‘ইংরেজি শেখা কঠিন নয়,সদিচ্ছাই যথেষ্ট’
২৩ অক্টোবর, ২০১৭ ইং
‘ইংরেজি শেখা কঠিন নয়,সদিচ্ছাই যথেষ্ট’

আমাদের সমাজে অনেক ডিগ্রিধারীই আছেন, যারা এয়ারপোর্টে ইমিগ্রেশন কর্মকর্তার সাধারণ প্রশ্নোত্তর এবং অ্যাম্বারগেশন ফর্মটিও প্রয়োজনে পূরণ করতে পারেন না। অনুরূপ ট্যাক্সি, হোটেল বুকিং কিংবা কেনাকাটায়ও সামান্য ইংরেজি কথোপকথনটুকু করতে না পারায় বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়তে হয় অনেককেই। অথচ ইংরেজি শেখা কোনো জটিল-কঠিন বিষয় নয়। ইংরেজির বেসিক কিংবা বিশদ জ্ঞান অর্জনের জন্য প্রয়োজন একটি ধারাবাহিক প্রশিক্ষণ মাত্র। যা বিভিন্ন মেয়াদ ও সুনির্দিষ্ট কিছু প্রক্রিয়া ও পদ্ধতিতে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের পেশাদার শিক্ষকদের মাধ্যমে পড়িয়ে থাকেন। রাজধানী কিংবা অন্যান্য শহরেও এ জাতীয় প্রতিষ্ঠানের অভাব নেই। আর এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্য থেকে উপযুক্ত প্রতিষ্ঠানটি নির্বাচন করাই হচ্ছে প্রথম চ্যালেঞ্জ। তাই যারা ভালোভাবে ইংরেজি শিখতে চান তাদেরকে এই চ্যালেঞ্জটুকু নিতেই হবে।

আধুনিক ইংরেজি ও আইইএলটিএস শিক্ষায় এক ব্যতিক্রমধর্মী প্রতিষ্ঠান এই বিএআরসি। উত্তরা ১১নং সেক্টরে ২০০৯ সালে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। ইংরেজির বেসিক কোর্সসহ কর্পোরেট প্রফেশনাল কোর্স, প্রস্তুতিমূলক কোর্স ও গ্র্যাজুয়েট কোর্স এবং আইইএলটিএস কোর্সগুলো অত্যন্ত যত্ন ও পেশাদারিত্বের সঙ্গে এখানে পড়ানো হয়। এখানকার প্রফেশনাল শিক্ষকদের তত্ত্বাবধানে অভিনব সাবলীল শিক্ষানুশীলনের মধ্য দিয়ে শিক্ষার্থীরা অনায়াসেই সবকিছু আয়ত্ত করতে পারে। এদের পাঠক্রম ও অনুশীলন পদ্ধতিতে রয়েছে নিজস্ব স্বকীয়তা ও ছন্দময় ক্রমবিকাশ। যা পাঠ্যকে করে তোলে অপেক্ষাকৃত সহজবোধ্য ও নান্দনিক। ফলে সর্বোচ্চ গ্রেড তথা স্কোরারের চ্যালেঞ্জটি শিক্ষার্থীরা এখানে নিচ্ছে অধিকতর স্বাচ্ছন্দ্যে ও দৃঢ়তার সঙ্গে। প্রথমে একটি টেস্টের মাধ্যমে ইংরেজিতে তাদের বেসিক অবস্থা সম্পর্কে ধারণা নিয়ে উপযুক্ত কোর্সে ভর্তি নেওয়া হয়। আর এ জাতীয় সাফল্যের হাত ধরেই বিএআরসি এখন আইইএলটিএসের অফিসিয়াল টেস্ট ভেন্যু। এদের রয়েছে আইডিপি এডুকেশনের স্বীকৃতি ও আন্তর্জাতিক বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সুসমন্বয়।

বিএআরসিএর কর্ণধার, শিক্ষক মো. মারুফ ফিরোজ বলেন, ‘ইংরেজি কেবলই একটি ভাষা, এখানে জটিলতা বা ভয়ের কিছু নেই। এটি শিখতে প্রয়োজন কেবল নিয়মিত অনুশীলন তথা চর্চা অব্যাহত রাখা। যা কেবল শ্রেণিকেন্দ্রিক নয়, বাস্তব জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে উঠতে বসতে পরিবারে ও বন্ধুমহলে এর ব্যবহারের মধ্য দিয়েই একে আত্মস্থ তথা ধাতস্থ করা সম্ভব। প্রতিষ্ঠান কেবল একে শেখার কায়দা-কানুন দেখিয়ে দেবে একটি সুশৃঙ্খল পন্থায়। আইইএলটিএসের ব্যাপারটিও অনুশীলনেরই বিষয়। তবে ভালো স্কোর অর্জনের প্রশ্নে কঠোর অধ্যবসায় তথা নিয়মিত অনুশীলনের কোনো বিকল্প নেই। ফলে আমাদের মূল কাজ কোর্সটিকে যতটা সম্ভব সাবলীল ও উপভোগ্য করে ছাত্রদের সামনে তুলে ধরা ও এর চর্চার ব্যাপারে আগ্রহ তৈরি করা। বিশেষ করে পৃথকভাবে প্রত্যেকের দুর্বলতাগুলো শনাক্ত করে উপযুক্ত ব্যাচ গঠন করে এগিয়ে নেওয়া। আর এ কারণেই নবীন ছাত্ররা যারা ভর্তি হতে আসেন, তাদেরকে সর্বপ্রথম একটি অ্যাসেসমেন্ট টেস্টের মাধ্যমে তার উপযুক্ত  ব্যাচ সম্পর্কে পরামর্শ ও ভর্তির ব্যবস্থা করা এবং আইইএলটিএসের ক্ষেত্রে রেজিস্ট্রেশন, টেস্ট ভেন্যু নির্বাচন ও এর মূল পরীক্ষা থেকে ফলাফল সংগ্রহ পর্যন্ত সবকিছু ওয়ানস্টপ সার্ভিসের আওতায় একই ছাতার নিচে সুসম্পন্ন করা হয়। প্রয়োজনীয় তথ্যের জন্য যোগাযোগ :০১৬১৭৩০২০১০। পাশাপাশি উচ্চশিক্ষার্থে দেশি-বিদেশি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির প্রস্তুতি ও ভর্তির ব্যাপারে প্রয়োজনীয় সহায়তা দেওয়া হয়।’

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
২৩ অক্টোবর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:৪৩
যোহর১১:৪৩
আসর৩:৪৯
মাগরিব৫:২৯
এশা৬:৪২
সূর্যোদয় - ৫:৫৯সূর্যাস্ত - ০৫:২৪
পড়ুন