পিচ্চি হেলাল ও রাজিব গ্রুপের বিরোধে যুবলীগ কর্মী খুন
১৩ আগষ্ট, ২০১৭ ইং
ইত্তেফাক রিপোর্ট

কারাগারে বন্দি শীর্ষ সন্ত্রাসী পিচ্চি হেলাল ও রাজিব গ্রুপের আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে রাজধানীর মোহাম্মদপুরে তছির উদ্দিনকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। বসিলা, চাঁদ উদ্যান ও রাজধানী উদ্যান এলাকায়  ডিশ ব্যবসা, গরুর হাটের নিয়ন্ত্রণ, খালভরাট করে দোকান নির্মাণ ও খাসজমি দখলকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের মধ্যে এই বিরোধের সূত্রপাত হয়। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ এমন তথ্য জানতে পেরেছে। বুধবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে রাজধানী উদ্যান এলাকায় ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয় যুবলীগ কর্মী তছির উদ্দিনকে (২৮)।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, পিচ্চি হেলালের অন্যতম সহযোগী কাইল্যা সুমন গ্রুপে কাজ করতো তছির। তার সঙ্গে রাজিব গ্রুপের ইয়াসিন, জাকির ও ফারুকের বিরোধ হয়। এই বিরোধকে কেন্দ্র কওে জাকির ও ফারুক ছুরিকাঘাতে হত্যা করে তছিরকে।  এর আগের দিন জাকির গ্রুপের কয়েকজনকে মারধর করে তছির গ্রুপের লোকজন।

পুলিশের তেজগাঁও বিভাগের এক শীর্ষ কর্মকর্তা জানান, ডিশ ব্যবসা ও দোকান বসানোকে বিরোধকে কেন্দ্র করে ক্যাবল ব্যবসায়ী জাকিরের সঙ্গে বিরোধ হয় তছিরসহ বেশ কয়েকজন। প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে বসিলা এলাকায় গরুর হাট বসানো ও স্থানীয় খালপাড়ে ট্রাক স্ট্যান্ড তৈরি এবং দোকান বরাদ্দ নিয়েও বিরোধ তৈরি হয়।

স্থানীয় সূত্র জানায়, আগামী কোরবানির ঈদে বসিলার রাজধানী উদ্যানে গরুর হাট বসানো হবে। এই হাটের নিয়ন্ত্রণকে কেন্দ্র করে সন্ত্রাসীদের দুই গ্রুপের মধ্যে বিরোধ মারাত্মক রূপ নিয়েছে। মোহাম্মদপুর থানার ওসি জামাল উদ্দিন মীর জানান, বুধবার সন্ধ্যায় রাজধানী হাউজিং ও চাঁদ হাউজিংয়ে ডিশ ব্যবসার নিয়ন্ত্রণসহ বিভিন্ন বিষয়ে কথাকাটাকাটির জেরে উজ্জ্বল নামে এক ব্যক্তিকে মারধর করা হয়। ওই ঘটনা মীমাংসার জন্য রাত ১২টার দিকে দুই দল বৈঠকে বসে। এ সময় কথাকাটাকাটির জেরে জাকির, ফারুক ও সোলায়মানসহ তিন-চারজন তছিরকে ধাওয়া দিয়ে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করে। নিহতের বড় ভাই বছির উদ্দিন জানান, তছির যুবলীগ করে। জাকিরের সঙ্গে মিছিল মিটিংয়ে যেতো। তার সঙ্গে চলাফেরা ছেড়ে দেয়ায় শত্রুতা তৈরি হয়।

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১৩ আগষ্ট, ২০১৭ ইং
ফজর৪:১৩
যোহর১২:০৪
আসর৪:৩৯
মাগরিব৬:৩৭
এশা৭:৫৪
সূর্যোদয় - ৫:৩৩সূর্যাস্ত - ০৬:৩২
পড়ুন