২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার বিচার কাজ শেষ পর্যায়ে
আগামী সপ্তাহে শেষ হবে যুক্তিতর্ক
বিশেষ প্রতিনিধি১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং

বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে ২১ আগস্ট ভয়াবহ ও নৃশংস গ্রেনেড হামলার দুই মামলার বিচারকার্য শেষ পর্যায়ে। রাষ্ট্রপক্ষের আইনি বিষয়ে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন আগামী সপ্তাহে শেষ হবে। মামলার পরবর্তী তারিখ ধার্য করা হয়েছে আগামী ১৭ ও ১৮ সেপ্টেম্বর। গতকাল বুধবার আইনি পয়েন্টে যুক্তিতর্ক পেশ করেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী আকরাম উদ্দিন শ্যামল ও  বিশেষ পিপি আবু আব্দুল্লাহ ভুঁইয়া। রাষ্ট্রপক্ষের প্রধান আইনজীবী  সৈয়দ রেজাউর রহমান বলেন, দীর্ঘ ১২ বছরেরও বেশি সময় ধরে এ মামলা আমরা পরিচালনা করছি। মামলার বিচার একেবারেই শেষ পর্যায়ে। আসামিপক্ষ এ মামলায় আইনের দৃষ্টিতে সব সুবিধা গ্রহণ করেছেন। মামলাটিতে ৬১ জন সাক্ষির সাক্ষ-জেরার পর অধিকতর তদন্ত ও সম্পূরক অভিযোগ দেয়া হয়। এ মামলায় দুই কার্যদিবস আইনি পয়েন্টে যুক্তিতর্ক পেশ করেন এডভোকেট মোশররফ হোসেন কাজল।

রাজধানীর নাজিমউদ্দিন রোডে পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারের পাশে স্থাপিত ঢাকার ১ নম্বর দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক শাহেদ নূর উদ্দিনের আদালতে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার ঘটনায় পৃথক দুই মামলায় একই সঙ্গে বিচার চলছে। যুক্তিতর্কে আকরাম উদ্দিন শ্যামল বলেন, এ মামলায় অধিকতর তদন্তে আইন ও  পদ্ধতিগত কোনো ব্যতায় ঘটেনি। বিদ্যমান আইনে অধিকতর তদন্ত ও সম্পূরক  অভিযোগপত্র বিষয়ে বিস্তারিত উল্লেখ রয়েছে। বিশেষ পিপি আবু আব্দুল্লাহ ভুঁইয়া তার যুক্তিতর্কে বলেন, ২১ আগস্ট হামলার উদ্দেশ্য ছিল আওয়ামী লীগকে নেতৃত্ব শূন্য করে বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের ক্ষমতাকে পাকাপোক্ত ও চিরদিনের জন্য স্থায়ী করা। তিনি আসামিদের সর্বোচ্চ সাজা দাবি করেন। গতকাল আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে উপস্থিত ছিলেন এডভোকেট ফারহানা রেজা, এডভোকেট আমিনুর রহমান প্রমুখ।  অপরদিকে আসামিপক্ষে উপস্থিত ছিলেন আইনজীবী এসএম শাহজাহান, নজরুল ইসলাম, মাসুদ রানা প্রমুখ। ১১৭ কার্যদিবস শেষে মামলাটি এই পর্যায়ে এসেছে। এর মধ্যে রাষ্ট্রপক্ষ নিয়েছে ২৮ কার্যদিবস আর আসামি পক্ষ নিয়েছে ৮৯ কার্যদিবস।

উল্লেখ্য, ২১ আগস্টের ঘটনায় পৃথক মামলায় আসামি ৫২ জন। এরমধ্যে তিনজন আসামি অন্য মামলায় মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হওয়ায় তাদের মামলা থেকে বাদ দেয়া হয়েছে। এখন ৪৯ আসামির বিচার চলছে। এর মধ্যে ১৮ জন পলাতক। মামলার আসামি বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুত্ফুজ্জামান বাবর, বিএনপি নেতা সাবেক উপমন্ত্রী আবদুস সালাম পিন্টু, সেনা কর্মকর্তা রেজ্জাকুল হায়দার চৌধুরীসহ ২৩ জন কারাগারে রয়েছেন। জামিনে রয়েছেন আটজন।

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:২৮
যোহর১১:৫৫
আসর৪:২১
মাগরিব৬:০৮
এশা৭:২১
সূর্যোদয় - ৫:৪৪সূর্যাস্ত - ০৬:০৩
পড়ুন