ঢাকা মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ ২০১৯, ৫ চৈত্র ১৪২৫
২৪ °সে

কালাইয়ে এক কি.মি রাস্তা বেহাল ভোগান্তিতে হাজারো মানুষ

রাস্তায় ইট উঠে গিয়ে বিভিন্ন স্থানে অসংখ্য ছোট-বড় গর্ত সৃষ্টি হয়েছে। ওই রাস্তা দিয়ে চলাচলের সময়ে আমাদের অটোভ্যান উল্টে গিয়ে বা কখনো ভেঙে পড়ে যাত্রীরা আহত হচ্ছে। এই রাস্তাটি দ্রুত সংস্কার করা না হলে যে কোনো সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে
কালাইয়ে এক কি.মি রাস্তা বেহাল  ভোগান্তিতে হাজারো মানুষ
কালাই (জয়পুরহাট):উপজেলার তিশরা গ্রামের রাস্তাটির বেশিরভাগ অংশ পুকুরে ভেঙে গেছে —ইত্তেফাক

কালাইয়ের তিশরা গ্রামের প্রায় এক কি.মি রাস্তা বেহাল হয়ে আছে। এতে ভোগান্তিতে পড়েছে হাজারো মানুষ।

সরেজমিনে দেখা গেছে, উপজেলার পুনট ইউনিয়নে ৭নং ওয়ার্ডটি তিশরা গ্রাম। ওই গ্রামে প্রায় এক হাজার মানুষের বসবাস। তাদের চলাচলের একমাত্র রাস্তাটি বছরের পর বছর ধরে সংস্কার না করায় বর্তমান ইট উঠে গিয়ে এতই খারাপ হয়েছে যে, সেখানে যানবাহন চলাচল তো দূরের কথা, পায়ে হেঁটে চলাচল করতে তাদের খুব কষ্ট হচ্ছে। রাস্তাটি ভাঙা থাকার কারণে রোগী ও গর্ভবতী মায়েদের চিকিত্সাসেবা দিতে চরম সমস্যায় পড়তে হচ্ছে। সেখানকার স্কুলগামী শিশুদের পায়ে হেঁটে স্কুলে যেতে হয় বলে অনেক শিশুরা স্কুলে যেতে চায় না। অন্যদিকে গ্রামের ভিতরে বড় একটি পুকুর পাড়ের উপর দিয়ে রাস্তাটি হওয়ায় বর্তমানে বেশির ভাগ অংশ ওই পুকুরে ভেঙে সরু হয়ে গেছে। এরপরও ওই রাস্তা দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে প্রতিদিন বিভিন্ন যানবাহন চলাচল করার ফলে সেখানে প্রায় সময় ঘটছে ছোট ছোট দুর্ঘটনা।

ওই গ্রামে আনিছুর রহমান, খাজা মিয়া, গোলাম হোসেন, জালাল আকন্দ ও ছেলিম হোসেনসহ অনেকে অভিযোগ করেন, তাদের গ্রামের একমাত্র গুরুত্বপূর্ণ রাস্তাটি প্রায় এক যুগ ধরে কোনো উন্নয়ন করেনি কর্তৃপক্ষ।

এ রাস্তা দিয়ে চলাচলকারী অটোভ্যান চালক আরিফুল ইসলাম ও রাজু আহম্মেদ বলেন, রাস্তায় ইট উঠে গিয়ে বিভিন্ন স্থানে অসংখ্য ছোট-বড় গর্ত সৃষ্টি হয়েছে। ওই রাস্তা দিয়ে চলাচলের সময়ে আমাদের অটোভ্যান উল্টে গিয়ে বা কখনো ভেঙে পড়ে যাত্রীরা আহত হচ্ছে। এই রাস্তাটি দ্রুত সংস্কার করা না হলে যে কোনো সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।

কালাই উপজেলার পুনট ইউনিয়ানে ৭নং ওয়ার্ডের তিশরা-গ্রামের মেম্বার আফসার আলি সরদার বলেন, রাস্তা সংস্কারের বিষয়ে আমাদের চেয়ারম্যান ও এমপিকে বলা হয়েছে। তারা রাস্তাটিকে সংস্কার করে দেবেন।

উপজেলার পুনট ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল কুদ্দুস ফকির বলেন, তিশরা গ্রামের রাস্তাটি সংস্কারের জন্য ইতোমধ্যে বাজেট পাস হয়েছে। কিন্তু টেন্ডার হয়নি। টেন্ডার হলেই দ্রুত কাজ শুরু হবে।

কালাই উপজেলা এলজিইডি’র প্রকৌশলী মোঃ সিরাজুল ইসলাম বলেন, আমি সবেমাত্র এই উপজেলায় যোগদান করেছি। আর তিশরা গ্রামের রাস্তাটি দীর্ঘদিন কেন সংস্কার করা হচ্ছে না বিষয়টি স্থানীয় ইউপির চেয়ারম্যান ও মেম্বাররা আমার চেয়ে অনেক ভালো জানেন।

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৯ মার্চ, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন