স্রোতের জন্য ৩ লঞ্চ উদ্ধার হয়নি, ২ লাশ উদ্ধার
১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং
এখনো নিখোঁজ ১৫

g শরীয়তপুর প্রতিনিধি

শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার ওয়াপদা লঞ্চঘাটে ডুবে যাওয়া লঞ্চ ৩টি ও নিখোঁজ যাত্রীদের উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। পদ্মা নদীতে প্রচণ্ড স্রোত থাকার কারণে বিআইডব্লিউটিএ, নৌবাহিনী, ফায়ার সার্ভিস  উদ্ধার অভিযান চালাতে পারছে না।

সুরেশ্বর এলাকার পদ্মা নদী থেকে দুটি লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এদের একজন লোনসিং গ্রামের মোহাম্মদ আলী মাদবরের স্ত্রী পারভিন আক্তার। অপর লাশটি ২৫ বছরের এক যুবকের। ওই যুবকের পরিচয় এখনো পাওয়া যায়নি। এখনো ১৫ জন নিখোঁজ রয়েছে।

নড়িয়া থানার ওসি মো. আসলাম উদ্দিন বলেন, পারভিন আক্তার মৌচাক লঞ্চের যাত্রী ছিলেন। বুধবার দুপুরে পুলিশ নদী থেকে তার লাশ উদ্ধার করেছে। শনাক্ত করার পর মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। পারভিনের মা ও মেয়ে এখনো নিখোঁজ রয়েছে।

সোমবার পদ্মা নদী ভাঙনের কারণে নড়িয়া উপজেলার ওয়াপদা লঞ্চঘাটের পন্টুন বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। পানির স্রোতে পন্টুনে নোঙর করা তিনটি লঞ্চ ডুবে যায়। ডুবে যাওয়া মৌচাক লঞ্চটি ওই ঘাট হতে ঢাকায়, নড়িয়া ২ ও মহানগরী লঞ্চটি নারায়ণগঞ্জে চলাচল করত। লঞ্চটির ১৩ জন কর্মী এখনো নিখোঁজ রয়েছে।

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:২৯
যোহর১১:৫৫
আসর৪:২০
মাগরিব৬:০৭
এশা৭:২০
সূর্যোদয় - ৫:৪৪সূর্যাস্ত - ০৬:০২
পড়ুন