প্রধানমন্ত্রীর ভাষণে সংকট নিরসনের রূপরেখা নেই :ফখরুল
১৪ জানুয়ারী, ২০১৮ ইং

g ইত্তেফাক রিপোর্ট

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী যে ভাষণ দিয়েছেন তা ছিল বেআইনি ও অনৈতিক সরকারের চার বছরের পূর্তি উপলক্ষে। তার ভাষণ জাতিকে হতাশ ও উদ্বিগ্ন করেছে। দেশে বিদ্যমান সংকট নিরসনে ওই ভাষণে কোনো রূপরেখা নাই। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন সম্পর্কে তিনি যা বলেছেন তা খুবই অস্পষ্ট, ধোঁয়াশাপূর্ণ এবং বিভ্রান্তিকর। মির্জা ফখরুল বলেন, প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন, সংবিধান অনুযায়ী ২০১৮ সালের শেষ দিকে জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। কিভাবে এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে তা স্পষ্টভাবে সংবিধানে বলা আছে। সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচনের আগে নির্বাচনকালীন সরকার গঠিত হবে।

গতকাল শনিবার বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার গুলশান-২ এর রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেছে মির্জা ফখরুল। প্রধানমন্ত্রীর ভাষণের পরিপ্রেক্ষিতে বিএনপির আনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়া জানানোর জন্য এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

মির্জা ফখরুল বলেন, সংবিধানে নির্বাচনকালীন সরকার সম্পর্কে স্পষ্ট কোনো বিধান নেই। সংবিধান অনুযায়ী যদি সংসদ বহাল রেখে দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়, সে নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু হবে না। কারণ সংসদ বহাল থাকা অবস্থায় নির্বাচনকালীন সরকার হবে বর্তমান সরকারের অনুরূপ। নির্বাচনকালীন সরকার কেবল রুটিন ওয়ার্ক করবে এমন কিছু সংবিধানে উল্লেখ নাই। সংবিধানের পঞ্চদশ ও ষোড়শ সংশোধনীর মাধ্যমে আওয়ামী লীগের শাসনকে পাকাপোক্ত করার একটি ব্যবস্থা করা হয়েছে। সংবিধান ও গণতন্ত্র সবসময় সমার্থক হয় না। যদি হতো তাহলে হিটলার ও মুসোলিনির শাসনকেও গণতান্ত্রিক বলা হতো। কারণ তাদের শাসনও সংবিধান অনুযায়ী ছিল।

 

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১৪ জানুয়ারী, ২০১৮ ইং
ফজর৫:২৩
যোহর১২:০৮
আসর৩:৫৭
মাগরিব৫:৩৫
এশা৬:৫২
সূর্যোদয় - ৬:৪২সূর্যাস্ত - ০৫:৩০
পড়ুন