬:০৩
পড়ুন