রাজধানীতে জলাতঙ্কের ঝুঁকি
২২ অক্টোবর, ২০১৭ ইং
রাজধানীতে বেওয়ারিশ কুকুরের সংখ্যা উদ্বেগজনকভাবে বৃদ্ধি পাইতেছে। সেই সঙ্গে কুকুরের উত্পাত নগরবাসীর নিকট দুশ্চিন্তার অন্যতম কারণ হইয়া উঠিয়াছে। কুকুরের কামড় ও আক্রমণে জলাতঙ্ক রোগে আক্রান্ত হইতেছেন অনেকেই। আবার সময়মতো জলাতঙ্কের টিকা গ্রহণ না করিবার কারণে অকাল মৃত্যুর ঘটনাও ঘটিয়াছে। মহাখালী সংক্রামক ব্যাধি হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, রাজধানী ও ইহার পার্শ্ববর্তী এলাকায় গত নয় মাসে কুকুর দ্বারা আক্রান্ত হইয়া শুধু তাহাদের নিকট চিকিত্সা গ্রহণ করিয়াছেন ৫১ হাজারের অধিক রোগী। তাহাছাড়া বিগত পাঁচ বত্সরে হাসপাতালটিতে চিকিত্সা নেওয়া এই ধরনের রোগীর সংখ্যা ছিল প্রায় সাড়ে তিন লক্ষাধিক। তন্মধ্যে ৪ শত ৫০ জন মারা গিয়াছে বলিয়াও প্রতিষ্ঠানটি জানায়। এমতাবস্থায় বেওয়ারিশ কুকুরের সংখ্যা নিয়ন্ত্রণ না করিলে ভবিষ্যতে ক্ষয়ক্ষতি আরো বৃদ্ধি পাইবে বলিয়া আশঙ্কা করা হইতেছে।

একসময় বেওয়ারিশ কুকুরের উপদ্রব বাড়িয়া গেলে নিষ্ঠুর কায়দায় তাহাদের নিধন করা হইত। ক্ষতিগ্রস্ত কিংবা অতি উত্সাহী উভয় শ্রেণিরই নিষ্ঠুরতার বলি হইত অসহায় এই জীবগুলি। উচ্চ আদালত ২০১২ সালে এ ধরনের অমানবিক আচরণ নিষিদ্ধ ঘোষণা করেন। তবে পরিতাপের বিষয় হইল—বিকল্প পদ্ধতি হিসাবে পথ-কুকুরের সংখ্যা নিয়ন্ত্রণের যে উদ্যোগ নেওয়া হইয়াছে, তাহাও বিগত বত্সরগুলিতে যথাযথভাবে কার্যকর করা যায় নাই। ইহার জন্য সিটি করপোরেশনের অনীহাই মুখ্যত দায়ী বলিয়া মনে করেন ভুক্তভোগী নগরবাসীরা। তাহাছাড়া মাঝে-মধ্যে বেসরকারি উদ্যোগে বেওয়ারিশ কুকুরের জন্ম নিয়ন্ত্রণে বিচ্ছিন্ন কিছু প্রয়াস লক্ষ্য করা গেলেও তাহা প্রয়োজনের তুলনায় নিতান্তই অপ্রতুল বলা চলে।

বেওয়ারিশ কুকুর বিপজ্জনক হইলেও সঠিক ব্যবস্থাপনা থাকিলে প্রাণহানি বা ক্ষতির শঙ্কা বহুলাংশেই কাটাইয়া ওঠা যায়। এই জন্য জীবাণু রোধের যথেষ্ট আয়োজন থাকা জরুরি। এই ক্ষেত্রে জলাতঙ্ক সংক্রমণের ঝুঁকি রোধে কুকুরের শরীরে টিকা দেওয়া একটি ভালো বিকল্প হইতে পারে। তবে জীবাণুমুক্ত নিরাপদ কুকুরও অনেক সময় পথচারীদের পক্ষে বিরক্তি ও ভীতির কারণ হইতে পারে। তাহাছাড়া রাজধানী শহরের রাস্তায় কিংবা যত্রতত্র অসংখ্য সারমেয় ঘুরিয়া বেড়াইবে, ইহাও সুস্থ স্বাভাবিক দৃশ্য হইতে পারে না। এই প্রেক্ষিতে পথ-কুকুরের সংখ্যা নিয়ন্ত্রণে যথাযথ উদ্যোগ গ্রহণ জরুরি হইয়া পড়িয়াছে। যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি ও নিয়মনীতি মানিয়া কুকুর পোষাও একটি ভালো সমাধান হইতে পারে।

এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
২২ অক্টোবর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:৪৪
যোহর১১:৪৪
আসর৩:৫০
মাগরিব৫:৩০
এশা৬:৪৩
সূর্যোদয় - ৫:৫৯সূর্যাস্ত - ০৫:২৫
পড়ুন