কাঁচপুরে ছাত্রলীগের অফিসে হামলা-ভাঙচুর, আহত ১৫
১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং
g  নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি ও সোনারগাঁও সংবাদদাতা

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলার কাঁচপুর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের অফিস উচ্ছেদ করতে আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে যুবলীগের নেতাকর্মীরা হামলা চালিয়ে ভাংচুর করার অভিযোগ উঠেছে। এসময় ছাত্রলীগের ১৫ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছে। গত মঙ্গলবার রাতে উপজেলার কাঁচপুর মেগা কমপ্লেক্সের সামনে ছাত্রলীগ কার্যালয়ে এ হামলা চালনো হয়। এসময় হামলাকারীরা অফিসে থাকা বঙ্গবন্ধু, প্রধানমন্ত্রী ও সাংসদ শামীম ওসমানের ছবি ভাংচুর করে। এ ঘটনায় গতকাল বুধবার দুপুরে সোনারগাঁ থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। এঘটনায় কাঁচপুর এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

জানা যায়, কাঁচপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি মাহাবুব পারভেজের সঙ্গে কাঁচপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের ৫নং ওয়ার্ডের সভাপতি নাহিদ মিয়ার ব্যবসায়িক বিরোধ চলে আসছিল। গত মঙ্গলবার রাতে দু’জনের মধ্যে বাকবিতন্ডা হয়। বাগবিতন্ডার  সূত্র ধরে সোনারগাঁও যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বাবুল ওমর বাবুলের নেতৃত্বে মাহাবুব পারভেজ, উপজেলা শ্রমিকলীগের যুগ্ম সম্পাদক ফারুক ওমর, যুবলীগ নেতা সুমন মিয়া, মোখলেছুর রহমান, রাসেদ মিয়া, উজ্জল হোসেন, বাবুল হোসেনসহ অর্ধশতাধিক লোক একত্র হয়ে কাঁচপুর মেগা কমপ্লেক্সের সামনে কাঁচপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের ৫নং ওয়ার্ডের অফিস কার্যালয়ে হামলা চালিয়ে অফিসে থাকা আসবাবপত্র ভাংচুর করে। হামলাকারীরা ছাত্রলীগের ৫নং ওয়ার্ডের সভাপতি নাহিদ হোসেন, সাধারণ সম্পাদক হূদয় হোসেন, সহ-সভাপতি সাইফুল ইসলাম, ৪নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সভাপতি শামীম মিয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক নিলয় হোসেন, কাঁচপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগ নেতা হাসান মিয়াসহ প্রায় ১৫ জনকে পিটিয়ে আহত করে। আহতদের স্থানীয় ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনায় সোনারগাঁও থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। এ ঘটনার পর থেকে ছাত্রলীগ ও যুবলীগ কর্মীরা মুখোমুখি অবস্থানে রয়েছে। যে কোনো মুহূর্তে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা করছেন এলাকাবাসী।

সোনারগাঁও উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ রাসেল মাহমুদ বলেন, ঘটনাটি খুবই ন্যক্কারজনক। তিনি অবিলম্বে দোষীদের গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন।

এঘটনায় সোনারগাঁও যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বাবুল ওমর বাবু বলেন, কাঁচপুর এলাকায় মেগা কমপ্লেক্সের সামনে জোরপূর্বক জায়গা দখল করে অবৈধভাবে দোকানপাট নির্মাণ করে ছাত্রলীগ নামধারীরা। এতে আমরা তাদের বাধা দেই। তবে কার্যালয়ে হামলার বিষয়ে আমরা জড়িত না।

সোনারগাঁও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম নান্নু বলেন, ছাত্রলীগ কার্যালয়ে হামলার বিষয়টি আমার জানা নেই। তবে এর সঙ্গে যুবলীগের কেউ জড়িত থাকলে তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সোনারগাঁও থানার ওসি মোরশেদ আলম পিপিএম বলেন, অভিযোগ তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:২৯
যোহর১১:৫৫
আসর৪:২০
মাগরিব৬:০৭
এশা৭:২০
সূর্যোদয় - ৫:৪৪সূর্যাস্ত - ০৬:০২
পড়ুন