মানিকগঞ্জে ধর্ষণ চেষ্টার মামলা তুলে নিতে বাদীকে হুমকি
১৬ ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং
g  শহিদুল ইসলাম সুজন, মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি

জেলার সাটুরিয়া উপজেলায়  এক গৃহবধূকে ধর্ষণ চেষ্টার ঘটনায় মামলা তুলে নিতে বাদীকে হুমকি দেওয়া অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় মামলার বাদী নিরাপত্তা চেয়ে সাটুরিয়া থানায় গত ১৪ ডিসেম্বর একটি সাধারণ ডায়েরি করেছে। এদিকে স্থানীয় গ্রাম্য সালিশে বিষয়টি আপোষ করার জন্য মাতাব্বররা ৭০ হাজার টাকা নিয়ে মিমাংশা করলে বাদীকে একটি টাকাও দেয়নি। মাতাব্বর ও আসামীরা মিলে মামলার বাদীকে মামলা তুলে নিতে হুমকি দিয়ে আসছে। 

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার পাতিলাপাড়া  গ্রামের তারামিয়ার ছেলে ফিরোজ এক গৃহবধূকে  কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। গত ২৪ অক্টোবর ওই গৃহবধূ প্রকৃতির ডাকে রাতে ঘরের বাইরে এলে তাকে বখাটে ফিরোজের বন্ধু আলামিন, বাদশা মিয়া, কাবিল মিলে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। এক পর্যায়ে ওই গৃহবধূর মাথায় চাপাতি দিয়ে আঘাত করে বখাটেরা পালিয়ে যায়। স্থানীয় ও পরিবারের লোকজন গৃহবধূকে উদ্ধার করে সাটুরিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভর্তি করেন। ঘটনার দুদিন পর গৃহবধূর স্বামী মোঃ জাহাঙ্গীর আলম আদালতে নারী ও শিশু দমন আইনে মামলা করেন।

মামলা করার পর থেকে স্থানীয় মাতাব্বর বিল্লাল হোসেন, শফি উদ্দিন,সাবচান, রজব আলী ও দুলাল মেম্বারসহ মিলে মামলাটি আপোশ মিমাংশা করার জন্য মামলার বাদীকে চাপ প্রয়োগ করতে থাকেন। মামলার বাদী তাদের ভয়ে আপোষ করার মত দিলে ৭০ হাজার টাকা দেয়ার রায় দেন মাতাব্বরা। আসামীরা ৭০ হাজার টাকা মাতাব্বর ও স্থানীয় মেম্বারের কাছে সিদ্ধান্ত জমা দেন। কিন্তু মাতাব্বররা টাকা বাদীকে না দিয়ে নিজেরাই আত্নসাত্ করেন।   সালিশের বিচারক বরাইদ ইউপি সদস্য মোঃ দুলাল হোসেন বলেন, বাদীকে সালিশের জরিমানার টাকা দেওয়া হয়েছে। বাদী একজন প্রতারক। সে গ্রামের কাউকে মানে না । টাকা পাওয়ার পরও থানায় মিথ্যা অভিযোগ করেছে বলে জানান।

 

এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
১৬ নভেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৫:১২
যোহর১১:৫৪
আসর৩:৩৯
মাগরিব৫:১৭
এশা৬:৩৫
সূর্যোদয় - ৬:৩৩সূর্যাস্ত - ০৫:১২
পড়ুন